LatestsNews
# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের দুজন নাগরিক। # জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হলো# ডেঙ্গু প্রতিরোধ-সচেতনতায় 'স্টপ ডেঙ্গু' অ্যাপ চালু # অবশেষে টাইগারদের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ডোমিঙ্গাকে।# পশ্চিমবঙ্গে বজ্রপাতে ৬ বাংলাদেশিসহ আহত ২৪, নিহত ৭# রাজধানীর মিরপুরে চলন্তিকা মোড়ের বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে# বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ আট শহরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বর্ষ উদযাপন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।# ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বাসের চাপায় প্রাণ গেল একই পরিবারের ৫ জনের# মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা কারি নিউজিল্যান্ডের সেই খুনি জেলে বসেই অস্ত্র চাইলেন# বেনাপোল -বর্ডার ভোগান্তি টাকা টাকা খেলা নিরাপত্তা দেবে যারা, তারাই তো লুটেরা ?# জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নোয়াখালীতে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে স্বোচ্ছায় রক্তদান
আজ রবিবার| ১৮ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ক্রমেই ফুরিয়ে আসছে দেশীয় গ্যাসের মজুদ



আর জ্বালানি সংকট কাটাতে অভ্যন্তরীণ তেল-গ্যাস-কয়লা উত্তোলনে জোর না দিয়ে সরকারি পরিকল্পনায় গুরুত্ব পাচ্ছে আমদানি নির্ভরতা। অন্যদিকে এ খাতে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগও প্রকট। সব মিলিয়ে দেশের জ্বালানি নিরাপত্তাকে ঝুঁকির মধ্যে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

১৯৭৫ সালের ৯ আগস্ট ব্রিটিশ কোম্পানি কোম্পানি শেলের কাছ থেকে মাত্র সাড়ে ৪ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে বৃহৎ ৫টি গ্যাসক্ষেত্র কিনে রাষ্ট্রীয় মালিকানা প্রতিষ্ঠা করেন বঙ্গবন্ধু। এখনো দেশের এক-তৃতীয়াংশ গ্যাসের যোগান দিচ্ছে বঙ্গবন্ধুর কেনা ওই গ্যাসক্ষেত্রগুলো। সে কারণেই দিনটিকে পালন করা হচ্ছে জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস হিসেবে।

যদিও বর্তমানের আমদানি নির্ভর নীতিকে জ্বালানি নিরাপত্তার পরিপন্থী হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

ক্যাব’র জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. এম শামসুল আলম বলেন, সে সময় মূল উদ্দেশ্য ছিল কম খরচে জ্বালানি সরবরাহ করা। এখন সেই অবস্থানে নেই সরকার।

বর্তমানে দেশে মজুদ থাকা প্রায় ১২ টিসিএফ গ্যাস ফুরিয়ে যেতে পারে এক দশকের মধ্যে। এমন অবস্থায়ও অভ্যন্তরীণ জ্বালানি অনুসন্ধানে নেই কাঙ্ক্ষিত গতি। সমুদ্রসীমা জয়ের অর্ধযুগ পরও তেল গ্যাস অনুসন্ধানের বিষয়টি আটকে আছে আমলাতন্ত্রের লাল ফিতায়। রাজনৈতিক সিদ্ধান্তহীনতায় কয়লা উত্তোলন পদ্ধতি নিয়েও রয়েছে ধোঁয়াশা।

এ অবস্থায় সংকটের সমাধান খোঁজা হচ্ছে উচ্চমূল্যের জ্বালানি আমদানিতে। সরকারের মহাপরিকল্পনা বলছে, ২০৩০ সালে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৯০ শতাংশ জ্বালানিই হবে আমদানি নির্ভর। ফলে অর্থনীতিতে চাপ বাড়ার আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. ম. তামিম বলেন, আমাদের নিজস্ব অনুসন্ধান চালাতে হবে। আমরা তিন বিলিয়ন ডলারের তেল আমদানি করি। এই তেলের দাম একটু ওঠা-নামা করলেই আমাদের মুদ্রার দর পরিবর্তন হয়।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, আমাদের অর্থনীতি ভালো হচ্ছে। আমরা যদি লাভ করতে পারি তবে আমদানি করতে হবে।

অন্যদিকে, অদক্ষতা আর অনিয়মও জ্বালানি খাতকে অনিরাপদ করে তুলছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। জাহাজ নোঙ্গর করার সাড়ে ৩ মাসেও জাতীয় গ্রিডে এলএনজি যুক্ত না হওয়া, কিংবা বড়পুকুরিয়ার কয়লা আর মধ্যপাড়ার পাথর কেলেঙ্কারি যার সাম্প্রতিক নজির।

এম শামসুল আলম বলেন, গ্যাস-কয়লা খাতে দুর্নীতি হচ্ছে। পাথরের ক্ষেত্রে হচ্ছে, বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে হচ্ছে, এগুলো জ্বালানি নিরাপত্তা সুরক্ষা নিশ্চিত করে না।

জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিতে পেট্রোবাংলা আর বাপেক্সের স্বচ্ছতা ও সক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শও বিশেষজ্ঞদের।


1