LatestsNews
# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের। # ফিল্মি স্টাইলে মেহেদিকে ছিনিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা, গ্রেফতার ৪# মুন্সীগঞ্জে প্রতিদিন শাপলা তুলে লাখ টাকা আয় করে কৃষক শ্রেণীর লোকেরা# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।
আজ বুধবার| ২১ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

আপনাদের যা ইচ্ছে সাজা দিয়ে দেন আদালতে হাজির হতে অনীহা প্রকাশ খালেদা জিয়া।



নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে আদালত স্থানান্তরে অসন্তোষ প্রকাশ করে আর কখনো আদালতে হাজির হতে অনীহা প্রকাশ করেছেন বেগম খালেদা জিয়া।

বুধবার (০৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ পুরনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে এ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়। হুইল চেয়ারে করে আদালতে হাজির হয়ে বেগম জিয়া বলেন, ‘এখানে ন্যায়বিচার হবে না। যত ইচ্ছে সাজা দিন।’

একপর্যায়ে বেগম জিয়া আদালতে বলেন, ‘এখানে ন্যায় বিচার নেই। যা ইচ্ছে তাই সাজা দিতে পারেন। যত ইচ্ছে সাজা দিতে পারেন। আমি অসুস্থ। আমি আদালতে বারবার আসতে পারবো না। আর এভাবে বসে আমার পা ফুলে যাবে। আমার সিনিয়র কোনো আইনজীবী আসেনি। এটা জানলে আমি আসতাম না।’ 

পরে আগামী ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মূলতবি করা হয় মামলার বিচারকাজ।

ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা খান বলেন, ‘ম্যাডাম নিজে আদালতে বলেছেন, আমি অসুস্থ। আমার চিকিৎসকের রিপোর্ট দেখলে বুঝতে পারতেন, আমার শারীরিক অবস্থা কি। আমার শরীর কাঁপছে। ভবিষ্যতে আমি আর এখানে আসবো না। আপনারা তো সাজা দেওয়ার জন্য আনতে চান? আপনাদের যা ইচ্ছে সাজা দিয়ে দেন। আমাকে আর এখানে আনতে পারবেন না, আমি আর এখানে আসবো না।’

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর তারিখ দেওয়া হয়েছে কিন্তু ম্যাডাম বলছেন যে, ‘আমি আর আসবো না।’

দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘আদালত স্থানান্তরে বিষয়টি জানানোর পরও বেগম জিয়ার আইনজীবীরা উপস্থিত হননি।’

তিনি বলেন, ‘যে দিন তার বিরুদ্ধে এজাহার হয়, সেখান থেকে চার্জশিট হয় এবং তার পরবর্তীতে বিচারের রায় কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিনই এধরণের আশঙ্কা করেন যে, আমরা ন্যায় বিচার পাবো না।’

দুদকের আইনজীবী বলেন, ‘ন্যায় বিচারের আজকের দিন দেখেন। তার আইনজীবী নেই। তাঁর পক্ষে কেউ কথা বলছেন না। তিনিই কথা বলছেন। আমরা তাকে সুযোগ দিয়েছি। সুতরাং ন্যায় বিচার তিনি যাতে পেতে পারেন সেই ব্যাপারে তাকে আমরা সাহায্য সহযোগিতা করবো।’

আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘তাদেরকে আমরা এই গেজেট নোটিফিকেশন পৌঁছে দিয়েছি। বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী না আসার কারণে কোনো আসামির বিচারিক কার্যক্রম যাতে ব্যাহত না হয় সেই কারণে আজ বিচারের কার্যক্রম পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।’ 

অন্যদিকে বেগম জিয়ার আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার বলেছেন, ‘এ বিষয়ে তাদের কোনো নোটিশ দেয়া হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘এই আদালত আলিয়া মাদ্রাসা থেকে জেলখানায় স্থানান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের কোনো নোটিশ দিয়ে অবহিত করা হয়নি। সেই কারণে আমাদেরকে আলিয়া মাদ্রাসায় যেতে হয়েছে।’ 

বেগম জিয়ার মামলাকে কেন্দ্র করে পুরনো কারাগার জুড়ে নেয়া হয় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তিন দফা তল্লাশি শেষে আদালতে প্রবেশ করতে দেয়া হয় সাংবাদিকদের। এমনকি আইনজীবী ও সাংবাদিকদের মোবাইল ফোনও জমা নেয়া হয়।


1