LatestsNews
# অবশেষে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দেয়া হচ্ছে।# শুধু সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্যই নয়, দলের আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার জন্য জয়ই দরকার ছিল# রাজশাহীতে জমে উঠেছে হরেক রকম আমের বেচাকেনা।# রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় ব্যর্থ বলে দায় স্বীকার করেছে জাতিসংঘ।# ২৩ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে# নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতীতে ভোট গ্রহণ # নোয়াখালীর হাতিয়ায় অস্ত্র ও গুলিসহ শীর্ষ জলদস্যু ফরিদ কমান্ডারকে গ্রেপ্তার করেছে কোস্টগার্ড# বেনাপোলে হুন্ডি করে অর্থ পাচারের অভিযোগে ৩ পুলিশ ক্লোজড # নড়াইলে শিক্ষার্থীদের গুলি করে হত্যার হুমকিতে ৪ জনের নামে মামলা দায়ের# ভিসা ছাড়াই ব্রাজিল যেতে পারবেন চার দেশের পর্যটক# এমপি হারুনের স্ত্রীর প্লট বাতিল নিয়ে সংসদে হাসির রোল# বগুড়ায় জালিয়াতি করতে ইভিএমে ভোট নিতে চায় কমিশন: রিজভী# বাজেট যথাযথভাবে প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন হয়েছে বলেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে।# ওসি মোয়াজ্জেমকে হত্যা মামলার আসামি করার আবেদন করা হবে’# খাওয়ার মসলা দিয়ে তৈরি হচ্ছে হার্টের ব্যথানাশক ক্যাপসুল!# নোয়াখালী উপজেলা নির্বাচন, ১৩১ কেন্দ্রেই হবে ইভিএম-এ ভোট, # ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরল ৬ তরুনী# চুনারুঘাটে করাঙ্গী নদীর বাধঁ ভেঙ্গে সাত / আটটি গ্রাম প্লাবিত# যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৫ কোটি ৭২ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা# বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা উন্নয়ন ও শান্তির প্রতীক মোহাম্মদ নাসিম
আজ মঙ্গলবার| ১৮ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

শ্রীপুরে ভেঙ্গে পড়ছে অভ্যন্তরীন সড়ক যোগাযোগ



টি.আই সানি,গাজীপুরঃ
সড়কে ভারী যানবাহন চলাচল, নিয়মিত সংস্কার না হওয়া, নির্মাণ কাজে নি¤œমানের কাঁচামাল ব্যবহার ও অপরিকল্পিত উন্নয়নের ফলে ভেঙ্গে পড়ছে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার অভ্যন্তরীন সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। দূরাবস্থার মধ্যে এসব সড়কে যাতায়াত করতে এলাকার জনসাধারণকে দূর্ভোগ মাথায় নিয়ে ঝুকিপূর্ণ ভাবে চলাচল করতে হচ্ছে।  এসব সড়কগুলোতে যানবাহনে চলাচল তো দূরে থাক, পায়ে হাঁটাও দায় হয়ে পড়েছে। উপজেলার প্রতিটি সড়কই এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। এদিকে সড়কগুলোতে বিভিন্ন সময় যানবাহন আটকে পড়া ও ভারী যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ায় নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতায় পড়েছে শিল্প কারখানার মালিকরা। এতে কারখানার উৎপাদন বিঘেœর আশংকা সৃষ্টি হয়েছে।

গাজীপুর সড়ক ও জনপথ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল ও শ্রীপুর পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, শ্রীপুর উপজেলায় ৫৭কিলোমিটার রাস্তা সড়ক ও জনপথ বিভাগ দেখাশোনা করেন। এই ৫৭কিলোমিটার সড়ক ভাঙ্গা-চোরা খানাখন্দে চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। অপরদিকে শ্রীপুর পৌরসভার অধীনে ২২কিলোমিটার কার্পেটিং, ৯০কিলোমিটার এইচ.বি.বি সলিং সড়ক সংস্কারের অভাবে চলাচলে অনুপযোগী । এদিকে, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের অধীন ৩৬৯কিলোমিটার পাঁকা রাস্তা ও ১হাজার ৭৪কিলোমিটার কাঁচা রাস্তাও অধিকাংশই ভেঙ্গেচুরে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে।

