LatestsNews
# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের। # ফিল্মি স্টাইলে মেহেদিকে ছিনিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা, গ্রেফতার ৪# মুন্সীগঞ্জে প্রতিদিন শাপলা তুলে লাখ টাকা আয় করে কৃষক শ্রেণীর লোকেরা# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।
আজ মঙ্গলবার| ২০ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

মুন্সীগঞ্জের সদরে কারাগারে অন্তরীণ গর্ভবর্তী কয়েদীর সদর হাসপাতালেএ্যাবোশন!



রুবেল মাদবর মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধ Channel 4TV :
চিকিৎসার অভাবে কারাগারে অন্তরীণ গর্ভবর্তী ময়নার গর্ভের সন্তান নষ্ট হলো। কিন্তু কেউই মুখ খুলছে না। কারাকর্তৃপক্ষও বিষয়টিকে অন্যখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছেন। অপরদিকে কয়েদী ময়নাকে পুলিশি কড়া পাহারায় হাসপাতালে এ্যাবোশন করিয়ে ১৩নং মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার সকালে এ্যাবোশন করার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ময়নাকে। গভীর রাতে তাকে হাসপাতালের ১৩নং বেডে কড়া পাহারায় শুয়ে থাকতেদেখা যায় ময়নাকে।মুন্সীগঞ্জ কারাগারের ২বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী ময়না (৩৫) গর্ভবর্তী অবস্থায় জেলা কারাগারে বন্দী হন। ময়নার স্বামী সিরাজ। ময়নার গর্ভের সন্তান কারাকর্তৃপক্ষের অবহেলায় নষ্ট হয়েছে এমন ধারনা হাসপাতালে দেখতে আসা লোকদের। জানা যায়, করাগারেই তার শারীরিক সমস্যা হওয়ায় মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালেএনে এ্যাবোশন করা হয়। কারাগার মহিলা পুলিশ জানান ময়না ৪/৫মাসের গর্ভবতী। ১মাস হয় আমাদের কারাগারে চুরি মামলায় জেলহাজতে আটক আছেন।বিষয়টি নিয়ে নানাজনের নানান কথা, ময়নাকে একপলক দেখার জন্য প্রায় ৫ ঘন্টা অপেক্ষার পর মূমূর্ষ অবস্থায় দেখা মিলে হাসপাতালের ট্রলিতে। কয়েদী ময়না হাসপাতালের ১৩ নাম্বার বেডে রয়েছেন কারারক্ষী ও পুলিশ পাহারায়।হাসপাতালে কারা পুলিশ ও থানা পুলিশের কড়া পাহাড়ায়  ময়নার গর্ভপাত ঘটানো হয়েছে। হাসপাতালের রেজিঃ খাতায় ময়নার তেমন কোনপরিচয় লেখা হয় নাই, যা আছে তাহা মাত্র কারাগারের ঠিকানা। মহিলা কারা রক্ষীসহ জেলা পুলিশ সদস্যও ছিলেন হাসপাতালে। এ বিষয় কারা পুলিশ (মহিলা) সংবাদ কর্মীদের সাথে খারাপ আচরণ করেন। আসামীর দেশের বাড়ী কোথায় কি মামলা তা তেমন কিছুই কারা কর্তৃপক্ষ জানাতে রাজী হননি। জৈনিক পুলিশ নাম না বলার শর্তে বলেন একমাস হয় এই মহিলাকে কারাগারে আনা হয়, তাহার বিরুদ্বে চুরির মামলা রয়েছে বলে জানান তিনি।এমন সময় হাসপাতাল আসা আবুল হোসেন রোগীর ভিজিটর বলেন কারো কথার সাথে কোন কথার মিল নাই, সকাল থেকে মহিলা আসামী হাসপাতালে। বড় কিছু না হলে কারাগার গেট থেকে বাহিরে আনবে কেন? এর আগেও কারাগারে আরো এক মেয়ে আসামীকে ধর্ষণ করার সংবাদ পত্র পত্রিকায় ছাপা হয়।মুন্সীগঞ্জ জেলা কারাগারের জেলার ফরিদুল হাসান রুবেলকে ফোন করলে তিনি বলেন আমরা মহিলা আসামীদের রুটিন মাফিক গায়ীনি চেকাপ করে থাকি। সেই হিসেবে ময়নাকেও চেকাপ করার জন্য হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। ময়নার তেমন কিছুই হয় নাই। ময়নাকে এই নিয়ে তিনবার রুটিন চেকাপ করানো হয়েছে। প্রয়োজনে আমার অফিসে এসে যে কোন তথ্য জেনে নিতে পারেন। কিছুই হয়নি তবে কেনইবা সকাল থেকে হাসপাতালে ময়নাকে এবোশন রুমে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। কেনইবা হাসপাতালের ১৩নং বেডে ভর্তি করানো হয়েছে। যদি এই রুগীর এবোশন না করা হয়? এমন প্রশ্ন ময়নাকে দেখতে আসা অনেক ভিজিটর।কারাগার ফার্মাসিস্ট নাজনিনকে ফোন করলে তিনি বলেন মহিলা কয়েদী দুই বছরের সাজা নিয়ে জেলখানাতে গর্ভ অবস্থায় আসেন। আমি বিষয়টি গত দের/ দুই মাস আগেই তাহার বিষয় অবগত আছি। মহিলা কয়েদীর যার চিকিৎসা মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালেই করছেন।


1