LatestsNews
# আমিরাতে প্রথম বাংলাদেশির গোল্ডেন ভিসা অর্জন# 'মোবাইল রিচার্জে শুল্ক বাড়ানোয় ক্ষতিগ্রস্ত হবে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা'# কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল্লাহ সবুজ নির্বাচিত# লাকসামে স্কুলছাত্রী ধর্ষনের শিকার, ধর্ষনকারী গ্রেপ্তার# দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া কঠিন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।# রাজধানীতে বিশৃঙ্খলভাবে দেয়াল লিখন ও গাছে বিজ্ঞাপন লাগালে কঠোর ব্যবস্থা'# পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ বা পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে এখন চলছে গণনা।# খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি নির্ভর করছে আদালতের ওপর।# রাজধানীর কল্যাণপুরের রাজিয়া পেট্রোল পাম্পে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।# সালথায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র শিক্ষকদের মাঝে পুরস্কার বিতরন# ঝিনাইদহে মসজিদের মোয়াজ্জিনকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা !# অবশেষে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দেয়া হচ্ছে।# শুধু সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্যই নয়, দলের আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার জন্য জয়ই দরকার ছিল# রাজশাহীতে জমে উঠেছে হরেক রকম আমের বেচাকেনা।# রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় ব্যর্থ বলে দায় স্বীকার করেছে জাতিসংঘ।# ২৩ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে# নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতীতে ভোট গ্রহণ # নোয়াখালীর হাতিয়ায় অস্ত্র ও গুলিসহ শীর্ষ জলদস্যু ফরিদ কমান্ডারকে গ্রেপ্তার করেছে কোস্টগার্ড# বেনাপোলে হুন্ডি করে অর্থ পাচারের অভিযোগে ৩ পুলিশ ক্লোজড # নড়াইলে শিক্ষার্থীদের গুলি করে হত্যার হুমকিতে ৪ জনের নামে মামলা দায়ের
আজ বুধবার| ১৯ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

মেহেরপুরে অস্ত্র মামলায় তিন জনের ১৫ ও ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড



মেহেরপুর প্রতিনিধি

মেহেরপুর শহরের চাঞ্চল্যকর অস্ত্র মামলায় আশরাফুল হক জহির ও আনিছুর রহমান নামক ২ ব্যাক্তির ১৫ বছর করে এবং জিয়ারুল নামক অপর এক ব্যাক্তির ১০ বছর সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন মেহেরপুরের একটি আদালত। দন্ডিত আশরাফুল হক জহির মেহেরপুর শহরের পুরাতন পোষ্ট অফিস পাড়ার মৃত্যু সামসুল হকের ছেলে।

আনিছুর রহমান সদর উপজেলার বুড়িপোতা গ্রামের শামসুল গনির ছেলে এবং জিয়ারুল হক বুড়িপোতা গ্রামের খোদা বক্স এর ছেলে। মামলার অপর আসামী খলিলুর রহমান মৃত্যু বরণ করায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত জিয়া পলাতক রয়েছে।

বৃহষ্পতিবার দুপুরে মেহেরপুর স্পেশাল ট্রাইবুন্যাল ৪র্থ আদালতের বিচারক মোঃ তাজুল ইসলাম এ রায় দেন। মামলার বিবরণে জানাগেছে ২০১০ সালের ২১ অক্টোম্বর র‌্যাব-১ ঢাকা অঞ্চলের ডিএডি আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দুপুরের দিকে পুরাতন পোষ্ট অফিস পাড়ার মৃত্যু শামসুল হকের ছেলে আশরাফুল হক জহিরের বাড়ি ঘেরাও করে।

এসময় র‌্যাব সদস্যরা তার দ্বিতল ভবনের সোবার ঘরে প্রবেশ করতে গেলে আশরাফুল হক জহির র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে জহিরের পায়ে গুলি লাগে এবং সে মেঝেতে পড়ে যায়। এসময় র‌্যাব সদস্যরা জহির ও তার সঙ্গি আনিছুর রহমানকে আটক করে।

পরে আহত অবস্থায় জহিরকে মেহেরপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে র‌্যাব সদস্যরা ১টি পিস্তল, ১ রাউন্ড গুলি ভর্তি ম্যাগজিন, ১ রাউন্ড গুলির খোসা, মোবাইল ফোন উদ্ধার করে। এ ঘটনায় অস্ত্র আইন ১৮৭৮ ১৯(এ) ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় মোট ৪জনকে আসামী করা হয়। যার মামলা নং ২১।

মেহেরপুর সদর থানা। তারিখ: ২২/১০/২০১০। ঘটনাটি ঐ সময় মেহেরপুরে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। পরে মামলার তন্দকারী কর্মকর্তা মেহেরপুর সদর থানার এসআই কামাল হোসেন মামলার প্রাথমিক তদন্ত শেষ করে ২০১০ সালের ১৩ নভেম্বর ৪জনের বিরুদ্ধে চার্যশীট দাখিল করেন। মামলায় মোট ৯ জন সাক্ষি তাদের সাক্ষ প্রদান করেন। এতে আসামী আশরাফুল হক জহির ও আনিছুর রহমানকে ১৫ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, জিয়ারুল হককে ১০ বছর সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

জিয়ারুল হক পলাতক থাকায় সে আটক এর দিন থেকে তার সাজা শুরু হবে। মামলার অপর আসামী খলিলুর রহমান মামলা চলাকালে মৃত্যু করণ করায় আদালত তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন। মামলায় রাষ্ট্র পক্ষে এপিপি এমএম রুস্তম আলী এবং আসামী পক্ষে খন্দকার আব্দুল মতিন কৌশুলী ছিলেন।


1