শ্রীপুর উপজেলা সদরের সাথে ৮টি ইউনিয়নের যোগাযোগ স্থাপনকারী প্রধান প্রধান সড়কগুলোর অবস্থাও বেহাল। উপজেলার অন্যতম জনগুরুত্বপূর্ণ শ্রীপুর-বরমী সড়ক। শ্রীপুর থানাসহ পার্শ্ববর্তী ময়মনসিংহের  গফরগাঁও,কাপাসিয়া উপজেলাসহ হাজার হাজার জনসাধারণ সড়কটি দিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে থাকে। কিন্তু গত দুই বছর যাবৎ নানা ধরনের জটিলতায় এসড়কটির প্রায় ৭কিলোমিটার অংশের কাজ বন্ধ রয়েছে। এতে ওই সড়কটিতে কয়েক মাস যাবৎ যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। বরমী ইউনিয়নের সাথে বিকল্প যোগাযোগ স্থাপনকারী অন্যান্য সড়কও বেহাল থাকায় চলাচলকারী যাত্রীরা বিপাকে পড়েছেন। সড়কগুলোতে বড় বড় যানবাহন চলাচল না করায় এবং রাস্তা খারাপের অজুহাতে সিএনজি অটোরিক্সায় যাত্রীদের দ্বিগুণ ভাড়ায় চলাচল করতে হচ্ছে। এদিকে, এই সড়কের উন্নয়নে ৭১কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ দরপত্র আহ্বান করেছে বলে জানিয়েছেন সড়ক ও জনপথ, যা আগামী ডিসেম্বর মাস নাগাদ কাজ শুরু হবে।

শ্রীপুর পৌর এলাকার মাষ্টারবাড়ী-শ্রীপুর সড়কের ছয় কিলোমিটার অংশ গত প্রায় পাঁচ বছর যাবত উন্নয়ন না হওয়ায় খানা খন্দসহ বড়বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে বর্তমানে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এসড়কটির উন্নয়নের জন্য গত ১৫ই জুন পৌরবাসীরা উপজেলা পরিষদের সামনে মানববন্ধন করে। এ ছাড়াও শ্রীপুর পৌরসভার অধিন ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক হতে আনসার রোড-বেলতলী সড়ক, আনসার রোড-শ্রীপুর সড়ক, শ্রীপুর সদর থেকে লোহাগাছ ফালু মার্কেট সড়ক, মাওনা চৌরাস্তা-বারতোপা সড়ক, পিয়ার আলী কলেজ-কড়ইতলা, আসপাডা মোড়-শ্রীপুর সড়ক, আনসার রোড-ফখরুউদ্দিন টেক্সটাইল সড়কটি দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।
 
উপজেলার সাথে যোগাযোগ রক্ষাকারী শ্রীপুর ঘুন্টিঘর-সাতখামাইর-কাওরাইদ সড়ক, মাওনা পল্লীবিদ্যুৎ মোড়-বরমী সড়ক, নয়নপুর-বরমী সড়ক, মাওনা-ফুলবাড়ীয়া সড়ক, সলিংমোড়-গাজীপুর বাজার, নয়নপুর-চকপাড়া মেডিকেল মোড়, জৈনা বাজার-শৈলাট, শ্রীপুর-রাজাবাড়ী, শ্রীপুর-কাপাসিয়া, বরামা-সিংহশ্রী, বরমী-ত্রিমোহনী, এমসি বাজার-শিশু পল্লীসড়ক সহ প্রায় অর্ধশতাধিক সংযোগ সড়ক বেহাল দশায় পড়েছে।

খানাখন্দের ফলে উপজেলা সদরের সাথে সংযোগ সড়কগুলোতে যানবাহন চলাচল করতে না পারায় ভারী ও মাঝারী যানবাহন গ্রামীন সড়কে চলাচল করায় ওই সড়কগুলোও ক্ষতি হচ্ছে। ছোট ছোট প্রকল্পের মাধ্যমে এসব সড়কের খানাখন্দ ভরাটের নামে বিভিন্ন সময় সরকারী অর্থের অপচয় করা হচ্ছে। যার সুফল সাধারণ জনগণ পাচ্ছে না।

