LatestsNews
# বেনাপোলে সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী নিহত# এবছর শিক্ষা খাতে বাজেটের আকার বাড়লেও তা শতাংশে কমেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।# পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বাংলাদেশি ও চীনা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ চীনা শ্রমিক আহত হয়েছেন।# দেশে ফলের উৎপাদন বাড়াতে প্রতিনিয়ত চলছে নানা গবেষণা- কৃষকদের উৎসাহিত করতে যত আয়োজন# মোবাইল ফোনে বাংলায় এসএমএস (মেসেজ) পাঠালে খরচ অর্ধেক ছাড় দেয়া হবে।# বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হলেন সেলিমা ও টুকু# মানুষের খাদ্য তালিকার প্রাণীর এসব খাবার এ যেন মানুষ মারার কারখানা# রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেটে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।# আমিরাতে প্রথম বাংলাদেশির গোল্ডেন ভিসা অর্জন# 'মোবাইল রিচার্জে শুল্ক বাড়ানোয় ক্ষতিগ্রস্ত হবে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা'# কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল্লাহ সবুজ নির্বাচিত# লাকসামে স্কুলছাত্রী ধর্ষনের শিকার, ধর্ষনকারী গ্রেপ্তার# দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া কঠিন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।# রাজধানীতে বিশৃঙ্খলভাবে দেয়াল লিখন ও গাছে বিজ্ঞাপন লাগালে কঠোর ব্যবস্থা'# পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ বা পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে এখন চলছে গণনা।# খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি নির্ভর করছে আদালতের ওপর।# রাজধানীর কল্যাণপুরের রাজিয়া পেট্রোল পাম্পে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।# সালথায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র শিক্ষকদের মাঝে পুরস্কার বিতরন# ঝিনাইদহে মসজিদের মোয়াজ্জিনকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা !# অবশেষে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দেয়া হচ্ছে।
আজ বুধবার| ১৯ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

সাংবাদিক সম্মেলনে আবু বকরের দাবি শৈলকুপায় ভিটেবাড়ি থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ মিথ্যা,ভিক্তিহীন ও উদ্দেশ্যমুলক



স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ Channel 4TV :
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ব্রাহিমপুর গ্রামের নিজ ভিটে থেকে স্বপরিবারে উচ্ছেদ করা হয়েছে দাবি করে গতকাল সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সুশান্ত কুমার দাস। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় আবু বকর ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন গতকাল সুকান্তের অভিযোগ সম্পূর্ন্য মিথ্যা,ভিক্তিহীন ও উদ্দেশ্যমুলক বলে লিখিত বক্তব্যে পাঠ করেন আবু বকর ।এ সময় উপস্থিত ছিলেন ১৩ নং উমেদপুর ইউপি চেয়ারম্যান সাবদার হোসেন মোল্লা,নিরান্জন কুমার রুই দাস,নিখিল রুই দাস,আলোমতি রানী,মাহাবুবুল আলম ফকির, সিদ্দিক হোসেন মোল্লা ও মোঃ মোজাহার খানঁ।

লিখিত বক্তব্যে আবু বকর বলেন ,গত ২০১৬ সালের চেয়ারম্যান নির্বাচন কালিন সময়ে আমি শেখ হাসিনার মনোনিত প্রার্থী সাবদার হোসেন মোল্লার নৌকা মার্কার পক্ষে কাজ করায় আমাদের প্রতিপক্ষ চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান বাবুল এর বিরুদ্ধে কাজ করা ও ভোট প্রদান করার কারনে তিনি সহ জেলা ছাত্রলীগের একশীর্ষ নেতা ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আরেক শীর্ষনেতা মিলে আমার উপর প্রতিশোধ নেওয়ার জন্যই শ্রী সুকান্ত কুমার দাসের দিয়ে মিথ্যা,বানোয়াট ও ভিক্তিহীন সংবাদ সম্মেলন করিয়ে উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে দেবার জন্য ঘোলা পানিতে মাছ শিখারের চেষ্টা করছে।  

