LatestsNews
# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের দুজন নাগরিক। # জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হলো# ডেঙ্গু প্রতিরোধ-সচেতনতায় 'স্টপ ডেঙ্গু' অ্যাপ চালু # অবশেষে টাইগারদের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ডোমিঙ্গাকে।
আজ সোমবার| ১৯ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

‘যায় বাঁধ করে দেবে, হামা তাক ভোট দিমো’



আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট 

“প্রতি বারে বন্যাত হামার বাড়ি নদীত ভাংগি যায়, যে বার ভাংগি যাইবে না সেই বার বাড়িত পানি উঠি থাকপে ১৫ দিন। এই হলো হামার দশা। যায় হামার তিস্তা নদীত বাঁধ করি দিবে, হামা তাকে ভোট দিমো” এ ভাবেই কথা গুলো বললেন লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ডাউয়াবাড়ী চর এলাকার বাসিন্দা ৬৮ বছর বয়সী শরীফ মোল্লা। 

একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে তিস্তা চরাঞ্চলের ভোটারদের বেশ কদর বেড়ে গেছে। প্রতিদিন প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে কর্মীরা যাচ্ছে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। দিচ্ছে নানা ধরনের প্রতিশ্রুতিও। তবে এখানকার ভোটারদের কথা একটাই, যে প্রার্থী তাদের তিস্তা নদীতে বাঁধ ও চলাচলের জন্য রাস্তা তৈরি করে দেবে তাকেই এমপি বানাবেন তারা। দীর্ঘ দিন ধরে ভোট আগে প্রার্থী তিস্তা নদীর বাম তীরে বাধঁ নিমার্ণের প্রতিশ্রুতি দিলেও নির্বাচনের পর তা ভুলে যায়। 

সুত্র মতে,  লালমনিরহাট জেলার উপর দিয়ে বয়ে গেছে তিস্তা, ধরলা ও সানিয়াজানসহ বেশ কয়টি নদী। প্রতি বছর তিস্তা ও ধরলা নদীর ভাঙ্গনে জেলার ৫ উপজেলার হাজার হাজার পরিবার গৃহহারা হয়ে পড়ে। তা ছাড়া বন্যার সময় তিস্তা ও ধরলা নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ায় জেলার অনেক বসত বাড়িসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও আবাদী জমির ফসল নষ্ট হয়। গত ৫০ বছরে জেলার প্রায় দেড় লক্ষাধিক মানুষ বসত-বাড়ি হারিয়ে গৃহহীন হয়ে পড়েছে। তাদের অনেকেই বিভিন্ন রাস্তার ধারে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। তবে ওই সব গৃহহীন পরিবারের বেশি ভাগ জীবন যাপনের প্রয়োজনে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চলে গেছেন। নদী ভাঙ্গন ও বন্যায় সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয় জেলার হাতীবান্ধা উপজেলা। ওই উপজেলার ৬ টি ইউনিয়ন ইতোমধ্যে নদী গর্ভে চলে গেছে। ফলে লালমনিরহাট জেলার নদী ভাঙ্গা মানুষ গুলো দীর্ঘ দিন ধরে হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারাজ থেকে সদর উপজেলার তিস্তা সড়ক সেতু পর্যন্ত তিস্তা নদীর বাম তীরে বাধঁ নিমার্ণের দাবী করে আসছে। 

সরে জমিনে কথা হয় তিস্তা চরাঞ্চলের ৭৫ বয়সী আলিমুদ্দিনের। তিনি বলেন, ‘হামার আরকি বাহে! দিনতো হামার শেষ, কবে মরি যাইমু জানেং না। ভোট আসিল কয়জন বাড়িত আইসে। এ্যালা হামার একটা কথা, যে তিস্তায় বাঁধ ও রাস্তা বানায়ে দেবে তাকেই এবার ভোট দিমো।’ আলিমুদ্দিন লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের শৈলমারী তিস্তা চরাঞ্চলের বাসিন্দা।

ওই এলাকার নানু মিয়া, জব্বার আলি ও ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘আমাদের জীবন যেন ভাঙা গড়ার খেলার মধ্য দিয়ে চলতে থাকে। বর্ষাকালে নদী ভাঙনের সময় আমাদের মাথা গোজার কোনো জায়গা থাকে না। ভোট আসে, ভোট যায়। কিন্তু প্রতিশ্রুতি শেষ হয় না। তাই এবার যে প্রার্থী তিস্তায় বাঁধ ও রাস্তা করে দেবে তাকেই ভোট দেব।

তিস্তা নদীর বাম তীরে বাঁধ নির্মাণ আন্দোলন গণ-কমিটি’র আহবায়ক রোকুনুজ্জামান সোহেল বলেন, লালমনিরহাট বাসীর প্রাণের দাবী তিস্তা নদীর বাম তীরে বাঁধ নির্মাণ। এ দাবী নিয়ে আমরা দীর্ঘ দিন ধরে আন্দোলন করছি। লক্ষ্য করছি, প্রার্থীরা তাদের ইশতেহারে এবার তিস্তা নদীর বাম তীরে বাঁধ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। 

 


1