LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ বৃহস্পতিবার| ২২ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

প্রশাসনের নাকের ডগায় পবিত্র রমজান মাসেও চলছে উলঙ্গনৃত্য জুয়া!



গাজীপুর প্রতিনিধি Channel 4TV :
পবিত্র রমজান মাসেও উলঙ্গনৃত্য আর জুয়া আসর বসিয়ে টাকা উপার্যন করছে কিছু মানুষ রুপি জানুয়া। বেশ কিছু সাংবাদিক পিটিয়ে পুরস্কার হিসেবে জুয়ার আসর চালাচ্ছেন জুয়ারী চক্ররা। প্রশাসনের দেয়া দুঃসাহস আর কতিপয় হলুদ সাংবাদিকের সংশ্লিষ্টতায় পবিত্র রমজান মাসেও চলছে ওই অবৈধ অশ্লীল অনুষ্ঠান।

স্থানীয়রা জানান,  পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় কয়েক ব্যাক্তির নেতৃত্বে গাজীপুরের বিভিন্ন স্থানে কয়েক বছর ধরে জুয়া ও উলঙ্গ নৃত্বের আসর বসিয়ে ব্যবসা করে আসছেন। এসব নামধারী নর্তকীদের উলঙ্গ নৃত্য দেখতে উপভোগ করতে ৮-১০ বৎসরের শিশু থেকে ৬০-৭০ বছরের বৃদ্ধরা জড়ো হয় একসাথে। উচ্চস্বরে ভিন্ন ধরনের বাংলা, হিন্দি ও ইংলিশ গানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একশ্রেণীর নামধারী নর্তকীরা উপস্থিত শত শত দর্শকদের সামনে মেতে উঠে নাচের নামে শরীর থেকে কাপড় খুলে ফেলার প্রতিযোগিতায়। মেলা পরিচালনাকারীরা তারা মনে করছে যে যত বেশি অশ্লীল নৃত্য প্রদর্শন করবে তাদের দর্শক তত বেশি হবে। সরেজমিনে মেলা ঘুরে আরো দেখা যায়, রাত বাড়ার সাথে সাথে চলচ্চিত্র নামধারী নৃত্যশিল্পীরা (নামমাত্র) অশ্লীল ভঙ্গিতে নাচতে নাচতে দর্শকের কাতারে এসে, শরীর ধরে-বসে যৌন সুরসুরিতে ভরে দিচ্ছে আর কিছু দর্শক নর্তকীদের গায়ে কাড়ি কাড়ি টাকা ছিটিয়ে রাতভর এনজয় করছে। যা সামাজিক অবক্ষয় তৈরী করছে অনায়াসে। মাদকের মতোই নেশার ঢলে পড়ে প্রতিদিন একশ্রেনীর দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়ছে প্যান্ডেলের ভিতরে। এতে নৈতিক অধঃপতনে পড়েছে কিশোর ও যুব-সমাজ। অবৈধ হাউজি ও জুয়ার আসরে নিঃশেষ হচ্ছে সাধারণ মানুষ। ঘটছে আইন- শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি। পাশাপাশি বাড়ছে চুরি ও ডাকাতির মতো বড় বড় ঘটনা।


অনুসন্ধানে জানা যায়,  গাজীপুররে মাওনা, হোতপাড়া, রাজেন্দ্রপুর ও বাঘেরবাজার এলাকায় বছরব্যাপীই চলছে এই জুয়া ও উলঙ্গ নৃত্য । পবিত্র রমজানকে তুয়াক্কা না করে সিয়াম সাধনার মাস এই রমজান কে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে প্রশাসনের নাকের ডগায় বর্তমানে হোতাপাড়া এলাকায় চলছে উলঙ্গ নৃত্য ও জুয়া। এর আগে কয়েক বার বাঘেরবাজার এলাকায় জুয়ার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে বেশ কয়েকজন সাংবাদিককে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছেন জুয়ারীরা। এ সময় পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে। এরপর একাধিকবার জুয়ার আসরের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক আহত ও গ্রেফতার হয়। সাংবাদিক আহতের ঘটনায় মামলা হলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করেনি। বরং আসামীরা বিরদর্পে জুয়ার আসর চালিয়ে গেছেন। বর্তমানেও এর কোনো ব্যতিক্রম নেই এখনো চলছে।

জানা গেছে, (কিছু দিন  বন্ধ থাকার পর)  ৯দিন ধরে আবার জুয়ার আসর শুরুহয়েছে। আসরে উলঙ্গ নৃত্যতো থাকছেই। এইসব আসরের মালিক জনৈক রানা,আরিফসহ আরো অনেকেই রয়েছে। গাজীপুরে জুয়ার আসর করেন সাংবাদিক পিটানোর ভয় দেখিয়ে। তারা প্রকাশ্যে সাংবাদিক পিটানোর হুমকি দিয়ে জুয়ার আসর চালাচ্ছেন।
এ প্রসঙ্গে স্থানীয়  হোতাপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (আইসি) নাজমুল হক বলেন, আমি জানিনা। স্যার জানেন।


1