আমি গত ০৮/০৩/২০১৫ ইং তারিখে সম্পূর্ন্য বৈধ্যভাবে ননিগোপালের ওয়ারেশগনের নিকট থেকে  ১৩০ নং ব্রাহিমপুর মৌজার সি,এস ৩৮৪ ও এস,এ ৬৭৭ খতিয়ানের দাগ নং ১৯৬ দাগ থেকে সর্বমোট ৪৪শতক জমির মধ্য থেকে  আমরা দুইভাই কবলা দলিল মুলে দলিল নং ১১২৪/১৫, সর্বমোট ১২শতক জমি রেজিষ্ট্রি করে শান্তিপূন্য ভাবে বাড়িঘর নির্মান করে বসবাস করিয়া আসিতেছি।ইতিপূর্বে ভুমির প্রকৃতমালিকগন আদালতে দেওয়ানী মামলা ৮৫২/৮৪ মোকদ্দমা করে ডিক্রিপ্রাপ্ত এবং বাদী-বিবাদী পক্ষ জেলা জজ আদালতে ১০৪/৯০ আপীল কেচের করে রায় পান।

অতপর হাইকোর্টের সিভিল রিভিশন ৪৮০২/৯৮ দায়ের করেও তাতেও দেওয়ানী আপীল আদালতের ১০৪/৯০ কেচের রায় বহাল রাখেন।অতপর শৈলকুপা সিনিয়র সহকারি জজ আদালত, ঝিনাইদহ।সন ২০১১ সালের ১০৬/১১ তারিখ ০৫/০৭/২০১১ মামলা ও দেওয়ানী আপীল মোকদ্দমা নম্বর ১৪/২০১৫।রায় প্রকাশের তারিখ ০১/০৮/২০১৬ মামলাটি দোতরফা সূত্রে বাটোয়ারার ডিক্রীর আদেশ হয় আমাদের অনুকুলে। নি¤œকোর্ট,জজকোর্ট ও হাইকোর্টের সকল ডিক্রি, রায় ও আদেশ হয় আমাদের অনুকুলে। সর্বোচ্চ আদালতের রায়কে বৃদ্ধাংঙ্গুলী দেখিয়ে যারা অবৈধ্য পথে জমি দাবি করছে তারাই সঠিক পথে,না আমরা যারা আইনকে শ্রদ্ধার সাথে মেনে সকল কাগজ পত্র সঠিকসহ জমি ক্রয় করলাম প্রকৃত ভুমি মালিকদের নিকট থেকে তারা সঠিক।

আমি ও আমার ভাই আক্কাছ আলী ১৯৬ দাগে,১২শতক জমি নামপত্তন খতিয়ান নং ১১০৪,কেচ নং ৫৯৮/১১ী-১১)২০১৫-১৭ খারিজ খতিয়ান করে সম্পূর্ন্য বৈধ্যভাবে জমি ভোগদখল করি।উক্ত জমির মূল মালিক ছিল তিনজন।যথাক্রমে-১।ঘেরন রুই দাস একাই আট আনা স্বত্তে ২২শতকের মালিক, বাকি দুইজন ২। নটবর রুই দাস, ও ৩।বনমালি রুই দাস মিলে ২২শতকের মালিক। অতপর ঘেরনের নিকট থেকে কবলা মূলে প্রাপ্তি হন ফনিভুষন রুই দাস,নটবরের নিকট থেকে  কবলা মূলে মালিক ননিগোপাল রুই দাস ও বনমালির নিকট থেকে কবলা মূলে স্বত্তের মালিক হন সন্তোস রুই দাস। আমরা মূল মালিক নটবরের নিকট থেকে ননিগোপাল মালিক হলে তার ওয়ারেশদের নিকট থেকে কবলা মূলে মালিক। সকল আদালতের রায় ও ডিক্রি মোতাবেগও আমরা উক্ত জমির প্রকৃত স্বত্তের দাবিদার।সকল আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই সঠিকভাবে জমি ভোগদখল করিয়া আছিতেছি। সর্ব আদালতের রায় মেনেই জমির উপর পাকা বাড়ি নিমার্ন করে শান্তিপূর্ন ভাবে বসবাস করছি।

আমি কোন ভুমি দস্যু নই, সন্ত্রাসী নই, চাঁদাবাজি নই, জবর দখলকারিও নই। আমি একজন সাধারন খেটে খাওয়া শ্রমিক মাত্র। আমরা বাবলু’র সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হওয়ার কারনেই প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে মিথ্যা, ভিক্তিহীন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমাদেরকে সমাজে হেও প্রতিপন্ন করার লক্ষে সকল  চক্রান্ত মিথ্যাচার করা হচ্ছে। আমরা এই মিথ্যাচার, অনাচারের বিচার দাবি করছি।


1