LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ বৃহস্পতিবার| ২২ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

বিলুপ্ত প্রায় মহামুল্যবান ঔষধী গাছ “অশ্বগন্ধা”



শহিদুল ইসলাম,বেনাপোল প্রতিনিধি

অশ্বগন্ধা আমাদের স্বাস্থের জন্য খুবই উপকারী একটা মহা ঔষধী গাছ। অশ্বগন্ধাকে এডাপ্টোজেন বলা হয়, এর অর্থ হল অশ্বগন্ধা আমাদের মানষিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও অশ্বগন্ধা আমাদের মস্তিষ্ক এবং শরীরের জন্য খুবই উপকারী। অশ্বগন্ধা সংস্কৃত শব্দ, যার অর্থ “ঘোড়ার গন্ধ” অশ্বগন্ধার গন্ধ অনেকটা ঘোড়ার মত আর ঘোড়ার মত শক্তিবর্ধক। এটার বৈজ্ঞানিক নাম হল, “ডরঃযধহরধ ঝড়সহরভবৎধ ” এটা ইন্ডিয়ান জিনসেং বা উইন্টার চেরি নামেও পরিচিত। মানবদেহের অনেক উপকারী বন্ধু এই অশ্বগন্ধা আজ প্রকৃতি থেকে বিলুপ্ত প্রায়।

গ্রামাঞ্চলের আনাচে কানাচে এক সময় আপনা আপনি থেকে বেড়ে উঠতো এই অশ্বগন্ধা সহ মানব দেহের উপকারী নানান রকম ঔষধী গাছ। জীব বৈচিত্রের পরিবর্তন সহ সাধারণ মানুষের গাছ সম্পর্কে কোন জ্ঞান না থাকায় প্রকৃতির আপন খেয়াল থেকে হারিয়ে যাচ্ছে চিরচেনা চিরপরিচিত মহা মুল্যবান বিভিন্ন ঔষধী গাছ।

তথ্য অনুসন্ধানে দেকা যায়, শহর বা গ্রামাঞ্চলে কিছু কিছু হেকিম কবিরাজরাই তাদের নিজস্ব নার্সারী বা বাড়ির আনাচে কানাচে তাদের ক্রয় বিক্রয় সহজ লভ্যের জন্য নানান রকম ঔষধী গাছ রোপন ও পরিচর্যা করে থাকেন। তাছাড়া অন্য কোথাও সহজে এসমস্ত ঔষধী গাছ খুজে পাওয়া একরকম দূরহ ব্যাপার।

শার্শা উপজেলার নাভারণ বাজারের হেকীম কবিরাজ আবু হানিফ বৈদ্দী "বিডিমর্নিং কে জানান" বেশকিছু গবেষণাতে দেখা গেছে অশ্বগন্ধা রক্তে সুগার কমাতে সাহায্য করে। অশ্বগন্ধা-ইনসুলিন লেভেল এবং পেশীর কোষে ইনসুলিন এর কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে। কর্টিসোল স্ট্রেস হরমোর নামে পরিচিত,কারণ যখন আমাদের শরির কোন মানষিক চাপে থাকে বা রক্তে সুগারের লেভেল কমে যায় তখন এডরেনাল গ্ল্যান্ড কর্টিসোল রিলিজ করে।

দুঃচিন্তা আর মানষিক চাপ কমাতে সাহায্য করে এই অশ্বগন্ধা। এসব কম থাকলে মনযোগ বৃদ্ধি পাবে স্বাভাবিক। ঠিক এ কারণেই মনোযোগ বাড়ানোর জন্য অশ্বগন্ধা ব্যবহার হয়ে থাকে। অশ্বগন্ধা কোলেস্টেরল আর ট্রাইগ্লিসারাইড লেভেল কমিয়ে হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। টেস্টোস্টেরন বাড়াতে এবং ছেলেদের ফার্টিলিটি বাড়াতে সাহায্য করে। মাসল বিল্ড করতে টেস্টোস্টেরন খুবই জরুরী একটা হরমোন। তাই যারা মাসল বিল্ড করতে চায় তাদের জন্য অশ্বগন্ধা যথেষ্ট উপকারী বলা চলে।অশ্বগন্ধা মনোবল, সহনশীলতা, শক্তি এবং পেশী বাড়াতে সাহায্য করে।  ইমিউন সিস্টেম বুষ্ট করতে সাহায্য করে। ঘুমের সমস্যা সমাধানে অশ্বগন্ধার কোন জুড়ি নেই। এই রকম ভাবে অশ্বগন্ধা মানব দেহের জন্য এক প্রকার মহা ঔষধই বলা চলে।

তিনি আরো জানান, প্রকৃতিতে জন্মানো প্রত্যেক উদ্ভিদের রয়েছে হরেক রকমের গুনাগুন। তাই এইসব উদ্ভিদ গাছকে চিনতে হবে, জানতে হবে এর গুনাগুন এবং নিজে সচেতন হতে হবে পাশাপাশি অন্যকে সচেতন করে এই মহামুল্যবান সব ঔষধী গাছ বাঁচিয়ে রাখতে হবে।


1