LatestsNews
# পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনিয়ম ,রাষ্ট্রদূত সামিনার বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়, ক্ষমতার উৎস কী?# ধর্ষণ মামলার বিচার ৬ মাসের মধ্যে শেষ করতে বিচারকদের নির্দেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালত।# নৌ-পথে বাংলাদেশ-ভারত-ভুটান ট্রেডের নবযাত্রা# স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত রাজধানীতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পাঁচ জন।# ঢামেকে প্রথমবারের মতো অ্যালোজেনিক বোনম্যারো ট্রান্সপ্ল্যান্ট# গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও মানুষের অধিকার রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের বিকল্প নেই : মির্জা ফখরুল # সব ধরনের সমুদ্র সম্পদ অর্থনীতিতে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঝিনাইদহ থেকে চীনে রপ্তানি হচ্ছে গরুর ভুঁড়ি ও কুঁচে# হাতিয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ পালিত# খানজাহান আলী থানা নিসচা’র মতবিনিময় সভা# বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি ॥ নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত গাইবান্ধায় ট্রেন চলাচল বন্ধ ॥# মৌলভীবাজারে ক্ষতিগ্রস্থ প্রত্যেক ঘর পাকা করে দেওয়া হবে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী# কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ব্রহ্মপূত্রের ভাঙনে রৌমারী-রাজিবপুর প্লাবিত# শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপূরন সংগঠনের উদ্যোগে দরিদ্র দুই শিক্ষার্থীকে সহায়তা প্রদান # শৈলকুপায় কৃকদের নিকট থেকে ধান কিনছেন ইউএনও# ঝিনাইদহ জেলা জুড়েই পোষ্ট অফিসের কর্মচারী কর্মকর্তাদের চলছে বেহালদশা# খুলনার শিরোমণি বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতাল অচলাবস্থা রোগী ও তাদের স্বজনদের চরম ভোগান্তি# ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় আমবোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা নিহত ২# ভারতের গুজরাটে ১৮ বছরের নিচে মোবাইল নিষিদ্ধ# একই পাঞ্জাবির দামে হেরফেরের দায়ে আড়ংয়ে আবারও পাঞ্জাবি কাণ্ড, ফের জরিমানা
আজ শুক্রবার| ১৯ জুলাই ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

শ্রীপুরে পোল্ট্রি খামারীদের মানববন্ধন



টি.আই সানি,গাজীপুর Channel 4TV :
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনাতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে উপজেলার প্রান্তিক পোল্ট্রি খামারীরা মানববন্ধন করেন।
শনিবার সকাল ১১ টায় শ্রীপুরের মাওনায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে মাওনা পোল্ট্রি ফিড ও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে অংশ নেয় শ্রীপুরের সকল পোল্ট্রি খামারী ও তাদের সাথে জড়িত সকল অঙ্গ সংগঠনের লোকজন। এ সময় তারা গায়ে কাফনের কাপড় পড়ে মহাসড়কে দীর্ঘক্ষণ শুয়ে ডিমের দাম বাড়ানোর জন্য মৌন মিছিল করেন।  মৌন মিছিল শেষে তারা প্রায় ১ কিলোমিটার দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন  ও মিছিল করেন। পরে তারা মহাসড়কে কয়েকশ ডিম ছুঁড়ে ফেলে ভেঙ্গে দু:খ প্রকাশ করেন। মিছিল শেষে খামারীদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা ডিমের দাম বাড়াতে জোরালো বক্তব্য রাখেন। বাচ্চার দাম, খাদ্যের দাম ও ঔষধের দাম কমাতে হবে, সহজ উপায়ে ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে হবে এবং তাদের বিশেষ দাবী ছিলো বহুজাতিক কোম্পানিগুলো কখনই ডিম ও মাংস উৎপাদন করতে পারবে না।
পোলট্রি খামারীদের তথ্য মতে,বর্তমানে ১টি ডিম উৎপাদন করতে খরচ হয় ৬ টাকা কিন্তু গত ৬ মাস যাবৎ সাদা ডিম পাইকারী  বিক্রি করতে হচ্ছে ৩ টাকা ৭০ পয়সা, লাল ডিম বিক্রি করতে হচ্ছে ৪ টাকা ৫০ পয়সা। প্রতিনিয়তই তাদের লোকশানের পরিমান বাড়ছে।  এমতাবস্থায় দেশের এই বৃহৎ শিল্পকে বাচাঁতেই শ্রীপুরের সকল খামারীরা মহাসড়কে অবস্থান নেয় ।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শ্রীপুর এগ্রোভেট দোকান ও মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক উজ্জল মিয়া বলেন, আমার খামারে ৬০০০ হাজার মুরগী রয়েছে । প্রতি ডিমে আমার উৎপাদন খরচ হচ্ছে ৬ টাকা কিন্তু বিক্রি করতে হচ্ছে মাত্র ৩ টাকা ৮০ পয়সার মধ্যে। অর্থ্যাৎ প্রতিটি ডিমে আমাকে প্রায় অর্ধেক লোকশান গুনতে হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে আমাকে ছেলেমেয়ে নিয়ে রাস্তায় বসতে হবে । 
মাওনা পোল্ট্রি ফিড ও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মুজিবুর রহমান বলেন, বড় বড় হ্যাচারী মালিকদের কারণেই আজকে প্রান্তিক খামারীদের এই দূর্দশা। হ্যাচারী মালিকরা সরকারী নিয়ম না মেনেইে বাচ্চার দাম ইচ্ছে মতো বাড়ানো এবং ডিম উৎপাদন করছে যার ফলে প্রান্তিক পর্যায়ের খামারীরা  ধ্বংসের মুখে।
মাওনা পোল্ট্রি ফিড ও ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জামাল উদ্দীন ফরাজি বলেন, প্যারাগন, সিপি বাংলাদেশ লি:, কাজী ফার্মস,নারিশ ও  আফতাব এই সমস্ত বড় বড় হ্যাচারী মালিকরা নিজেরাই বাচ্চা ও খাবারসহ সব কিছু তৈরী করে। তারা যখনই একেকজনে ১০-২০ লাখ মুরগী পালন করে ডিম ও মাংস উৎপাদন শুরু করলো এতে ডিমের দাম কমলেও তাদের পর্যাপ্ত পরিমান লাভ থাকে নিজেদের সব কিছু ব্যবহার করার কারণে। কিন্তু প্রান্তিক পর্যায়ের খামারীদের ওই সমস্ত হ্যাচারী মালিকদের কাছ থেকে বাচ্চা, মেডিসিন ও খাবারসহ সব কিছুই কিনার ফলে তারা লাভের দ্বারের কাছেও পৌছতে পারছে না। তিনি দেশের এই বৃহৎ অর্থনৈতিক শিল্পকে বাচাঁতে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


1