LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ শুক্রবার| ২৩ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ফোর-জি’র ঐতিহাসিক যাত্রায় প্রস্তুত বিটিআরসি,



 

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনা মতো এবছরই ফোর-জি সেবা চালু ও স্পেকনিউট্রালিটি বাস্তবায়ন করতে প্রাথমিক সব প্রস্তুতি শেষ করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন। এজন্য করা খসড়া ফোর-জি (এলটিই) গাইডলাইন নিয়ে উন্মুক্ত মতামত প্রকাশের সুযোগ শেষ হচ্ছে বুধবার।

এরই মধ্যে আবার অপারেটরদের স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতার দাবিকে আমলে নিয়ে বিটিআরসি পাঠানো খসড়া স্পেকট্রাম গাইডলাইন এখন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ওয়েবসাইটে। অপারেটর এবং আগ্রহীরা চাইলে স্পেকট্রাম নীতিমালা নিয়ে মতামত জানাতে পারবে এ মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত।

ফোর-জি’র খসড়া গাইডলাইন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অনুমোদন পেলেই লাইসেন্স প্রক্রিয়া শুরু হবে। এরপর সক্ষমতা অনুযায়ী স্পেকট্রাম বরাদ্দ পাবে অপারেটররা।

বিটিআরসির ফোর-জি প্রস্তুতি তুলে ধরে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির মিডিয়া এবং কমিউনিকেশন্স উইংয়ের সিনিয়র সহকারি পরিচালক জাকির হোসাইন খান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘নির্ধারিত সময়েই ফোর-জি লাইসেন্স দেয়া যাবে বলে প্রত্যাশা করছি। ইতোমধ্যে আমরা ফোর-জি প্রযুক্তির সফল পরীক্ষা চালিয়েছি।পরীক্ষায় ডাউনলোড স্পিড ছিল ১৩০ এমবিপিএস (মেগাবাইট পার সেকেন্ড)। কোনো রকম বাফারিং ছাড়া ভিডিও দেখার সুবিধা পাবেন ব্যবহারকারীরা।’

“ভিডিও কল আটকে যাবে না, হাই রেজুল্যুশনের ভিডিও দেখা যাবে। মোবাইলে টেলিভিশন চ্যানেল দেখাটা হবে অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি মানসম্পন্ন । প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা দেশে আসলে তার উপস্থিতিতে ফোর-জি শীর্ষক উপস্থাপনা তুলে ধরা হবে। সব ঠিকঠাক থাকলে চলতি মাসেই লাইসেন্স এবং পরবর্তী কয়েক মাসে দেশে ফোর-জি যাত্রা শুরু হবে বলে আশা করছি আমরা।’’অপারেটররা জানিয়েছেন কিছু সংকটের কথা। যথেষ্ট ফোর-জি সক্ষম হ্যান্ডসেট না থাকা, স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতার দাবিপূরণ হবে কিনা এরকম আশঙ্কার মধ্যেই ফোর-জি চালুর প্রস্তুতি নিতে হচ্ছে বলে জানিয়েছে তারা। তবু আগামীকালই ফোরজি নিয়ে নিজেদের মতামত জমা দেবেন বলে জানিয়েছেন মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশ (অ্যামটব) এর মহাসচিব টিআইএম নুরুল কবির। তবে সুপারিশ বা মতামত ব্যবসায়িক স্বার্থে এখনই প্রকাশ করা সম্ভব নয় বলে চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান তিনি।

ফোর-জি নেটওয়ার্ক নিয়ে রবি-এয়ারটেল কতটুকু প্রস্তুত? চ্যানেল আই অনলাইনকে রবি’র মুখপাত্র ইকরাম কবীর বলেন: ‘ফোর-জির জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে আমরা বিনিয়োগ করে যাচ্ছি। ফোর-জি বা এলটিই প্রযুক্তির মেরুদণ্ড ফাইবার। অপারেটররা নিজে যেন এই ফাইবার স্থাপন করতে পারে এমন নীতি প্রবর্তন করা উচিৎ।’

এছাড়া ফোর-জি চালুর আগে স্পেকট্রাম বরাদ্দ ও গ্রাহকদের হাতে ফোর জি চালাতে সক্ষম মোবাইলফোন আছে কিনা তাও দেখা উচিৎ বলে মনে করেন ইকরাম কবীর।

তিনি বলেন: ফোর-জি বা এলটিই’র জন্য মূল উপকরণ স্পেকট্রাম। তাই ফোর-জি চালুর আগে সব ব্যান্ড স্পেকট্রাম সুলভ মূল্যে নিলাম এবং টেক নিউট্রালিটি বাস্তবায়ন করা উচিৎ। ফোর-জি হ্যান্ডসেট ছাড়া গ্রাহকরা এ প্রযুক্তির সঠিক অভিজ্ঞতা নিতে পারবে না। এসব নিশ্চিতের জন্য সরকারের নীতিই বলে দেবে আমরা ফোর জির জন্য প্রস্তুত কি না।’

এপ্রিলে এলটিই প্রযুক্তির সফল পরীক্ষা চালায় রবি

ফোর-জি প্রযুক্তির জন্য বাংলালিংকও প্রস্তুত বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটির হেড অব কর্পোরেট কমিউনিকেশন্স আসিফ আহমেদ।

নিরপেক্ষভাবে স্পেকট্রাম বরাদ্দ নিশ্চিতের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন: বাংলালিংকের ডিজিটাল রূপান্তরের অংশ হচ্ছে ফোর জি। তবে এজন্য স্পেকট্রাম নিউট্রালিটি থাকতে হবে। এজন্য আমরা আগে স্পেকট্রাম বরাদ্দ চাই। বিটিআরসিকে আমাদের বিনিয়োগ বৃদ্ধির সুযোগ দিতে হবে। এছাড়া আমাদের টাওয়ার বিক্রির সুযোগও দেয়া উচিৎ। এরইধ্যে আমাদের প্রযুক্তি সহায়তা দেয়া প্রতিষ্ঠান ফোর জি নেটওয়ার্কের পরীক্ষামূলক প্রস্তুতিতে সফলতা পেয়েছে।’

স্পেকট্রাম নিউট্রালিটি নিশ্চিতে পদক্ষেপ নিয়েছে বিটিআরসি। নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির চেয়ারম্যান চ্যানেল আই অনলাইনকে এবছরের মে মাসে জানান, ‘আগে লাইসেন্স দেবো, এরপর অপারেটদের সক্ষমতা অনুযায়ী স্পেকট্রাম বরাদ্দ দেয়া হবে। অপারেটরগুলো এখন একেক ধরনের সার্ভিস একেকটা ব্যান্ডের স্পেকট্রামে দেয়। ফোর জি চালু হলে যেকোন সার্ভিস যেকোন স্পেকট্রামে দেয়া যাবে। এখন থ্রিজি সার্ভিস ২১০০ ব্যান্ডে এবং টু জি ৯০০ ও ১৮০০ ব্যান্ডে আছে।’

“ফোর জি দেয়ার কথা ছিল ৭০০ ব্যান্ডে। কিন্তু এজন্য অনেক টাওয়ার লাগতো, শেয়ারিং এবং বিনিয়োগেরও ব্যাপার ছিল। এখন স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতা দেয়া হলে আর ব্যান্ড স্পেসিফিকেশন প্রয়োজন হবে না।’’

এবছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে এক সভায় যোগ দেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। যেকোন মূল্যে ২০১৭ সালের মধ্যেই ফোর জি চালু করতে বলেন তিনি।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের উপস্থিতিতে ওই সভাতেই স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতা নিশ্চিতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।


1