LatestsNews
# সামান্য তর্কের জেরে প্রাণ হারালো এক কারখানা শ্রমিক। # উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবেই প্রিয়া সাহা অসত্য বক্তব্য দিয়েছেন দেশে ফিরলেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।# দেশদ্রোহী বক্তব্যের জন্য প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেই হবে : কাদের# বেনাপোল সীমান্তে ভারতীয় রুপিসহ আটক ১ # কুষ্টিয়ায় বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত অস্ত্র,গুলি ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার # বৃষ্টিতে না ভিজতে গাছতলায় আশ্রয়, বজ্রপাতে ৮ শিশুর মৃত্যু# ডিজিটাল গরু' ফেসবুকে ভাইরাল হবিগঞ্জের ‘শিক্ষিত গরু’! # অস্ট্রিয়ায় বিমান বিধ্বস্তে ৩ জনের মৃত্যু# ই মিটিশন চালু হওয়ায় পাল্টে যাচ্ছে গাংনী ভুমি অফিসের চিত্র# নেত্রকোনায় ব্যাগ থেকে শিশুর মাথা উদ্ধারের ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড।# শ্রীলঙ্কা সফরই ক্যারিয়ারের শেষ বিদেশ সফর টাইগার অধিনায়ক মাশরাফী বিন মুর্তজার।# বাংলাদেশ থেকে যাওয়া রোহিঙ্গার প্রশ্নে ‘অবাক’ উত্তর ট্রাম্পের # ধর্ষককে বিদেশ থেকে দেশে ফিরিয়ে আনছেন যে নারী আইপিএস# নুহাশপল্লীতে নানা আয়োজনে হুমায়ূন আহমেদকে স্মরণ ও ৭ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হচ্ছে।# পদ্মা সেতুতে বলির গুজবে বাড়ছে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।# টাঙ্গাইলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে তলিয়েছে আরও ২০ গ্রাম# রিফাত হত্যা মামলার তিন নম্বর আসামি রিশান ফরাজীর পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর "# আইনি লড়াই ছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির কোনো বিকল্প পথ নেই মন্তব্য তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করেছে উত্তর সিটি করপোরেশন।# মুন্সীগঞ্জে শারীরিক প্রতিবন্ধী ও দারিদ্রতা দমাতে পারেনি জুলিয়ার পড়াশোনা
আজ শনিবার| ২০ জুলাই ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

নিষেধাজ্ঞা, তবুও বিশখালীতে চলছে মা ইলিশ নিধনের মহা উৎসব।



মোঃমোছাদ্দেক বিল্লাহ(বিষেশ প্রতিবেদক)

মা ইলিশ রক্ষা পেলে, দেশে প্রচুর ইলিশ মেলে। এই স্লোগান যেন শুরু লিফলেট, ব্যানার আর আলোচনাতেই সীমাবদ্ধ।
দেশে এখন চলছে ইলিশের প্রজনন মৌসুম। সরকারিভাবে এ সময় ইলিশ নিধন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কিন্তু সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিশখালী নদীতে ইলিশ মাছের বিচরণ আছে, সেখানে চলছে অবাধে এ মাছ শিকার। মৎস্য কার্যালয় থেকে অভিযান চালানো হলেও তা খুব একটা কার্যকর প্রভাব ফেলতে পারছে না। ১লা অক্টোবর থেকে ২২শে অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। এ সময় ইলিশ ধরা, ক্রয়-বিক্রয় ও পরিবহন নিষিদ্ধ থাকলে বিশখালীতে চলছে মা ইলিশ নিধনের মহা উৎসব। থেমে নেই যুবক, বৃদ্ধ ও শিশু-কিশোররাও। সরকারি আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে নেমে পড়েছে মা ইলিশ ধরার উৎসবে। অজ্ঞাত কারণে সকলে নীরব হয়ে আছে। এলাকার নদ-নদীতে বেশ কিছুদিন থেকে ডিমওয়ালা ইলিশের ঝাঁক ধরা পড়ায় আসন্ন মূল প্রজনন মৌসুমে জাতীয় এ মাছের উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে বলেন মন্তব্য করছেন সচেতন মহল। কিন্তু সরকারি আদেশ অমান্য করে কর্তৃপক্ষের নাকের ডগায় বিশখালীর বিভিন্ন পয়েন্টে চলছে মা-ইলিশ নিধনের মহা-উৎসব। বড় ইলিশের সঙ্গে বাদ পড়ছে না ছোট আকারের জাটকাও। বিশখালী নদী এখন যেন ইলিশ শিকারির দখলে। নদীতে তাকালেই নজর পড়ছে ইলিশ ধরার নৌকা। নদীর পাড়ে প্রকাশ্যে ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে ইলিশ। উপজেলা র্নিবার্হী  অফিসার ডাঃ শরীফ ফায়জুল আলমের তাৎপড়তা থাকলেও। উপজেলা মসৎ বিভাগের  সে রকম কোনো তাৎপড়তা না থাকায়। জেলে, মাঝি এবং জনগণ সবাই ইলিশ ধরা, ক্রয়-বিক্রয়ের মেতে উঠেছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের অভিমত, ইলিশ প্রজনন রক্ষা অভিযান তো নয়, এ যেন ইলিশ নিধন, বিক্রি, সংগ্রহ এবং কম দামে ইলিশ খাওয়ার উৎসব।প্রশাসন কিংবা মৎস্য দপ্তরের অভিযান যথাসময় পারিচালিত না হওয়ায় সমূলে ইলিশ ধ্বংসযজ্ঞের মহড়া বেশি হচ্ছে। কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে না মা ইলিশ নিধন। বিশখালীতে যে হারে ডিমওয়ালা ইলিশ মাছ আহরণ হচ্ছে, আগামী ভরা মওসুমে ইলিশ উৎপাদনে এ বছরের চেয়েও আরো খারাপ পরিস্থিতি হবে। প্রত্যক্ষদর্শী অনেকেরই অভিযোগ, কিছু রাজনৈতিক লোকজন গোপনে ভয়ভিতি দেখিয়ে জেলেদের মাছ আটক করে নিয়ে যায়। কিন্তু যারা মাছ বিক্রি এবং আড়তদারি করছে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয় উপজেলা মৎস কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান,আমাদের অভিযান বহাল আছে, এর মধ্য আমরা প্রায় ১০ হাজার। মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছি কিন্তু নিয়ামতি নৌ পুলিশের তেমন তাৎপরতা না থাকায়, আভিযান অনেকটা সফল হচ্ছে না।
নিয়ামতি নৌ-থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন মানুষ জনের অভিযোগ শুধু পুলিশের উপর। আমরা চেষ্টা চলিয়ে যাচ্ছি এবং আমরা সব সময় প্রস্তুত আছি। এবং ইতিমধ্যে দু’জনকে আটকও করেছি, জাল নৌকা,জব্দও করছি তবে স্থানীয়রা জনগন সচেতন থাকলে আরো ভালো হবে।


1