LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ শনিবার| ২৪ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

আমন ক্ষেতের পোকা দমনে আলোর ফাঁদ-পার্চিং পদ্ধতির ব্যবহার



শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত,লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটে এ বারের দু’দফা ভয়াবহ বন্যা থেকে রোপা আমন ক্ষেতকে রক্ষার পর এখন পোকার আক্রমণ থেকে ক্ষেতকে রক্ষা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে চাষীরা। বিভিন্ন রকমের নামীদামী কীটনাশক স্প্রে করেও পোকা দমন না হওয়ায় আলোর ফাঁদ, জীবন্ত পার্চিং ও মৃত পার্চিং পদ্ধতি ব্যবহার করে সফলতার পাচ্ছে চাষীরা।

 

এ বছর জেলার পাঁচটি উপজেলায় ৮২ হাজার ২৫৯ হেক্টর জমিতে আমন ধান রোপণের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও অর্জিত হয়েছে ৮৪ হাজার ৭১০ হেক্টরে।

 

কৃষি বিভাগের দাবি, ৯৮ শতাংশ আমন ক্ষেতেই পার্চিং করা হয়েছে। আমন ধানের ক্ষেত থেকে বন্যার পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কঁচুরিপানা ও অগাছা পরিষ্কার করে সার ব্যবহারের পর আমন ধান ক্ষেত রক্ষা করতে চেষ্টা করে যাচ্ছে জেলার হাজার হাজার চাষী।

 

চাষীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিভিন্ন কোম্পানীর নামী ও দামী কীটনাশক স্প্রে করলেও কিছুক্ষণের জন্য পোকা এক ক্ষেত থেকে অন্য ক্ষেতে চলে যায়। কীটনাশকের গন্ধ সরে গেলে ক্ষেতে আবারও পোকার অগমন শুরু হয়। এক্ষেত্রে পার্চিং ও আলোর ফাঁদ পদ্ধতি প্রয়োগ করা হচ্ছে। যাতে পোকা সরানো নয়, মেরে ফেলে বা পাখিকে দিয়ে খাইয়ে সমূলে ধ্বংস করা যাচ্ছে।

 

সরে জমিনে দেখা গেছে, জীবন্ত পার্চিং হিসেবে আমন ধানের ক্ষেতে ধৈঞ্চা গাছ লাগিয়েছেন চাষিরা। ওই সব গাছে পাখি বসে ক্ষতিকর পোকা খেয়ে ফেলছে। ধৈঞ্চার শিকড় নাইট্রোজেনের কাজও করছে। কেউ কেউ জমিতে পুঁতে দিয়েছেন বাঁশের কঞ্চি বা শুকনো গাছের ডালপালাও, যেন পাখি বসে পোকা গুলোকে খেয়ে ফেলতে পারে। আলোর ফাঁদ পদ্ধতিতে রাতে ক্ষেতে আলো জ্বালিয়ে তার নিচে পাতিলে ডিটারজেন্ট পাউডার মেশানো পানি রেখেছেন চাষিরা। আলো পেয়ে পোকা-মাকড় উড়ে এসে পাতিলের পানিতে পড়ে মারা যাচ্ছে। এতে শনাক্তও করা যাচ্ছে যে, ওই এলাকায় কোন প্রজাতির পোকা আক্রমণ করেছে। পরে তা দমনে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

 

হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা এলাকার চাষী আবেদ আলী, আতিয়ার রহমান ও আব্দুস সামাদ জানান, কীটনাশক স্প্রে করে পোকা দমন সম্ভব হচ্ছে না। জীবন্ত পার্চিংয়ের গাছে পাখি বসে তাদের আমন ক্ষেতের ক্ষতিকর পোকা গুলোকে খেয়ে ফেলছে। ফলে এখন পর্যন্ত পোকার আক্রমণ দেখা যায়নি।

 

হাতীবান্ধা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, পোকা দমনে পার্চিং ও আলোর ফাঁদ পদ্ধতিতে কৃষকদের নিয়মিত উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। উঠান বৈঠক করে সমন্বিত উদ্যোগের পরামর্শ ও লিফলেট দেওয়া হচ্ছে। কৃষকরা সজাগ ও সচেতন হওয়ায় পোকার আক্রমণ তেমন একটা দেখা যাচ্ছে না বলেও দাবি করেন তিনি।

 

লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক বিধু ভূষণ রায় জানান, ধান ঘরে তোলা পর্যন্ত কৃষকরা এভাবে সজাগ ও সচেতন থাকলে আমন ক্ষেতে পোকা আক্রমণ করতে পারবে না। 

 

আমনখেতে আলোর ফাঁদ পদ্ধতি ব্যবহার করে পোকা দমন। ছবি: সংগৃহীত:

 

আমন ক্ষেতে আলোর ফাঁদ-পার্চিং পদ্ধতির ব্যবহার করে পোকা দমন। ছবি: সংগৃহীত


1