LatestsNews
# বেনাপোলে সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী নিহত# এবছর শিক্ষা খাতে বাজেটের আকার বাড়লেও তা শতাংশে কমেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।# পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বাংলাদেশি ও চীনা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ চীনা শ্রমিক আহত হয়েছেন।# দেশে ফলের উৎপাদন বাড়াতে প্রতিনিয়ত চলছে নানা গবেষণা- কৃষকদের উৎসাহিত করতে যত আয়োজন# মোবাইল ফোনে বাংলায় এসএমএস (মেসেজ) পাঠালে খরচ অর্ধেক ছাড় দেয়া হবে।# বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হলেন সেলিমা ও টুকু# মানুষের খাদ্য তালিকার প্রাণীর এসব খাবার এ যেন মানুষ মারার কারখানা# রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেটে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।# আমিরাতে প্রথম বাংলাদেশির গোল্ডেন ভিসা অর্জন# 'মোবাইল রিচার্জে শুল্ক বাড়ানোয় ক্ষতিগ্রস্ত হবে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা'# কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল্লাহ সবুজ নির্বাচিত# লাকসামে স্কুলছাত্রী ধর্ষনের শিকার, ধর্ষনকারী গ্রেপ্তার# দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া কঠিন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।# রাজধানীতে বিশৃঙ্খলভাবে দেয়াল লিখন ও গাছে বিজ্ঞাপন লাগালে কঠোর ব্যবস্থা'# পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ বা পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে এখন চলছে গণনা।# খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি নির্ভর করছে আদালতের ওপর।# রাজধানীর কল্যাণপুরের রাজিয়া পেট্রোল পাম্পে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।# সালথায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র শিক্ষকদের মাঝে পুরস্কার বিতরন# ঝিনাইদহে মসজিদের মোয়াজ্জিনকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা !# অবশেষে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দেয়া হচ্ছে।
আজ বুধবার| ১৯ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

হরিণাকুন্ডু পৌর মেয়রের অনিয়ম,দুর্নীতি ও কাউন্সিলরদের লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান



স্টাফ রিপোর্টার,ঝিনাইদহ Channel 4TV :
ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু পৌর মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি,অবৈধভাবে কর্মচারী নিয়োগ ও পৌর কাউন্সিরদের লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি পেশ করেছে বাংলাদেশ পৌর কাউন্সিলর এসোসিয়েশন ঝিনাইদহ জেলা শাখা। আজ সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহ শহরের পোষ্ট মোড়ে এই মানববন্ধন কর্মসুচি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে ঝিনাইদহ জেলা শাখার সভাপতির আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কাউন্সিলর এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মধু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হরিণাকুন্ডু পৌর সভার প্যানেল মেয়র খাইরুল ইসলাম,ঝিনাইদহ প্যানেল মেয়র ফারহানা রেজা আঞ্জু ও হরিণাকুন্ডু পৌর কাউন্সিলর মুক্তিযোদ্ধা শাখের আলী প্রমুখ।

বক্তারা অবিলম্বে পৌর মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টুর অনিয়ম,দুর্নীতি ও পৌর কাউন্সিলদের লাঞ্ছিত করার ঘটনা তদন্তপূর্বক শাস্তির দাবি করেন। তা না হলে সারা বাংলাদেশ জুড়ে কঠোর আন্দোলনের ঘোষনা দেন। মানববন্ধন শেষে ঝিনাইদহ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুর রউফ মন্ডলের হাতে স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

সুত্র জানায়, ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু পৌর মেয়র দ্বিতীয়বারের মত নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন অনিয়ম,দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন। বিশেষ করে পৌরসভায় অবৈধ নিয়োগ বানিজ্য নিয়ে কাউন্সিলবৃন্দের সাথে তার দ্বন্দ্ব চরম আকার ধারন করে। এ ঘটনায পৌরসভার প্যানেল মেয়র খায়রুল ইসলামসহ ১০ জন কাউন্সিলর স্বাক্ষরিত লিখিত অভিযোগটি বিভিন্ন দপ্তরে দায়ের করেন। অভিযোগ রয়েছে, মেয়র ৭টি পদের জন্য অতি গোপনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেন।

মাসিক সভায় অনুমোদনের বিধান থাকলেও মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টু তা করেন নি। এছাড়া নিয়োগের ছাড়পত্র আনতে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতা বকেয়া থাকা সত্বেও বেতন ভাতা পরিশোধের ভুয়া কাগজ পত্র তৈরী করে স্থানীয় সরকার শাখায় পাঠানো হয়েছে। এমনকি প্রত্যয়ন প্রত্রে পৌর সচিবের স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। মনগড়া ব্যাংক স্টেটমেন্ট সংগ্রহ করে কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ম্যানেজ করে অবৈধ ভাবে ৭টি পদে নিয়োগের ছাড়পত্র সংগ্রহ করেন মেয়র।

