LatestsNews
# পশ্চিমবঙ্গে বজ্রপাতে ৬ বাংলাদেশিসহ আহত ২৪, নিহত ৭# রাজধানীর মিরপুরে চলন্তিকা মোড়ের বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে# বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ আট শহরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বর্ষ উদযাপন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।# ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বাসের চাপায় প্রাণ গেল একই পরিবারের ৫ জনের# মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা কারি নিউজিল্যান্ডের সেই খুনি জেলে বসেই অস্ত্র চাইলেন# বেনাপোল -বর্ডার ভোগান্তি টাকা টাকা খেলা নিরাপত্তা দেবে যারা, তারাই তো লুটেরা ?# জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নোয়াখালীতে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে স্বোচ্ছায় রক্তদান# নড়াইলে দুদক কমিশনার প্রাইমারি স্কুলের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করলেন# আগামী ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু প্রথম দফায় ৩৫৪০ রোহিঙ্গাকে ফেরত নেবে মিয়ানমার# কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।# জনগণের সম্পৃক্ততা না থাকলে এককভাবে হরতাল বা অবরোধ করে সরকারবিরোধী আন্দোলনে কোন সুফল আসবে না : মির্জা ফখরুল# ঈদের আমেজ কাটিয়ে কর্মচঞ্চল হয়ে উঠতে শুরু করেছে রাজধানী# মাশরাফি বিন মুর্তজার বিদায়ী ম্যাচ আয়োজন নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।# বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) একদিনে সড়কে নিহত ৩০, আহত অর্ধশতাধিক# আজ শুক্রবার (১৬ আগস্ট) পহেলা ভাদ্র শরতের প্রথম দিন।# সৌদি আরবে সড়ক দুর্টনায় দুই বাংলাদেশি নিহত# নরেন্দ্র মোদিকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।# জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে - প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা# ভারতজুড়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত# রাজধানীর লালবাগের চাঁদনিঘাটে প্লাস্টিক কারখানায় আগুনের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস।
আজ শনিবার| ১৭ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

খেজুর হতে সাবধান - খেজুরে চেতনানাশক মিশিয়ে নতুন ধর্মীয় কৌশলে অজ্ঞানপাটি ।



রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে অজ্ঞানপার্টির ৬২ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার জানান, ঈদের আগে এসব চক্রের তৎপরতা বাড়বে এমন তথ্য পেয়েছেন তারা। যথেষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণের অভাবে এবং ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিরা মামলা করতে আগ্রহী না হওয়ায় এরা বার বার জামিনে বের হয়ে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।

স্নায়ুর চাপ কমানো, অনিদ্রাসহ নানা সমস্যায় ব্যবহৃত চেতনাশক ট্যাবলেট সংগ্রহ করা হয় অবৈধ উপায়ে। তারপর সেগুলোকে গুড়ো করে মিশিয়ে দেয়া হয় খেজুরের সঙ্গে। কখনো চেতনানাশক ওষুধের সঙ্গে কাগজ পোড়ানো ছাই মিশিয়ে তৈরি করা বিশেষ এক ধরনের হালুয়া। খুব সাধারণ এই কৌশলই অনেক সময় হয়ে দাঁড়ায় মানুষের মৃত্যুর কারণ।

অজ্ঞানপার্টির একটি দলের সঙ্গে গোপনে কথা হয় সময় সংবাদের। তারা জানায়, সন্দেহ এড়াতে ওষুধের দোকান থেকে একটি দুটি করে ট্যাবলেট সংগ্রহ করেন তারা। তারপর নেমে পড়েন কাজে। এ ক্ষেত্রে একজন থাকে মহাজন, যে সব খরচ ও দায় দায়িত্ব বহন করে। যিনি টার্গেট ঠিক করেন তাকে বলা হয় মাস্টার। আর মানুষকে প্ররোচিত করে খেজুর কিংবা হালুয়া খাওয়ায় যে তাকে বলা হয় কারিগর। ভিড়ের মাঝে আড়াল তৈরির দায়িত্ব পালনকারীকে বলা হয় নলা।

অজ্ঞানপার্টির একজন বলেন, খেজুরের ভেতরে ওষুধের গুড়ো ভরে একজনের কাছে রাখা হয়। তারপর মহাজন বলে দেয় একজনকে টার্গেট করে আমাদের বলে তার পিছু নিতে, সে যে গাড়িতে উঠবে সেই গাড়িতে উঠি আমরা। 

রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে দু’দিন অভিযান চালিয়ে এমন কয়েকটি চক্রের ৬২ জনকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় গ্রেফতারকৃতরা আগেও একই অপরাধে আটক হয়েছিল। বিষয়টি স্বীকার করে পুলিশ বলছে, পর্যাপ্ত সাক্ষী না পাওয়া, ক্ষতিগ্রস্তদের মামলা করতে অনীহাসহ নানা কারণেই জামিন পেয়ে যায় এই অপরাধীরা।

গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগের উপ-কমিশনার মশিউর রহমান বলেন, এ মামলার আইন ৩২৮ ধারা জামিন যোগ্য ধারা। তবে কোন কোন নিরপরাধ মানুষকে ঠকিয়েছে তাদের নিয়ে একাধিক মামলার মাধ্যমে তাদের ধরতে চেষ্টা করি।

গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগের যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুর রহমান বলেন, এ মামলাগুলো প্রমাণ করা অনেক কঠিন হয়ে যায়। যারা আক্রমণের শিকার হয়, যারা যাত্রী তারাই এ মামলার মূল সাক্ষী। তারা সাক্ষ্য দিলেই সেই মামলায় তাদের শাস্তি হয়। 

পুলিশ আরো জানায়, এরা অনেক সময় অজ্ঞান করে সব কেড়ে নিয়েই ক্ষান্ত হয় না, ভিকটিমের পরিবারের কাছ থেকে মোবাইল ফোনে মুক্তিপণও আদায় করে থাকে।


1