LatestsNews
# পশ্চিমবঙ্গে বজ্রপাতে ৬ বাংলাদেশিসহ আহত ২৪, নিহত ৭# রাজধানীর মিরপুরে চলন্তিকা মোড়ের বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে# বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ আট শহরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বর্ষ উদযাপন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।# ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বাসের চাপায় প্রাণ গেল একই পরিবারের ৫ জনের# মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা কারি নিউজিল্যান্ডের সেই খুনি জেলে বসেই অস্ত্র চাইলেন# বেনাপোল -বর্ডার ভোগান্তি টাকা টাকা খেলা নিরাপত্তা দেবে যারা, তারাই তো লুটেরা ?# জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নোয়াখালীতে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে স্বোচ্ছায় রক্তদান# নড়াইলে দুদক কমিশনার প্রাইমারি স্কুলের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করলেন# আগামী ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু প্রথম দফায় ৩৫৪০ রোহিঙ্গাকে ফেরত নেবে মিয়ানমার# কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।# জনগণের সম্পৃক্ততা না থাকলে এককভাবে হরতাল বা অবরোধ করে সরকারবিরোধী আন্দোলনে কোন সুফল আসবে না : মির্জা ফখরুল# ঈদের আমেজ কাটিয়ে কর্মচঞ্চল হয়ে উঠতে শুরু করেছে রাজধানী# মাশরাফি বিন মুর্তজার বিদায়ী ম্যাচ আয়োজন নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।# বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) একদিনে সড়কে নিহত ৩০, আহত অর্ধশতাধিক# আজ শুক্রবার (১৬ আগস্ট) পহেলা ভাদ্র শরতের প্রথম দিন।# সৌদি আরবে সড়ক দুর্টনায় দুই বাংলাদেশি নিহত# নরেন্দ্র মোদিকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।# জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে - প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা# ভারতজুড়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত# রাজধানীর লালবাগের চাঁদনিঘাটে প্লাস্টিক কারখানায় আগুনের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস।
আজ শনিবার| ১৭ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

গৃহকর্মী নির্যাতকদের জন্য চূড়ান্ত সতর্কবাণী



 

আমাদের সমাজে যখন প্রতিনিয়ত শিশুশ্রম আর গৃহকর্মী নির্যাতন বেড়ে চলেছে তখন গৃহকর্মী আদুরি নির্যাতনের মামলায় যুগান্তকারি এক রায় দিয়েছেন আদালত। এই মামলার প্রধান আসামী নওরিন জাহান নদীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন বিচারক। একইসঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে। ঢাকার নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-তিনের বিচারক জয়শ্রী সমাদ্দার এ রায় দেন। রায়ের বিরুদ্ধে আসামি পক্ষ আপিল করার কথা বললেও নওরীনকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রায়ের বিরুদ্ধে স্বাভাবিকভাবে আপিল করার অধিকার আসামিপক্ষের আইনি অধিকার, তাই তারা সেটা করতেই পারেন। কিন্তু তারপরও এই রায়কে গৃহকর্মী নির্যাতন বন্ধে মাইলফলক বলেই আমরা মনে করি। শুরু থেকে নির্যাতনের শিকার গৃহকর্মীর পাশে থেকে তাকে ন্যায়বিচার পাওয়ার পথ তৈরি করে দেয়ায় জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতিকেও আমরা অভিনন্দন জানাই। আমাদের সমাজের দিকে তাকালে দেখা যায়, গৃহকর্মী নির্যাতন এখন যেন অনেক সবলের কাছে অনেকটা সাধারণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই যেমন আদুরি নির্যাতন। ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে শিশু গৃহকর্মী আদুরিকে রাজধানীর পল্লবী ডিওএইচএস এলাকার একটি ডাস্টবিনে আধমরা অবস্থায় পাওয়া যায়। কয়েকদিন আগে এক সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীর বিরুদ্ধেও শিশু গৃহকর্মী সাবিনাকে অমানুষিক নির্যাতনের খবর পাওয়া গেছে। এর আগে প্রখ্যাত একজন কণ্ঠশিল্পী এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধেও গৃহকর্মীকে নির্যাতনের পর হত্যার অভিযোগ উঠে। এছাড়া জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটারও একই অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে কারাগারে ছিলেন। শুধু দেশেই নয়, বরং দেশের সীমানা পেরিয়ে সুদুর যুক্তরাষ্ট্রেও বাংলাদেশি দু’জন কুটনীতিকের বিরুদ্ধে একইভাবে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ উঠায় তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এই উদাহরণগুলো ছাড়াও নিভৃতে অনেক গৃহকর্মী নির্যাতিত হচ্ছে। তারা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সেগুলোর অধিকাংশই আমাদের অগোচরে থেকে যায়। আজকের এই রায়ের ফলে এখন থেকে গৃহকর্মী নির্যাতনের আগে নির্যাতককে নিশ্চয়ই ভাবিয়ে তুলবে। তবে আইনের কঠোরতার পাশাপাশি এ বিষয়ে সামাজিক সচেতনতা তৈরি করা এবং গৃহকর্মীদের অধিকার সংক্রান্ত আইন সম্পর্কে সরকারিভাবে জোরালো প্রচারণা চালানো জরুরি বলে আমরা মনে করি। পাশাপাশি মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকেও এই বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে। কেননা সকলের অংশগ্রহণে আমাদের এই দেশ ক্রমেই মানবিক হয়ে উঠবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।


1