LatestsNews
# ভিসা ছাড়াই ব্রাজিল যেতে পারবেন চার দেশের পর্যটক# এমপি হারুনের স্ত্রীর প্লট বাতিল নিয়ে সংসদে হাসির রোল# বগুড়ায় জালিয়াতি করতে ইভিএমে ভোট নিতে চায় কমিশন: রিজভী# বাজেট যথাযথভাবে প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন হয়েছে বলেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে।# ওসি মোয়াজ্জেমকে হত্যা মামলার আসামি করার আবেদন করা হবে’# খাওয়ার মসলা দিয়ে তৈরি হচ্ছে হার্টের ব্যথানাশক ক্যাপসুল!# নোয়াখালী উপজেলা নির্বাচন, ১৩১ কেন্দ্রেই হবে ইভিএম-এ ভোট, # ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরল ৬ তরুনী# চুনারুঘাটে করাঙ্গী নদীর বাধঁ ভেঙ্গে সাত / আটটি গ্রাম প্লাবিত# যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৫ কোটি ৭২ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা# বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা উন্নয়ন ও শান্তির প্রতীক মোহাম্মদ নাসিম# সোনাগাজী পুলিশের কাছে হস্তান্তর ওসি মোয়াজ্জেমকে# নিউইয়র্ক বইমেলার ‘আজীবন সম্মাননা’ পেলেন ফরিদুর রেজা সাগর# পলিথিন ডাক্তার, এইচএসসি পাসে এমবিবিএস চিকিৎসক # এজলাস থেকে হঠাৎ মাটিতে পড়ে গেলেন বিচারক, অতঃপর...# সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের বোন শ্রমিক নির্যাতনের দায়ে কাঠগড়ায়# ভয়াবহ বৈদ্যুতিক বিপর্যয়ের কারণে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছেন আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের ৪ কোটি বাসিন্দা।# বাংলাদেশ পেল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের স্বাদ# তেল ট্যাঙ্কারে হামলা : ইরানকে জড়িয়ে মার্কিন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান# বরিশালে প্রশ্নফাঁস চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার
আজ মঙ্গলবার| ১৮ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

অস্তিত্বহীন সমিতির নামে পাঁচুড়িয়া খাল বন্দোবস্ত নেয়ার পায়তারা গোপালগঞ্জে জনস্বার্থে উম্মুক্ত ঘোষনার দাবী এলাকাবাসীর



নিজস্ব প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জে ভুয়া কাগজপত্র দাখিল করে অস্তিত্বহীন সমিতির নামে গোপালগঞ্জের পাঁচুড়িয়ার খাল বন্দোবস্ত নেয়ার জন্য পায়তারা করছে একটি চক্র। বৃহস্পতিবার এলাকার জনগনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। তাদের দাবী সর্বসাধারনের জন্য খালটিকে উম্মুক্ত করে দেয়া হোক।


অভিযোগে জানা যায়, গত ১৪২৪ বাংলা সালের ৩০ চৈত্র গোপালগঞ্জ শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত পাঁচুড়িয়া খালের পূর্বের ইজারা শেষ হয়। নতুন করে বন্দোবস্ত নেয়ার জন্য সরকারি জলমহাল নীতি ২০০৯ অনুযায়ি ওই বছরের বাংলা সালের ৩০ কার্তিকের মধ্যে পে-অর্ডারসহ আগ্রহী মৎসজীবি সমিতিকে ভুমি মন্ত্রনালয়ের সচিব বরাবরে আবেদন করার কথা। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে প্রকৃত কোন মৎসজীবি সমিতি পাঁচুড়িয়া খাল বন্দোবস্ত নেয়ার জন্য আবেদন করেনি। কিন্তু আবেদনের নির্দিষ্ট সময়সীমা শেষ হওয়ার পর অন্তত ছয় মাস সময় অতিবাহিত হওয়ার পর ব্যাংকপাড়া মৎস্যজীবি সমিতি লিঃ নামে একটি সমিতি পাঁচ–ড়িয়া খালটিকে বন্দোবস্ত নেয়ার জন্য আবেদন করে।


জলমহাল বন্দোবস্তর শর্তানুযায়ি, সমিতি রেজিষ্ট্রেশান কর্র্তৃপক্ষের প্রত্যায়ন পত্র, গঠনতন্ত্র, নির্বাচিত সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদকের নাম ও ঠিকানা, সভার কার্য বিবরণী, নিবন্ধিত সদস্যদের নামের তালিকা, নির্বাচিত নির্বাহী ও কার্যকরি কমিটির তালিকা, আবেদনকারি সমিতির প্রত্যেক সদস্য প্রকৃত মৎসজীবি কিনা এই মর্মে উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রত্যায়নপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট ও বিগত দুই বছরের অডিট রিপোর্ট থাকলেই কেবল মাত্র ওই সব সমিতি আবেদনের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।


সংশ্লিষ্ট অফিসে যোগাযোগ করে জানা যায়, নারায়ন চন্দ্র দাস, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক হিসেবে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট পর্যন্ত সর্বশেষ দায়িত্বে ছিলেন অথচ ব্যাংকপাড়া মৎসজীবি সমিতির পক্ষে ২০১৭ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ওই কর্মকর্তার স্বাক্ষরিত প্রত্যায়নপত্র দেয়া হয়। এছাড়া অগ্রনী ব্যাংক, গোপালগঞ্জ পৌর সুপার মার্কেট শাখা থেকে সঞ্চয়ী হিসাব নং-৫১৭০ এর অনুকুলে স্বাক্ষর ও তারিখ টেম্পারিং করে প্রত্যয়নপত্র দাখিল করা হয়। অপরদিকে, সমিতির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে নোটিশ করে তাদের সন্ধান না পেয়ে এবং সমিতির নীট লাভের উপর ধার্যকৃত নিরীক্ষা ফি, ভ্যাট, সমবায় উন্নয়ন উন্নয়ন তহবিল পরিশোধ না করা নিরীক্ষক উপজেলা সমবায় অফিসের সহকারী পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম ব্যাংকপাড়া মৎসজীবী সমবায় সমিতি লিঃ এর নিবন্ধন বাতিলের সুপারিশ করেন।


পাঁচুড়িয়া খাল এলাকার বাসিন্দা আজাদ মিয়া, করিমন বেগম, মালতী রানীর সাথে কথা বললে তারা জানান, দীর্ঘ দিন ধরে পাঁচুড়িয়া খালটি বন্দোবস্ত দেয়ার কারনে খালের দক্ষিণ দিকে মান্দারতলা এলাকায় বানা দিয়ে মাছ চাষ করা হয়। ফলে জোয়ার-ভাটার পানি প্রবেশ করতে না পারায় খালের পানি পঁচে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়ে ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে পড়ে। ইজারা না থাকায় প্রশাসন খাল থেকে বানা সরিয়ে দেয়। এতে পানির প্রবাহ স্বাভাবিক হয়। এলাকার মানুষ তাদের নিত্যদিনের কাজে এখন এ খালের পানি ব্যবহার করে সুফল পাচ্ছে। প্রশাসনের কাছে তাদের দাবী জনস্বার্থে খালটি উম্মুক্ত করে দেয়া হোক।


1