LatestsNews
# নোয়াখালী হাতিয়ায় অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার-১# অভাবের সঙ্গে যুদ্ধ করে অবহেলিত ফাতেমা এখন স্বাবলম্বী# ঝিনাইদহে অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ # কালীগঞ্জে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৮ সদস্য আটক# প্রশিক্ষণ আমাদের জ্ঞান ও কাজের দক্ষতা বাড়ায় - উপসচিব মোহাম্মদ শওকত ওসমান# নোয়াখালীতে এলজি ও দেশীয় অস্ত্রসহ ডাকাত গ্রেফতার# নোয়াখালীতে প্রথমবারের মতো খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি করছে টিসিবি# শ্বাসরুদ্ধকর ও সংকটময় সেই ১২ ঘণ্টা# হলি আর্টিজান মামলার ৮ আসামি আদালতে# ভারতের পুশ ইনের বিষয়টি পত্রিকায় দেখেছি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী# ছেলের জীবন বাঁচাতে বাংলাদেশ থেকে দুবাইয়ে ছুটে গেলেন মা# রংপুর জেলা আ’লীগের এক নম্বর সদস্য জয়# মূল্যবান জিনিস রেখে শুধুই পেঁয়াজ নিলো চোর, হতবাক দোকানদার# বিপুল পরিমাণ রাসায়নিক অস্ত্র মজুদ করেছে মিয়ানমার!# গত ১০ বছরে লাশ হয়ে ফিরেছে ২৭ হাজার নারী কর্মী# ১ ডিসেম্বর থেকে পেট্রোল পাম্পে ধর্মঘটের ডাক# ভোগে নয়, ত্যাগেই মর্যাদা বাড়ে : প্রধানমন্ত্রী# ১০৬ রানে অল আউট হয়ে যাওয়া নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী# যুবলীগের সম্মেলনে আমন্ত্রণ পাননি ওমর ফারুক# ঢাকায় জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন
আজ শুক্রবার| ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ঝিনাইদহে পুলিশ ক্যাম্প সংলগ্ন হলিধানি-কাতলামারি রাস্তায় সন্ধ্যা হলেই ডাকাতি শুরু, আতংকে পথচারী!



জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানি ইউনিয়নের হলিধানি-কাতলামারি সড়ক ও তাঁর আশে পাশের কাতলা মারি বাজার, গাগান্না, বেড়াদি ও কাশিমপুর এই ৪ গ্রামে অবাধে চলছে ডাকাতি ও ছিনতাই। গ্রামবাসীরা জানিয়েছে, হলিধানি-কাতলামারি সড়ক টি সন্ধ্যা হলেই ডাকাত এবং ছিনতাইকারীদের দখলে চলে যায়। বিগত রমাজন মাসের ২৭সের রাতে ১০ টার দিকে গাগান্না গ্রামের আমির বিশ্বাসের ছেলে রাশেদের আলমসাধু হলিধানি-কাতলামারি সড়কের জামতলা নামক স্থান থেকে ডাকাতরা রাস্তার গাছ কেটে ফেলে ডাকাতি করে। সে সময় আলমসাধু চালককে গাছের সাথে বেঁধে রাখে। এ ঘটনার পর গত রমজানের ঈদের ২ সপ্তাহ পরে হালিধানি বাজারের ভাই ভাই ঔষধের দোকানদারের নিকট থেকে রাত ৮ টার দিকে একই স্থান থেকে নগদ টাকা ছিনিয়ে নেই। একই স্থান থেকে প্রায় ২ সপ্তাহ আগে হরিনাকুন্ডুর ভালকি গ্রামের রমজানের নিকট থেকে রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ৭৫০ টাকা ও একটি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনার পর কোরবানির ঈদের ১ সপ্তাহ পরে রাত ২ টার দিকে গাগান্না গ্রামের আব্বাস বিশ্বাসের বাড়িতে ১০/১২ জনের একটি ডাকাত দল মুখস পরা অবস্থায় বাড়িতে ঢুকে ১ টি স্বর্ণের চেইন ১ জোড়া কানের দুল ও হাতের চুড়ি নিয়ে যায়। গত সোমবার ১৬ তারিখে রাত ২ টার দিকে ১০/১২ জনের একটি ডাকাত দল হলিধানী এলাকার কাশিমপুর গ্রামে তাহাজউদ্দিন মন্ডলের ছেলে সোবাহান মন্ডলের বাড়িতে কাপড়ে মুখ বেঁধে ঢুকে বাড়ির সদস্যদের বেঁধে বাড়িতে থাকা নগদ ১০,৫০০ টাকা একটি স্বর্ণের চেইন, ২ জোড়া হাতের চুড়ি, ১ জোড়া কানের দুল নিয়ে যায়। এ সময় বাড়ির মালিক সোবাহানকেউ মারধর করে। এই ঘটনার পরের দিন মঙ্গলবার হলিধানী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদের উপস্থিতে কাতলা মারি বাজারে কয়েক গ্রামের মানুষ একত্রিত হয়ে চোর ডাকাতদেও আতঙ্কে গ্রাম পাহারা দেবার জন্য ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী গঠনের জন্য আলোচনা সভা করে। এ আলোচনা সভার পরের রাতেই কাতলা মারি বাজারে জৈনিক বীরেনের স্বর্ণের দোকানে চুরি হয়। একই এলাকার সোবাহান জানায়, তাঁর বাড়িতে ডাকাতি করে নিয়ে যাওয়ার মাত্র ৫ মিনিট পর পুলিশ ঘটনা স্থানে উপস্থিত হলেও ডাকাত দল কে ধরতে পারেনি।

