LatestsNews
# টঙ্গীতে পানি বন্দী হাজারো পরিবার# শৈলকুপায় ব্রীজ আছে রাস্তা নেই!# তৃতীয় লিঙ্গ সম্প্রদায়ের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন।# অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে ২০২০-২১ অর্থবছরের নতুন মুদ্রানীতি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।# করোনার মধ্যেই বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন মেহেদী হাসান# বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ ও আশপাশের এলাকা সংস্কার করা হবে লুই কানের নকশাতেই স্পিকার ড. শিরীন শারমিন # সিটি কর্পোরেশনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীর ঈদ ছুটি বাতিল- মেয়র গাজপুর# সিটি কর্পোরেশনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীর ঈদ ছুটি বাতিল- মেয়র গাজপুর# সিটি কর্পোরেশনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীর ঈদ ছুটি বাতিল- মেয়র গাজপুর# সিটি কর্পোরেশনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারীর ঈদ ছুটি বাতিল- মেয়র গাজপুর# গাজীপুরে পোশাক শ্রমিক বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ# নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির সব ক’টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ১২ বছর কারাদণ্ড ও ২১০ মিলিয়ন রিংগিত জরিমানা# প্রথম মুসলিম রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিল ইসরাইল# অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে অর্থবছরের শুরুতে রেমিট্যান্সের অবিশ্বাস্য চমক# লাইসেন্স না থাকা, নিম্নমানের আইসিইউসহ নানান অনিয়মের অভিযোগে উত্তরার আরেক হাসপাতাল বন্ধ# শৈলকুপায় সংস্কারের নামে রাস্তা কেটে দফারফা ৪০ গ্রামের মানুষের যাতায়াত বন্ধ# ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর শোক# সড়ক মহাসড়কে পশুর হাট বসানো ও তিন চাকার যান চলাচল বন্ধের নির্দেশনা সেতু মন্ত্রীর# গাজীপুরে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত# গাজীপুরের কালিয়াকৈরে চলতি মাসের বেতন ও ঈদের ছুটি বৃদ্ধির দাবীতে শ্রমিক অসন্তোষ মহাসড়ক অবরোধ
আজ বুধবার| ০৫ আগস্ট ২০২০
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

উল্লাপাড়ায় কৃষি জমিতে হচ্ছে বসতবাড়ি গ্রামে বাড়ছে পরিবার সংখ্যা, কমছে আবাদী জমি



সাহারুল হক সাচ্চু, উল্লাপাড়া প্রতিনিধি


সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় কৃষি জমিতে নতুন বসতবাড়ি করা হচ্ছে। যৌথ পরিবার ভেঙ্গে নতুন পরিবার হচ্ছে। বাড়ছে পরিবার সংখ্যা। পুরানো বসত ভিটায় জায়গা সংকটে কৃষি জমিতে গড়া হচ্ছে বসতবাড়ি। বাড়ছে গ্রামের আয়তন। আবাদী জমি কমছে।

শহর ঘেষা গ্রাম এলাকায় বেশি নতুন  বসতবাড়ি হচ্ছে। উল্লাপাড়ায় মোট পরিবার সংখ্যা ১ লাখ ৩৬ হাজার ৭শ ৪৪টি। বেশি সংখ্যক পরিবারের বসবাস গ্রামে। মোট আয়তন ৪১ হাজার ৪শ ৬১ হেক্টর। মোট আয়তনের মধ্যে বসতবাড়ি রাস্তা ঘাট, হাট-বাজার ও অন্যান্য অবকাঠামো মিলে রয়েছে ৮ হাজার ১১ হেক্টর।

এ হিসেবে মোট আয়তনের পাচ ভাগের একভাগ জুড়ে বসতবাড়ি সহ অন্যান্য অবকাঠামো রয়েছে। এদিকে যৌথ পরিবার ভেঙ্গে নতুন পরিবার সংখ্যা প্রতি বছরই বাড়ছে। এসব পরিবার গ্রাম থেকে বেড়িয়ে কৃষি জমিতেই বাড়ি ঘর নির্মান করে বসবাস করছে। গ্রাম্য সড়ক পথের ধারেই কৃষি জমিতেই অনেকেই নতুন বসতবাড়ি নির্মান করছে।

গত দু’দশকে সদর উল্লাপাড়া ইউনিয়নে কম করে হলেও শ’পাচেক নতুন বসতবাড়ি হয়েছে। এমনযে, এক দুটি করে নতুন বাড়ী নিয়ে নতুন পাড়া গঠন হয়েছে। নাগরৌহা গ্রামে নতুন বসতীদের নিয়ে একটি পাড়া গঠন হয়েছে। মুল গ্রাম থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে শৈলাগাড়ীতে কৃষি জমিতে এসব বসতবাড়ি নির্মান করে বসবাস করা হচ্ছে।
   

উল্লাপাড়া পৌর সিমানার মধ্যে অবস্থিত গ্রাম এলাকায় নতুন বসতিও হচ্ছে। গত দেড় দশকে পাচশো’র ভাষা নতুন বসতি পরিবার হয়েছে। খোজ নিয়ে জানা যায়, নতুন বসতি বেশি সংখ্যক পরিবার গ্রাম এলাকা থেকে এসে বসতি হয়েছে। এরা ব্যবসায়ী কিংবা চাকুরীজনিত কারণ ছাড়াও শহর এলাকায় বসবাসের ইচ্ছায় গ্রাম ছেড়ে বসতি গড়ছে। নতুন বতসবাড়ি নির্মানকারী একাধিকজনের বক্তব্যে আগে গ্রামের পুরানো ভিটাতেই বসবাস ছিল।

পুরানো ভিটায় জায়গা সংকটে ও বিভিন্ন সমস্যায় কৃষি জমিতেই বাধ্য হয়ে বসতবাড়ি নির্মান করছেন।


উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. খিজির হোসেন প্রামানিক জানান, একেবারে কৃষি জমি ছাড়াও বিভিন্ন গ্রাম্য সড়কের পাশে কৃষি জমিতে বসতবাড়ি ও বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান হচ্ছে। এতে কৃষি জমি কমছে। উল্লাপাড়া অঞ্চল পুরোপুরি কৃষি নির্ভর এলাকা। কৃষি জমিতে বসতবাড়ী নির্মান না করতে তার বিভাগ থেকে নিরুৎসাহিত করা হয়ে থাকে।


উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আরিফুজ্জামান জানান, গ্রাম গুলোয় পুরানো ভিটা বসবাসে প্রয়োজনীয় জায়গা সংকটে নতুন পরিবার হয়তো কৃষি জমিতেই বসতবাড়ি নির্মান করছে। এতে কৃষি জমি যে কমছে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট পরিবারকেই গুরত্ব দিয়ে ভেবে দেখার দরকার রয়েছে।


1