বরমী বাজারের ব্যবসায়ী গণেশ ভান্ডারের মালিক রিপন শাহা বলেন, দুই বছর যাবত নানা অজুহাতে বরমীর সড়কটি অকেজো থাকায় আমাদের ব্যবসা বাণিজ্যের দারুণ ক্ষতি হচ্ছে। পণ্য আনা নেয়ায় অতিরিক্ত খরচ হওয়ায় দাম বেড়ে যাচ্ছে। কিন্তু আমরা গ্রাহকদের কাছ থেকে বেশি দাম আদায় করতে পারছি না।

সাতখামাইর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণী লাবিব হোসেন বলেন, আমি সোনাকর থেকে প্রতিদিন বাস যোগে ঘুন্টিঘর পর্যন্ত আসতাম। এখন যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় পায়ে হেঁটে স্কুলে আসতে হয়। এতে সময়মতো বিদ্যালয়ে উপস্থিত হতে পারি না।

ত্রিমোহনী এলাকার শফিকুল ইসলাম মন্ডল বলেন, বড় ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় হত দুই বছর যাবৎ বরমী এলাকায় সিএনজিতে যাতায়াত করতে হয়। ৮কিলোমিটার রাস্তায় ৮০টাকা ভাড়া গুনতে হচ্ছে।

বরমী বাজারের খলিল এন্টারপ্রাইজের মালিক খলিলুর রহমান বলেন, প্রতিদিন আমার ১০টি ড্রাম্প ট্রাকের মাধ্যমে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বালু সরবরাহ করতাম। রাস্তার দুরবস্থার জন্য এখন ব্যবসা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। কিস্তিতে কেনা ১০ট্রাকের কিস্তি দিতে পারছি না।

বৈরাগীর চালা গ্রামের আনোয়ার হোসেন বলেন, মাষ্টারবাড়ী-শ্রীপুর সড়কটির আশপাশে কয়েকটি বড় বড় শিল্প কারখানার ভারী যানবাহন চলাচল করায় সড়কটি প্রায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় আমরা কিছুদিন আগে মানববন্ধন করে রাস্তাটির সংস্কারের দাবী জানিয়েছি।

গাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক নুরুল ইসলাম বলেন, শ্রীপুরের অভ্যন্তরীন যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ায় একমাত্র সিএনজি অটোরিক্সায় চলাচলে জীবন দুর্বিসহ মনে হচ্ছে। সময়মতো কোন কাজই যাচ্ছে না।

মাওনা চৌরাস্তা ঔষধ ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন বলেন, মাওনা চৌরাস্তা-মাওনা বাজার সড়কটিতে ড্রেনেজ ব্যবস্থা অকার্যকর হয়ে পড়ায় জলাবদ্ধতায় রাস্তা ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে চরম দুরাবস্থায় পড়েছে চলাচলকারী লোকজন। আশপাশের ব্যবসায়ীসহ কয়েকটি হাসপাতালের রোগী আনা নেয়ার কাজে বিঘেœর সৃষ্টি হচ্ছে।

তামিশনা সোয়েটার কারখানার উৎপাদন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, রাস্তার খারাপ থাকায় কারখানার পরিবহন চলাচলে বিঘেœর সৃষ্টি হওয়ায় উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটছে।

শ্রীপুর পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী লিয়াকত আলী মোল্ল্যা বলেন, নতুন অর্থবছরে বেহাল সড়কগুলো সংস্কারের জন্য তালিকা তৈরীর কাজ চলছে, দ্রুত সময়ে দরপত্র আহ্বান করা হবে।

শ্রীপুর উপজেলা প্রকৌশলী সুজায়েত হোসেন বলেন, বিভিন্ন চলাচল অনুপযোগী সড়ক সংস্কারের জন্য ৪০ কোটি টাকার কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়াও বাকী ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তা সংস্কারের জন্য বরাদ্ধ চাওয়া হয়েছে।

গাজীপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী কে.বি.এ সাদ্দাম হোসেন সড়কগুলো অবস্থা বেহাল থাকার কথা স্বীকার করে বলেন, যেহেতু শ্রীপুর উপজেলা শিল্পকারখানা সমৃদ্ধ। সড়কগুলোতে গুলোতে ভারী যানবাহন চলাচল করায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সড়ক ও জনপথের অধীনগুলো সংস্কারের জন্য ২০৭কোটি টাকা বরাদ্ধ হয়েছে শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।


1