LatestsNews
# মৗলভীবাজারে মনু ও ধলাই নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে আতংকে জেলাবাসী# ভারতে পাচার ৫ বাংলাদেশীকে বেনাপোলে ফেরত # রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু সমাধানে সারা বিশ্বের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ।# উল্লাপাড়ায় পরিশ্রম আর পরিচর্যায় সফল পটলচাষী ফকির জয়নাল# মাগুরা শ্রীপুরে সাংবাদিকে বৃদ্ধ বাবা সহ ৫ আওয়ামীলীগ নেতা কর্মির নামে মিথ্যা মামলা# বিএনপি-জামায়ত জোটের শাসন আর কোন দিন ফিরে আসবে না# মৌলভীবাজারে দীঘলগিজি স্কুলে একটি রাস্তার কারনে ঝড়ে পড়ছে শতাধিক কোমলমতি শিশু# ২০১৯-২০ সালের অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পরদিনই বেড়ে গেছে সোনার দাম।# ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি বাংলাদেশের# বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে উইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারালো ইংল্যান্ড।# অনির্বাচিত সরকারের বাজেট প্রণয়নের নৈতিক অধিকার নেই :মির্জা ফখরুল# চট্টগ্রামে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব# সাভারে ভয়ংকর লুঙ্গিবাহিনীর ১৭ ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধর# ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে নিম্নবিত্ত ও বিকাশমান মধ্যবিত্তের জন্য তেমন কোনো সুখবর নেই# রেমিটেন্সে প্রণোদনা প্রবাসীদের উৎসাহিত করবে# রাজধানীতে আজকালের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।# ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।# উপজেলা নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় বললেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম# গোবিন্দগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১০# উল্লাপাড়ায় ৮২ কোটি টাকার প্রকল্প রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ কাজে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও আলোচনা সভা
আজ রবিবার| ১৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

