LatestsNews
# ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় আমবোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা নিহত ২# ভারতের গুজরাটে ১৮ বছরের নিচে মোবাইল নিষিদ্ধ# একই পাঞ্জাবির দামে হেরফেরের দায়ে আড়ংয়ে আবারও পাঞ্জাবি কাণ্ড, ফের জরিমানা# যুক্তরাষ্ট্র থেকে এক বাংলাদেশি অভিবাসন ইস্যুতে বহিষ্কার।# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশকে গঠনমূলক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে চীন।# রোহিঙ্গা সংকটের জন্য মিয়ানমার সরকারই দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার।# নরসিংদীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ১৩ দিন লড়াই করে হার মানলেন দগ্ধ ফুলন# নোয়াখালীতে ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড # ঝিনাইদহে প্রভাবশালীরা ঘের ও পুকুর কেটে চলেছেন, অবৈধ পুকুর খননে কৃষকরা হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্ত# লোহাগড়ায় ৫’শ পিস ইয়াবাসহ মাদক কারবারী আটক# বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মাহমুদুলকে যোগদানে দিনভর উত্তেজনা # শিরোমনি উত্তরপাড়ায় খেলতে গিয়ে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যুঃ এলাকায় শোকের ছায়া# নোয়াখালীর চৌমুহনীতে আধিপত্য বিস্তারের জেরে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবকের মৃত্যু# কুড়িগ্রামে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ৬জন গ্রেপ্তার# গাজীরহাট ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় # শিরোমণি স্পোর্টিং ক্লাব আয়োজিত ৮দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন# শৈলকুপায় অর্ধশত বছরেও আলোর মুখ দেখেনি স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসা!# কালীগঞ্জে পিতা হত্যার দায়ে পুত্রের যাবজ্জীবন কারাদন্ড# ‘আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের কাজে মন্থর গতি’# রাজধানীর সদরঘাটে লঞ্চের ধাক্কায় ডিঙি নৌকা ডুবে নিখোঁজ দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
আজ বুধবার| ২৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

গাংনীর আযান গ্রাম থেকে ছাত্রীকে নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে আরবি শিক্ষক



মেহেরপুর প্রতিনিধি

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার আযান গ্রাম থেকে এক ছাত্রী নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছে ঐ ছাত্রীর শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার (০৮-০৯-২০১৮ ইং) সকালে। মেয়ের মা জানান, আমার মেয়ে ৭ম শ্রেনীর পাশা পাশি আযান গ্রামের সব্জি বিক্রেতা জিল্লুর রহমানের ছেলে হাবিবুর রহমান হাবিবের কাছে প্রায় চার মাস ধরে আরবি শিক্ষা গ্রহন করে আসছে। প্রতিদিন সন্ধ্যার দিকে গ্রামের মক্তবে সে আরবি শিক্ষা গ্রহন করতে যেত।

মেয়ের মা আরো বলেন, আমরা বুঝতেও পারিনি যে মেয়ের সাথে তার শিক্ষক এমন করবে। ঘটনার দিন ঐ ছাত্রী খালার বাড়ি এ উপজেলার চেংগাড়া  গ্রামে যাবে বলে বায়না ধরলে তার মা তাকে একটি ভ্যান ঠিক করে দেয়। বেলা ১১টার দিকে সে ভ্যানে  করে সে খালার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এর আগেও সে এভাবে খালার বাড়ি গেছে বলে  তার মা জানান।

এদিকে মেয়ের মা বিকেলের দিকে  মেয়ের খালার কাছে মেয়ে ঠিক মতো পৌছেছে  কিনা খোঁজ নিতে চাইলে মেয়ের খালা সোহাগি জানান, এখনও তার মেয়ে আসেনি। এখবর শুনে মেয়ের মা-বাবা খোঁজ খবর শুরু করলে সকাল থেকে তার আরবি শিক্ষকও এলাকায় সকাল থেকে নেই জানতে পেরে তারা বুঝে নেই ঐ আরবি শিক্ষকই তার মেয়েকে ভাগিয়ে নিয়ে গেছে।

আরবি শিক্ষক হাবিবুর রহমান হাবিব প্রায় ৭ বছর আগে একই উপজেলার জোড়পুকুরিয়া গ্রামে বিয়ে করে। ছাত্রীকে নিয়ে চলে যাওয়ার ঘটনা শুনে হাবিবুর রহমান হাবিবের প্রথম স্ত্রী তার বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যায় বলে জানান হাবিবের বাবা  জিল্লুর রহমান।  এদিকে মেয়ে না পেয়ে মেয়ের বাবা-মা স্থানীয় মাতব্বরদের জানালে তারা সুরাহা করবে বলে আশ্বাস দিলেও এখন পর্যন্ত তার কোন সমাধান হয়নি।

  এদিকে মেয়ে নিখোঁজ বা মেয়েকে নিয়ে গেছে এ মর্মে গাংনী থানায় কোন অভিযোগ করেছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, থানায় অভিযোগ দিতে চেয়েছি কিন্তু স্থানীয় গ্রাম্য মাতব্বর আবুল বাশার বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংসা করে দেওয়া হবে এবং মেয়ে ও ছেলেকে ফেরত নিয়ে আসা হবে বলে কয়েকদিন ধর্য্য ধরতে বলে যে কারণে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়নি। তবে এবার থানায় অভিযোগ দেবে বলে জানান মেয়ের বাবা। এদিকে এ  ঘটনাকে পুজিঁ করে কয়েকজন সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেব বলে ছেলের বাবার কাছ থেকে টাকাও হাতিয়ে নিয়েছে বলে জানা যায়। বিষয়টি এখন এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

একদিকে মেয়ে কোথায় আছে মেয়ের বাবা-মা কেউ জানে না। অন্যদিকে ছেলে কোথায় আছে সেটাও ছেলের বাবা জানে না। এলাকাবাসির প্রশ্ন তারা কোথায় আছে কী অবস্থায় আছে  বেঁচে আছে নাকি মারা গেছে , নাকি মেয়েকে বিয়ের নামে অপহরণ করেছে তা যখন কেউ জানে না তখন ছেলে মেয়ের অভিভাবক এখন পর্যন্ত কেন আইনের আশ্রয় নেয়নি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে গ্রামের অনেকেই বলেন, ছেলের বাবা ঠিকই জানেন  ছেলে মেয়ে কোথায় আছে। কারন ছেলের বাবা-মা’র মুখে কোন চিন্তার ছাপ দেখা যায় না।

সব কিছুই স্বাভাবিক আছে বলে তিনি মনে করেন। ছেলের বাবার সাথে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বিষয়টি চেপে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করে ও ম্যানেজ করার চেষ্টা করে। অপর দিকে মেয়ের মা-বাবা মেয়েকে ফিরে পাওয়ার জন্য সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন। তারা এখন থানায় অভিযোগ করবেন বলেও সাংবাদিকদের জানান।

এ দিকে ঐ গ্রামের মাতব্বর ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা আবুল বাশার জানান, ছেলের বাবাকে আমরা চাপ দিলে সে ২ দিন সময় চাই তার ছেলেকে হাজির করার জন্য কিন্তু অদ্যবধি তাকে তার বাবা হাজির করতে পারেনি। আগামী কাল মেয়ের বাবা আইনের আশ্রয় নেবে এবং আমরা যেহেতু ন্যায়ের পেেক্ষ তাই ন্যায় সংগত যেটা হয় তাতে আমার সহযোগিতা থাকবে।


1