LatestsNews
# আবরার ফাহাদ হত্যা মামলা বিচারের জন্য প্রস্তুত# আবুধাবির ‘সাসটেইনেবিলিটি অ্যাওয়ার্ড’ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী# আশুলিয়ার গোকুলনগরে জঙ্গি আস্তানা ঘিরে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী# আমেরিকা যাচ্ছেন শাকিব খান # হাতে ১৪টি সেলাই নিয়েই খেলতেমাঠে নেমেছেন মাশরাফি# ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের তীব্র উত্তেজনা# পোশাক খাতের বাইরে সম্ভাবনাময় অন্যখাতে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ঘাটতি আছে।# ঢাকার বিদায় বিপিএল থেকে# ঢাকা সিটি নির্বাচনে সরকার হস্তক্ষেপ করবে না : সেতুমন্ত্রী# মধ্যপ্রাচ্য বা পশ্চিম এশিয়ায় কোনও ধরনের সংঘাত হলে বিশ্বের জন্য একটা বিপর্যয়কর অবস্থা অপেক্ষাকরছে : পুতিন# চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে# ড. ইউনূসকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ# সিটি করপোরোশন নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিদের প্রচার নিষিদ্ধ করতে পরিপত্র জারির দাবি জানিয়ে ইউও নোট লিখেছেন নির্বাচন কমিশনার# সিঁড়ি দিয়ে হেঁটে ওঠা-নামার উপকারিতা# ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ ভিকারুননিসায়# জীবন বাঁচাতে সাগরে ঝাঁপিয়ে পড়লেন অস্কারজয়ী অভিনেতা লিওনার্দো ডি–ক্যাপ্রিও# এখনই আর্নেস্তো ভালভার্দেকে বিদায় করছে না বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ# উত্তেজনার বিষবাষ্প ছড়িয়ে পড়ে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে# ২০২০ সালে প্রবৃদ্ধি হবে আড়াই শতাংশ : বিশ্বব্যাংক# ইশরাক হোসেনের বাসায় গিয়ে নৌকায় ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগের সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস
আজ শনিবার| ২৫ জানুয়ারী ২০২০
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ড্রাগন চাষ আর থাই পেয়ারা বাগান করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন জহিরুল



 এ সাজেদুল ইসলাম

নিজ উদ্যেগে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে কোটি টাকার অর্থায়নে ড্রাগন চাষের উদ্যেগ আর থাই পেয়ারার বাগান করে অবসর জীবনের ভাগ্যের চাকা ফিরিয়েছেন জহিরুল ইসলাম। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম, কৃষি খবর ও বিদেশ থেকে সরেজমিনে দেখে এসে এই অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক উত্তর জণপদের ড্রাগন ফলের বাগানের কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন। জয়পুর ইউনিয়নের বিশাল এলাকা জুড়ে ড্রাগন ফলের বাগানের কার্যক্রম শুরু করেছেন তিনি। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মোঃ আসাদুজ্জামান জানান- জহিরুল থাই পেয়ারা চাষ করে ইতিমধ্যেই আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছে। এরপরেও ড্রাগন ফল চাষের যে উদ্যেগ নিয়েছে তা বড় প্রায়াস। তাকে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে পরামর্শ দেয়া হবে।

জহিরুল জানায়- উত্তরজনপদে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ড্রাগন চাষ নাই বললেই চলে। এ বাগান সফল করতে কৃষি বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সার্বিক সহায়তা চেয়েছেন তিনি। উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের পুলবান্ধা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা মোঃ জহিরুল ইসলাম ২০০৭ সালে সেনাবাহিনীর কর্পোরাল পদ থেকে অবসর নেয়ার পর ধান-চাউলের ব্যবসা শুরু করেন। ব্যবসায় লোকসানে দিশেহারা হয়ে ঝুঁকে পড়েন কৃষিতে। ২০০৯ সালে নিজের ১১বিঘা ও অন্যের ১৭ বিঘাসহ মোট ২৮ বিঘা জমিতে গড়ে তুলেছেন থাই পেয়ারার বাগান। চারা লাগানোর ৬ মাস পর থেকেই বাগানে পেয়ারা ধরতে শুরু করে। সাড়ে চার হাজার পেয়ারা গাছের সবগুলোতেই ব্যাপকহারে পেয়ারা ধরেছে। ইত্যোমধ্যে বাগসন থেকে ৬৩ লক্ষ টাকার বিভিন্ন প্রকার ফল বিক্রি করে এলাকায় সফল বাগান মালিক হিসেবে সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। পেয়ারা বাগানের নাম দিয়েছেন ওয়াসী গ্রীন এগ্রিকালচারাল জোন। পেয়ারা গাছের ফাঁকে ফাকে পরীক্ষামূলকভাবে কয়েকটি সফেদা ও মাল্টা গাছের চারা রোপণ করেছেন। বর্তমান সেগুলোতে ফল এসেছে। এদিকে মো. জহিরুল ইসলামের সাফল্য দেখে এলাকার অনেকেই পেয়ারা বাগানের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন। জহিরুল ইসলাম বলেন, তার বাগানের পেয়ারা ওজন ৮০০ গ্রাম থেকে এক কেজি পর্যন্ত। ফুল থেকে গুটি হলেই প্রতিটি পেয়ারা স্বচ্ছ পলিথিন দিয়ে মুড়িয়ে দেওয়া হয়। এই ব্যাগিং পদ্ধতির কারণে গাছে কীটনাশক প্রয়োগ করলেও পেয়ারা থাকে বিষমুক্ত। দেখতে সুন্দর পেয়ারার স্বাদও মিষ্ট। বাগান থেকেই ৫০ টাকা কেজি দরে পেয়ারা কিনে নেন রাজধানী ঢাকার কাওরান বাজার, খিলগাঁও, সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের পাইকারি ব্যবসায়ীরা। এ বছর বাগানের পেয়ারা অন্তত কোটি টাকায় বিক্রি হবে বলে আশা করেছন। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মোঃ আাসাদুজ্জামান বলেন, জহিরুল ইসলামের পেয়ারা বাগানের সাফল্য দেখে এলাকার অন্যান্য এলাকাতেও গড়ে উঠতে শুরু করেছে পেয়ারা বাগান। এলাকার মাটি ফল বাগানের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। এখানকার উৎপাদিত ফল সুস্বাদু এবং দেশের সব স্থানেই চাহিদা থাকায় লোকসানের ঝুঁকি কম। ফল চাষের বিষয়ে কৃষি বিভাগ থেকে সার্বিক সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে।


1