তাহিরপুরে শেষ ভরসা শনির হাওর,শেষ রক্ষায় স্বেচ্ছাশ্রমে চলছে বাঁধ রক্ষার কাজ



জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া,শনির হাওর থেকে
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় বসন্তের মধ্যে হাওর গুলোতে বর্ষায় রুপ নিয়েছে। টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলের পানিতে একের পর এক ছোট-বড় বোরো ধান উৎপাদনে সমৃদ্ধ উপজেলার ২৩টি হাওরের মধ্যে ১৯টি হাওর এতিমধ্যে ডুবে গেছে। হাওর গুলো ডুবে ফসল হারিয়ে এখন নিঃশ্ব হাওর পাড়ের কৃষক পরিবার গুলো। ক-দিন বৃাষ্ট না হলেও পাহাড়ে টানা বর্ষনের ফলে ভারছে হাওরের পানি। তার পরেও সব হাওর হারিয়ে শেষে রয়েছে শেষ ভরসা শনির হাওর। এ হাওরের কয়েকটি বাঁধের উপর দিয়ে পানি হাওররে প্রবেশ করার উপক্রম হয়েছে। তাই সবাই সব হারিয়ে শেষ সম্পদ শনির হাওর রক্ষায় বাঁধে কাজ করে যাচ্ছেন হাজারো কৃষক-শ্রমিক জনতা। তাহিরপুর,বিশ্বম্ভরপুর ও জামালগঞ্জ সহ তিন উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৩সহশ্রাধিক শ্রমিক স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করেছে শনির হাওরের বগিয়ানী,লালুরগোয়ালা,ঝালখালি,নান্টুখালি বাঁধে। তার পরেও উৎবেগ আর উৎকণ্ঠায় রাত দিন পাহায় রয়েছে স্থানীয় জনসাধারন। এই হাওরটি রক্ষায় টানা ৭দিন ধরেই স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁেধ কাজ করে যাচ্ছেন তাহিরপুর সদর ইউনিয়নের চিকসা,বীরনগর,জয়নগর,উজান তাহিরপুর,মধ্য-তাহিরপুর,ভাটি-তাহিরপুর,গোবিন্দ্রশ্রী,দক্ষিন শ্রীপুর ইউনিয়নের শ্রীপুর,মাড়ালা,বালিজুরী ইউনিয়নের আনোয়ারপুর,দক্ষিনকুল,লোহাচুরা,বারুঙ্কা,পাতারি,বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ই্উনিয়নের দাওয়া,বাগুয়া,বসন্তপুর,রাজিন্দ্রপুর,খিরদরপুর,জামালগঞ্জ উপজেলার বেহলী ইউনিয়নের মষলঘাট,রাধানগর,ইসলামপুর সহ অর্ধশতাধিক গ্রামের ৩সহশ্রাধিক কৃষক ও শ্রমিক। সব হাওর হারিয়ে সবাই আশা অন্তত এই শেষ সম্বল শনির হাওর টুকু রক্ষা করা। ইতি মধ্যে পাহাড়ি ঢলের পানি তলিয়ে গেছে সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলার অর্ধশতাধিক হাওর। বালিজুরী ইউনিয়নের পাতারীগ্রামের কৃষক আফজাল হোসেন বলেন,শনির হাওরটি রক্ষা হলে ধানের পাশাপাশি গরুর খাবারও সংগ্রহ করা যাবে। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামের কৃষক আরিফ মিয়া বলেন,শনির হাওরটি রক্ষা করার জন্য হাজার হাজার কৃষক সাপ্তাহ খানেক ধরে রাত-দিন পরিশ্রম করে বাঁেধ কাজ করছে।
ভাটি তাহিরপুর গ্রামের কৃষক শফিকুল ইসলাম,মহিবুর রহমান,উজান তাহিরপুর গ্রামের সাইদৃুল কিবরিয়া সহ একাধিক কৃষক জানান,হাওরের বাঁধ গুলো যখন থেকে হুমখির মূখে পরে তখন থেকেই পিআইসিরা গাঁ ঢাকা দিয়েছে,বর্তমানে হাওরপারের কৃষকরা সেচ্ছাশ্রমে বাধেঁ কাজ করছে। তাহিরপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও শনি হাওর উন্নয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন বলেন,সুনামগঞ্জ জেলার মধ্যে  বৃহৎ  বোরো ফসলি হাওর শনি এখনো ঠিকে আছে হাজারো মানুষের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারনে।
তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল বলেন,এক সপ্তাহ ধরে শনির হাওরে তিন উপজেলার হাজার হাজার মানুষ বাঁেধ কাজ করছে। সবার সহযোগীতায় এখনো ঠিকে আছে এই হাওরটি। সব হারিয়ে এই হাওরটিই তাহিরপুর বাসীর আশা। হাওরের বাঁধ যাদের দিয়ে হয় না তাদের হাতে ভবিষত্বে আর দায়িত্ব না দেওয়ার দাবী জানাই এবং যাদের পুকুর চুরির কারনে হাওরের বাঁধ ভেঙ্গে কষ্টের ফলানো বোরো ধান পানিতে তলিয়ে গেছে তাদের বিল বাতিল করা সহ কঠিন শাস্তির দাবী জানাই। তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা সাইফুল ইসলাম জানান,হাওর রক্ষায় সব সময় খোঁজ রাখছি এবং হাওরের বাঁধ রক্ষায় আমাদের পক্ষ থেকে সব রকম সহযোগী করা হচ্ছে। বাঁধ নির্মান কারীদের অনিয়মের বিষয়ে আমাদের কিছু করার নেই। অনিয়মের কারনেই উপজেলার প্রতিটি বাঁধ ভেঙ্গেছে। তাই আমাদের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে দাবী জানানো হয়েছে বাঁধ নির্মানে অনিয়ম কারীদের বিল না দেওয়ার জন্য।   


1