কাউন্সিলররা লিখিত অভিযোগে আরো জানান, পৌর মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টু অবৈধ নসিমন আলমসাধু ইজিবাইক থেকে টোল আদায়ের ৪৫ হাজার টাকা প্রতি মাসে পৌরসভায় জমা না দিয়ে নিজেই পকেটস্থ করছেন। পৌর রেজিষ্ট্রারে এন্ট্রি আছে। চাকুরী দেয়ার নাম করে বিভিন্ন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি ৮/১০ লাখ টাকা করে হাতিয়ে নিয়েছেন। অথচ পৌর সভার বর্তমান আয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতা পরিশোধ করা একেবারেই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

এছাড়াও ধর্মীয় কাজের কথা বলে সপ্তাহে ৪ দিন ছুটি ভোগ করছেন এবং ১ দিন অফিস দেখিয়ে ৬-৭ হাজার টাকা টিএ/ডিএ নিচ্ছেন মেয়র রিন্টুু। ইতিপূর্বে মেয়র কয়েকটি পদে জাল ও ভুয়া সনদে চাকরী দিয়েছেন। যা নিয়ে এখনও পর্যন্ত খুলনা বিভাগীয় কমিশনার অফিসে মামলা চলমান আছে। ঠিকাদার কর্তৃক জমাকৃত হাট-বাজার ইজারার সিডি/ব্যাংক ড্রাফট পৌর তহবিলে জমা না দিয়ে মেয়র উত্তোলন করেছেন।

এছাড়া মাছ বাজার, পান বাজার, কসাই খানা ইজারা না দিয়ে খাস আদায় করে এবং সরকারি ভ্যাট-আয়করের টাকা জমা না দিয়ে সে টাকাও উত্তোলন করে মেয়র রিন্টু আত্বসাৎ করেছেন। নিয়ম নীতি না মেনে এডিপি/উন্নয়ন ফান্ডের টাকা দিয়ে এসি, রুমের পর্দা, ফার্নিচার ক্রয় করা হয়েছে। এছাড়া এডিপি/উন্নয়ন ফান্ডের টাকা টেন্ডার না দিয়ে ওই টাকা কর্মচারীদের বেতন পরিশোধ করেছেন।

পৌর তহবিলের টাকা তছরুপ করার কারনে পৌর কর্মচারীদের বেতন, বোনাস, ভাতা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এডিপির টাকা লুুটপাটের যেন মহৌৎসব চলছে হরিণাকুন্ডু পৌরসভায়। রোলার ড্রাইভারের পদ না থাকলেও মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে এ পৌরসভায় যোগদান করিয়েছেন। গার্ভেজ ট্রাক ভাড়ায় চালিয়ে মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টু লাখ লাখ টাকা আত্বসাৎ করেছেন। ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা শাকের আলীকে মাসের পর মাস সম্মানী ভাতা বন্ধ রেখেছেন এবং ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাসির ও ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শুভংকর বিশ্বাসকে সম্মানী ভাতা বন্ধের হুমকি দেয়া হয়েছে।

এক অনুসন্ধানে জানা গেছে, অনিয়ম-দূর্নীতি করে নামে বেনামে অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন এই আলোচিত মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টু। কোন নিয়ম নীতির তিনি তোয়াক্কা করেন না। অবৈধ অর্থের বিনিময়ে সমস্থ অনিয়মই তার কাছে নিয়ম হয়ে দাড়িয়েছে। পৌরসভার সচিব সন্তোষ কুমার হাজরা জানান, পৌরসভার নিয়োগের কোন ছাড়পত্র আনতে সচিবের প্রত্যয়ন লাগে। কিন্তু সচিবালয়ে যে প্রত্যয়ন জমা দিয়ে মেয়র সাহেব ৭টি নিয়োগের ছাড়পত্র এনেছে সেখানে আমি কোন স্বাক্ষর করি নি। সম্পূর্ন অগোচরে তার (সচিবের) স্বাক্ষর জাল করে নিয়োগের ছাড়পত্র আনা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

এ সব বিষয়ে হরিণাকুন্ডু পৌর সভার মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টরু কাছে জানতে মোবাইলে একাধিকবার ফোন করা হলে ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। হরিণাকুন্ডু পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ স্থানীয় সরকারের সচিব, বিভাগীয় কমিশনার, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক, দূর্নীতি দমন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পৌরসভায় অবৈধ নিয়োগ বানিজ্য বন্ধ ও বিভিন্ন অনিয়ম-দূর্নীতি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবী জানিয়েছেন।


1