LatestsNews
# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের দুজন নাগরিক। # জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হলো# ডেঙ্গু প্রতিরোধ-সচেতনতায় 'স্টপ ডেঙ্গু' অ্যাপ চালু # অবশেষে টাইগারদের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ডোমিঙ্গাকে।
আজ রবিবার| ১৮ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

যৌতুক না পেয়ে গৃহবধুকে হত্যার চেষ্টা ,মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ।



নীলফামারী সংবাতদাতাঃ

সৈয়দপুরের পার্শবতী মধুরামপুর কামারপাড়া এলাকায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে গৃহবধুকে গলা চেপে হত্যার চেষ্টা করেছে স্বামীর পরিবারের লোকজন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় গৃহবধুকে হাতপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগে যানা যায়, মধুরামপুর বাট্টুপাড়া গ্রামের দেলোয়ারের মেয়ে দোলনা (২২) এর সাথে বিয়ে হয় পার্শের কামারপাড়া গ্রামের আমিনুলের ছেলে রায়হানের সাথে। বিয়ের পর তাদের সংসারে আসে একটি সন্তান। তার বয়স ১৪ মাস। ৬/৭ বছর আগে দোলনার বাবা দেলোয়ার হঠাৎ বাড়ী থেকে বেড়িয়ে যায়। এখন পর্যন্ত তার খোজ মেলেনি। অপরদিকে দোলনার মা ঢাকায় গিয়ে গার্মেন্টস চাকরী নেয়। আর এ সুযোগে দোলনার শ্বশুর বাড়ীতে শুরু হয় তার উপর নির্যাতন। সামান্য কথা নিয়ে তাকে মার ডাং এবং বাড়ী থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করে। বিয়ের সময় আসবাব পত্রসহ নগদ লক্ষাধিক টাকা যৌতুক হিসাবে দেয় রায়হানকে। পুণরায় যৌতুকের জন্য তার উপর চলে অমানুষিক ও শারীরিক নির্যাতন। এর সূত্র ধরে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিকালে যৌতুকের টাকা দাবী করে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন। এসময় দোলনা যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করায় স্বামী রায়হান দাড়িয়ে থাকা অবস্থায় তার হুকুমে শ্বশুর আমিনুল, শ্বাশুরী কাছুয়ানী ও ননদ রেহানা দোলনাকে ঘরে ঢুকিয়ে দরজা বন্ধ করে চুলের মুঠি ধরে এলোপাতাড়ি মারডাং শুরু করে। এসময় তার গলা চেপে ধরে হত্যার চেষ্টা করে। দোলনার গোঙ্গানীতে পাশের বাড়ীর লোকজন টের পেয়ে এগিয়ে আসলে তারা ঘর থেকে বেড়িয়ে আসে। এক পর্যায়ে দোলনা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এসময় তার স্বামী বলে যে, ওকে মেরে ফেললে কিছু হবে না। পরে গ্রামের লোকজন তাকে উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে দোলনা। হাসপাতালের বেডে কথা হয় দোলনার সাথে কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করায় আমাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে। আশে পাশের লোকজন এগিয়ে না আসলে হয়তো আমাকে মেরে ফেলতো। এছাড়া বিয়ের পর থেকে আমার উপর নির্যাতন করে আসছিল। আমি নির্যাতনকারীদের বিচার চাই।

 ওই এলাকায় গেলে দোলনার পক্ষে এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে মামলা করবে বলে ওই এলাকার শতাধিক লোক এ প্রতিবেদককে জানায়। এ ব্যাপারে কথা হয় অভিযুক্ত আমিনুল, তার স্ত্রী ও মেয়ের সাথে তারা মারডাংয়ের কথা স্বীকার করে। তবে স্বামী রায়হানের দেখা মেলেনি।                      


1