LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ সোমবার| ২৬ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

রেকর্ড ৪ লাখ কোটি টাকার বিলাসী বাজেট কাল



আয় নেই; অথচ রেকর্ড ৪ লাখ কোটি টাকার বড় বাজেট। নির্বাচন ঘিরে জনতুষ্টি অর্জনে একদিকে খরচের লম্বা তালিকা; অন্যদিকে আয় বাড়াতে ব্যবসায়ি মহলের চরম অসন্তোষের মধ্যেও নতুন ভ্যাট আইন চালুর সাহসী পদক্ষেপ। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত চান, উচ্চ প্রবৃদ্ধি, বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থান। অথচ কমাতে চান মূল্যস্ফীতি। এমন বিপরীতমুখি গোলকধাঁধার মধ্যেই আগামিকাল তিনি ঘোষণা করতে যাচ্ছেন নতুন বাজেট।

বাজেট ঘোষণায় বিরল অভিজ্ঞতার মুখে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

টানা ৯ এবং ব্যক্তিগত ১১তম বাজেট ঘোষণা করে নিজেকে নিয়ে যাচ্ছেন নতুন উচ্চতায়। সুখী, সমৃদ্ধ ও উন্নত দেশের স্বপ্নচারী অর্থমন্ত্রী তাই বরাবরের মত বাজেট দিয়ে প্রতিবছরই রেকর্ড গড়ছেন। যদিও ঘোষিত বাজেটের বিশালত্ব আর খুঁজে পাওয়া যায় না বছর শেষে বাস্তবায়ন অদক্ষতায় কাটাছেড়ার পর। যেমনটি হতে যাচ্ছে চলতি বাজেটে। না কাঙ্খিত আয় হলো, না ইচ্ছেমতো খরচ করতে পারলেন। রাজস্ব আহরণ করতে চেয়েছিলেন ৩৪ শতাংশ হারে, অথচ করতে পারছেন ২০ শতাংশ। ভেবেছিলেন, বছর শেষে এক লাখ ১৯ হাজার কোটি টাকা উন্নয়ন খাতে খরচ করতে পারবেন। অথচ দশ মাসে পারলেন ৬৫ হাজার কোটি টাকা। শতাংশের হিসাবে মাত্র ৫৫ শতাংশ। তাহলে বাকি দুই মাসে কীভাবে খরচ করবেন বাকিটা? এ প্রশ্নের উত্তর যাই হোক, অর্থমন্ত্রী আবারও নিজের শ্রেষ্ঠ বাজেট দেয়ার দ্বারপ্রান্তে।

আসছে বাজেটেও তাই ৪ লাখ কোটি টাকার বড় অংকের ধারাবাহিকতা। রাজস্ব লক্ষ্য ২ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকা। উন্নয়ন খাতে বরাদ্দ ১ লাখ ৬৪ হাজার কোটি টাকা। বাড়বে জিডিপি প্রবৃদ্ধি অথচ কমবে মূল্যস্ফীতি। এটা কি নির্বাচন ঘিরে সহজ জনপ্রিয়তার কৌশল?

নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর নিয়ে ব্যবসায়ী মহলে যখন ব্যাপক অসন্তোষ; সমালোচন ও বিতর্ক যখন চরমে, তখনও অর্থমন্ত্রী ১৫ শতাংশের ভ্যাট হার কার্যকরে অটল। রাজস্বের জন্য ইতিবাচক হলেও এ সাহসী পদক্ষেপ ঘিরেও আছে চ্যালেঞ্জ।

দেশ এগুচ্ছে। বড় হচ্ছে অর্থনীতি। সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণে বাড়ছে বিনিয়োগ-কর্মসংস্থান। তাই বাড়ছে বড় বাজেটের চাহিদা। তবে বিশ্লেষকরা মনে করেন, শুধু বড় বাজেট নয়, দক্ষতা বাড়াতে হবে আয় ও ব্যয়ের ক্ষেত্রেও। তাহলেই সফল হবে বড় বাজেট ঘোষণার লক্ষ্য।


1