LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ শনিবার| ২৪ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ঝিনাইদহে নির্বাহী কর্মকর্তা কতৃক হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে টাকা আদায় ॥ স্বরবে চলছে লুটপাট !



স্টাফ রিপোর্টার,ঝিনাইদহ Channel 4TV :
ঝিনাইদহ গান্না বাজারের সাধারন ও পশুর হাট ইজারা বুঝিয়ে না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী ইজারা গ্রহীতা হাটের জায়গা বুঝে না পেয়ে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসকসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় উপায়ন্ত না পেয়ে তিনি হাইকোর্টে ১৪২১২ রিট পিটিশন করেন।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে টেন্ডারের মাধ্যমে এক বছরের জন্য ৪৪ লক্ষ ৭৭ হাজার ৮শত এক টাকায় উচ্চ দরদাতা হিসাবে ইজারা পান ঝিনাইদহ শহরের ব্যবসায়ী আবিদুর রহমান লালু। ইাজারাদার ইজারা পাওয়ার পর হাটে গিয়ে দেখতে পান ৮৭নং গান্না মৌজার ১৫৪৬ ও ১৫৬৬ নং দাগের ৭৩ শতক জামিতে ২১টি দোকান, ১টি তিনতলা বাড়ি,১টি পুকুর,২টি হাটচান্দি ও একটি মাছের আড়ৎ রয়েছে এবং সেখানে কোন (গরু ও ছাগল) পশুর হাট বসে না। যে স্থানে পশুর হাটটি বসে সরকারি হাটের জায়গা থেকে আধা কিলোমিটার দুরে এবং ১৭৪ শতক জমির উপর। ওই জায়গাটি ব্যক্তি মালিকানাধীন।

যার হালদাগ নং-১৪০৪,১৭০৭,১৭১৩,১৭১০,১৭০০,১৫৭৬ ও ১৭১১ এবং গান্না এলাকার মালিক সামছুর রহমান, আম্বিয়া খাতুন, সজীব ও মঞ্জুরা খাতুন। এরপর ইজারাদার সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে আবেদন করেন হাটের জায়গা বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাকে হাট ইজারার জায়গা বুঝিয়ে না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করেন।

পরবর্তীতে তিনি জেলা প্রশাসক ও খুলনা বিভাগীয় কমিশনার বরাবর হাটের ইজারা বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু তাতেও কোন কাজ হয়নি। উপায়ন্ত না পেয়ে তিনি হাইকোর্টে একটি আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কোর্ট ৩সপ্তহের মধ্যে ইজারাদারকে হাট বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাট বুঝে না দিয়ে টেন্ডার আহবান করেন। ইজারাদার ফের বিষয়টি হাইকোর্ট একটি রীট পিটিশন দায়ের করলে কোর্ট টেন্ডার আহবান না করার জন্য ১মাসের স্থগিত আদেশ দেন।

এরপরও উপজেলা প্রশাসন কোন নড়াচড়া না করায় হাটকোর্ট ১মাসের স্থগিত আরো ৬মাস বাড়িয়ে দেন। এই নির্দেশ অমান্য করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার গত ২০১৭ সালের ২৩ জানুয়ারি এক স্মারকের মাধ্যমে খাস আদায়ের নির্দেশ দেন। একারনে উপজেলা নির্বাহী অফিসে একাধিক ব্যক্তির আনাগোনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সেই সাথে খাস আদায়কৃত টাকা নামেমাত্র সরকারি কোষাগারে জমা দিয়ে বাকি টাকা লুটপাট করা হচ্ছে।
 
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, যখন টেন্ডার চুক্তিনামা হয় তখনই হাট বুঝে দেওয়া নহয়। এখানে মামলা থাক আর যায় থাক। হাট ইজারার মেয়াদ শেষ হয়েছে। আমি খাস আদায়ের নির্দেশ দিয়েছি এবং বিধি অনুযায়ী খাস  করা হচ্ছে। এখানে লুটপাটের কোন ঘটনা ঘটছে না।


1