LatestsNews
# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের দুজন নাগরিক। # জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হলো# ডেঙ্গু প্রতিরোধ-সচেতনতায় 'স্টপ ডেঙ্গু' অ্যাপ চালু # অবশেষে টাইগারদের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ডোমিঙ্গাকে।
আজ সোমবার| ১৯ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

ত্রিশ হাজার শ্রমিকের জীবন-পাথরের কঠিন লড়াই



এস কে দোয়েল :
প্রতিদিন ভোর হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে জীবনের সাথে পাথরের লড়াই। পানকৌড়ি পাখির মতোই জলে ডুবে ডুবে নুড়ি পাথর তুলে দলবাঁধা শ্রমিকরা। ১০ কিলোমিটার জুড়ে শ্রমিকরা দল বেঁধে বাতাসে ফুলানো গাড়ির চাকার টিউব, লোহার চালনি, পাথর শনাক্তের  জন্য লোহার রড নিয়ে কোথাও এক বুক, কোথাও বা হাঁটুপানির নিচ থেকে নুড়ি পাথর উত্তোলন করে পানিতে ভাসানো টিউবে রাখা ঢাকিতে রাখা হয় সে পাথর। পরে ঢাকি ভরা হলে দু’কাঁধে বাইক করে তীরে এনে জমা করে। সন্ধ্যায় মহাজনের কাছে বিক্রিলব্ধ অর্থে আহার জোটে স্ত্রী-সন্তান, পরিবার-পরিজনের। এ চিত্র দেশের উত্তর সীমান্তের কূল ঘেষা নদী মহানন্দার। দুুই দেশের সীমান্তের বুক চিরে বয়ে যাওয়া এই মহানন্দায় পাথর তুলে জীবিকা নির্বাহ করে বেঁচে আছে হাজার হাজার শ্র্রমিক।
কিন্তু জীবিকার এই লড়াইও নিরবচ্ছিন্ন থাকে না ওপারের বিএসএফের কারণে। প্রতিবেশী ভারতের সীমান্ত টহলদার বাহিনীর বাধা, তাড়া, মারধরের ঘটনা ঘটে। কখনো বা তাদের গুলি করে কেড়ে নেয় শ্রমিকদের কারও জীবন। কখনো সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতীয় পণ্য ও গরু-মহিষ পাচারকে কেন্দ্র করেও বিভিন্ন সময় বন্ধ হয়ে যায় পাথর উত্তোলন। আর তখন থমকে যায় শ্রমিকদের জীবিকা নির্বাহের পথ।
শ্রমিকদের পরম ভাগ্যস্থান বলা হয় মহানন্দাকে। নদীটি ভারতের ফুলবাড়ি সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের পঞ্চগড় তেঁতুলিয়ায় প্রবেশ করে ২০ কিলোমিটার প্রবাহিত হয়ে আবার ঢুকে গেছে ভারতে। এর মূল উৎপত্তি ভারতের দার্জিলিংয়ের ২০৬০  মিটার উঁচু মহালিদ্রাম পাহাড়ে। বর্ষা মৌসুমে প্রবল বর্ষণে নদীর তীব্র স্র্রোতে ভেসে আসে ছোট, মাঝারি ও বড় আকারের নুড়িপাথর। এই পাথরেই জড়িয়ে গেছে এ উপজেলার প্রায় ৩০ হাজার মানুষের জীবন। শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বললে জানান, সারা দিনে একজন শ্রমিক গড়ে ২০-২৫ সিএফটি পাথর তুলতে পারেন। কখনো কম হয়। গড়ে দিন মুজুরি পড়ে ৪শ থেকে ৫শ টাকা।
মহানন্দার এই পাথরের সাথে মিশে গেছেন নারীরাও। তারাও খুঁজে নিয়েছেন কর্মসংস্থান। তারাও পুরুষ শ্রমিকদের পাশাপাশি নদীতে নেমে পড়েন পাথর সংগ্রহে। দিন হাজিরার কাজ করেন শতশত নারী শ্রমিক। তারা ভোর হলেই গৃৃহের কাজকর্র্ম সেরে স্বামী সন্তানদের খাইয়ে বের হয়ে যান কাজে। সকাল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত পাথর নেটিং, ভাঙা, লোড-আনলোড এর কাজ করেন। পুুরুষ শ্রমিকদের সমান কাজ করলেও মুুজুুরি ক্ষেত্রে রয়েছে বৈষম্য। দিন শেষে গাঁধার খাটুনি খেটেও এসব নারী শ্রমিকের আঁচলে আসে দিনে আড়াইশ থেকে ৩শ টাকা।
২৪ অক্টোবর/১৭ বুধবার দুপুরে শ্রমিকদের পাথরের জীবন সংগ্রাম দেখতে যান এই প্রতিবেদক। কথা বলেন প্রবীণ বয়সী হকিকুলের সাথে। বাড়ি সীমান্তের নিকটস্থ কৃষ্ণকান্ত জোত গ্রামে। এ গ্রামের আরো কয়েকজন রয়েছে। দিনভর দলবেঁধে কাজস ওরা। কথা হয় দুই সন্তানের জনক জামালের সাথে। ঘরে তার স্ত্রী সন্তান। মেয়ে ৭ম শ্রেণি আর ছেলে কেজি নার্সারীতে পড়ে। দিনভর এই পাথরের সাথে সংগ্রাম করে দিনশেষে মহাজনের কাছে পাথর বিক্রি করে পরিবারের অন্ন-বস্ত্র-শিক্ষাসহ যাবতীয় মৌলিক চাহিদা পূরণ করার চেষ্টা করে। নদীর তীরেই পাথর নেটিং ও মেশিনে পাথর ভাঙার করতে দেখা যায় নারী শ্রমিকদের। আয়মনা জরিনার মতো নারীদের সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই জীবন যুদ্ধে পরিবার পরিজনদের আহার জুটে। সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ জুটে।
শ্রমিকদের এই ঘাম ঝরানো শ্রমে উত্তোলিত পাথর বিক্রি হয় সারাদেশে। শহরে শহরে গড়ে উঠে আলিশান ভবন কিংবা বাড়ি। কিন্তু পাথর শ্রমিকদের ভাগ্যে সুফল মেলে এর সামান্যই। মহনন্দার পাথর, বালু আর সিলিকা বালিভিত্তিক শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারলে বদলে যেতে পারে অর্থনীতির চাকা। তাতে কর্মসংস্থানের সুযোগ ঘটবে হাজার হাজার বেকারের।
উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শাহিন বলেন, এই পাথর ও বালি কাজে লাগানোর জন্য সরকারিভাবে কোনো প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হলে শ্রমিকরা খুব লাভবান ও তাদের কর্মসংস্থানের সুবিধা হতো। আর এই নদী মহানন্দা হাজার হাজার মানুষের জীবিকার সন্ধান দিয়েছে। প্রায় ৩০ হাজার খেটে খাওয়া মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে এ নদীর স্রোতে ভেসে আসা ছোট ছোট পাথর।


1