LatestsNews
# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের। # ফিল্মি স্টাইলে মেহেদিকে ছিনিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা, গ্রেফতার ৪# মুন্সীগঞ্জে প্রতিদিন শাপলা তুলে লাখ টাকা আয় করে কৃষক শ্রেণীর লোকেরা# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।
আজ বুধবার| ২১ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

গাংনীর পল্লীতে দর্জি এখন চিকিৎসক :



মেহেরপুর প্রতিনিধিঃ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাষ্টাদহ গ্রামে একজনই মাত্র চিকিৎসক আছেন যিনি এর আগে দর্জি ছিলেন। অবশ্য এখনও তিনি চিকিৎসা সেবার পাশা পাশি দর্জির কাজও করেন বলে জানান পল্লী চিকিৎসক কাষ্টাদহ গ্রামের খাইরুল ইসলাম। তিনি ঐ গ্রামের মাঝ পাড়ার মৃত ওয়াছেল মন্ডলের ছেলে। ১০ বছর ধরে গ্রামের মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন বলে তিনি জানান। এর আগে তিনি পুরুদস্তর দর্জির কাজ করতেন। গ্রামে দর্জির কাজ করে তেমন একটা স্বচ্ছলতা আনতে পারেননি যে কারণে তিনি এই পেশাটাকে এখন প্রাধান্য দিয়েছেন। যদিও তার  প্রতিষ্ঠানে এখনও মাঝে মাঝে দর্জির কাজ করেন। ১০ বছর ধরে চিকিৎসা সহ ওষুধ বিক্রি করলেও তিনি এখন থেকে চার বছর আগে একটি পল্লী চিকিৎসার সার্টিফিকেট (এল এম এ এফ পি) নিয়েছেন বলে জানান। খাইরুল ইসলাম নিজেকে ডাক্তার মানতে নারাজ হলেও গ্রামের সকলে তাকে ডাক্তার হিসেবে জানে। চিকিৎসা বিষয়ে কয়েকটি অতি সাধারণ প্রশ্ন করলেও তিনি তা জানেন না বলে এসব বিষয় এড়িয়ে যেতে সাংবাদিকদের অুনরোধ করেন। তিনি বলেন আমাদের গ্রামে কোন চিকিৎসক না থাকায় আমার মেয়ের জ্বর আসলে সেদিন সারারাত চিকিৎসক এবং ওষুধের অভাবে তাকে অনেক কষ্ট পেতে হয়েছে। পরের দিন ভোরে গাংনীর একটি ওষুধের দোকানিকে বললে তিনি ওষুধ দিয়ে দেন তাতে আমার মেয়ের অসুখ ভালো হয়ে যায়। মুলোত এটা তার মাথায় আসে যে গ্রামে কোন চিকিৎসক নেই তাই তিনি স্বিদ্ধান্ত নেন দর্জির পাশা পাশি ওষুধ ও সাধারণ চিকিৎসা করলে মন্দ হয়না। সেই থেকে তিনি শুরু করে দেন ওষুধ ও চিকিৎসার ব্যাবসা। তিনি শিশু থেকে যে কোন বয়সের মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। নিয়ামনুযায়ি ওষুধ বিক্রি করতে হলে ৬ মাসের ফার্মাসিস্ট ট্রেইুনিং ও ড্রাগ লাইসেন্স থাকা আবশ্যিক যা খাইরুল ইসলামের কাছে নাই। ১৯৯১ সালে তিনি এস এস সি মানবিকে দ্বিতীয় বিভাগে পাশ করেন বলে দাবি করেন। পরে তিনি নিজের গ্রামে দর্জির কাজ শুরু করেন এবং পাশাপাশি ওষুধ তার পর চিকিৎসা দিয়ে থাকেন বলে খাইরুল ইসলাম স্বীকার করেন। তিনি তার দোকানে সব ধরণের ওষুধ রাখেন যার মধ্যে উচ্চ মানের এন্টিবায়োটিক, আইভি স্যালাইনও থাকে বলে জানান এবং এগুলোর ব্যাবস্থা পত্র তিনি নিজেই দিয়ে থাকেন এবং বিক্রি করেন। তবে তিনি বড় ধরণের চিকিৎসা দেননা বলে জানান। দর্জির দোকানে ওষুধের ব্যবসা করতে পারেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন রাখা উচিৎ নয় বলে জানি তার পরও গ্রামে কোন চিকিৎসক ও ওষুধের দোকান নেই বিধায় আমার দোকানে ওষুধ ব্যবসা শুরু করেছি। এ প্রসঙ্গে তিনি সাংবাদিকদের পত্রিকায় প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ করেন। এবং বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাপ শুরু করেন। দৌড় ঝাপে কাজ না হলে তিনি এ ব্যবসা আর করবেন না বলে সাংবাদিকদের জানান। এবিষয়ে গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ মাহাবুবুর রহমান বলেন দর্জির দোকানে ওষুধ রাখা ঠিক নয় তাছাড়া পল্লীতে চিকিৎসা দিতে হলে সরকার কর্তৃক ট্রেনিং শেষে একটি সার্টিফিকেট দেওয়া হয় যাতে সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিতে পারে। তবে কেউ যদি প্রশিক্ষণ না নিয়ে চিকিৎসা দিয়ে থাকে তাহলে স্বাস্থ্য ঝুকিতে পড়তে পারে। এ বিষয়টি নিয়ে কেউ অভিযোগ দিলে তার বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


1