উল্লেখ্য, হলিধানী ইউনিয়নে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রন করার জন্য কাতলামারি বাজারে একটি পুলিশ ক্যাম্প রয়েছে। এ অঞ্চলে যত গুলো ছিনতাই ও ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে স্থানীয় ক্যাম্প থেকে বড় জোর দেড় কি.মির ভিতরেই ঘটছে। এত গুলো ঘটনা ঘটলেও পুলিশ এদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ অঞ্চলের আইন শৃঙ্খলার চরম অবউন্নতি সাধারন জনগণ পুলিশের ব্যর্থতাকেই চরম ভাবে দায়ী করছে। হলিধানি বাজারে চায়ের দোকানে বসা গাগান্না গ্রামের জামাল, বিনোদপুর গ্রামের আব্দুল লতিফ জানান, এখন আমাদের এই রাস্তা দিয়ে চলতে ভীষণ ভঁয় লাগে। ডাকাতির ভঁয়ে সন্ধ্যার পরে আর কেউ এই রাস্তা দিয়ে যায় না। জরুরী কাজে এখন জীবনের ঝুকি হয়ে দাড়ায়েছে। তাঁর পরে মানুষকে জীবন হাতে নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে হলিধানি ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ বলেন, পুলিশ যদি একটু পরিশ্রম করে তাহলে এদের ধরতে পারে। মোজাম নামের একজন সন্ত্রাসী জেল খানার বাহিরে থাকার কারনেই এলাকায় চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাই বেড়ে গেছে। দুর্দ্ধর্ষ সন্ত্রাসী মোজাম গত রমজান মাসের আগে নাটা বাড়িয়া গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী লক্ষণ ও সাগান্না বাওড়ের সভাপতি কোলা গ্রামের শাহাজউদ্দিনকে চাঁদা ধরে। সে সময় কাতলা মারি ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই নবাবের তৎপরতার কারনে এই চাঁদা নিতে ব্যর্থ হয়। বর্তমানে সে পালাতক আছে। তাকে পুলিশ গ্রেফতার করলেই এলাকায় শান্তি ফিরে আসতে পারে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। তাছাড়া আরেকজন সন্ত্রাসী আলাউদ্দিন ঝিনাইদহ জেল খানায় আছে বলে জানাযায়। এ প্রসঙ্গে কাতলা মারি পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই আসাদুজ্জামান জানান, ঘটনার পর আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে। এই পর্যন্ত ঘটনার সাথে জড়িত ৪ জন কে গ্রেফতার করে জেল হাজাতে প্রেরন করা হয়েছে। এঘটনা গুলোর সাথে যারা জড়িত আছে আমরা জানতে পেরেছি। তাছাড়া মোজাম একজন আলোচিত সন্ত্রাসী, সে পালাতক আছে। আমরা জানতে পেরেছি সে বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা জেলায় অবস্থান করছে।


1