LatestsNews
# মৗলভীবাজারে মনু ও ধলাই নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে আতংকে জেলাবাসী# ভারতে পাচার ৫ বাংলাদেশীকে বেনাপোলে ফেরত # রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু সমাধানে সারা বিশ্বের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ।# উল্লাপাড়ায় পরিশ্রম আর পরিচর্যায় সফল পটলচাষী ফকির জয়নাল# মাগুরা শ্রীপুরে সাংবাদিকে বৃদ্ধ বাবা সহ ৫ আওয়ামীলীগ নেতা কর্মির নামে মিথ্যা মামলা# বিএনপি-জামায়ত জোটের শাসন আর কোন দিন ফিরে আসবে না# মৌলভীবাজারে দীঘলগিজি স্কুলে একটি রাস্তার কারনে ঝড়ে পড়ছে শতাধিক কোমলমতি শিশু# ২০১৯-২০ সালের অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পরদিনই বেড়ে গেছে সোনার দাম।# ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি বাংলাদেশের# বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে উইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারালো ইংল্যান্ড।# অনির্বাচিত সরকারের বাজেট প্রণয়নের নৈতিক অধিকার নেই :মির্জা ফখরুল# চট্টগ্রামে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব# সাভারে ভয়ংকর লুঙ্গিবাহিনীর ১৭ ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধর# ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে নিম্নবিত্ত ও বিকাশমান মধ্যবিত্তের জন্য তেমন কোনো সুখবর নেই# রেমিটেন্সে প্রণোদনা প্রবাসীদের উৎসাহিত করবে# রাজধানীতে আজকালের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।# ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।# উপজেলা নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় বললেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম# গোবিন্দগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১০# উল্লাপাড়ায় ৮২ কোটি টাকার প্রকল্প রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ কাজে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও আলোচনা সভা
আজ রবিবার| ১৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

গোপালগঞ্জে ধর্ষকদের বিচার চায় আট মাসের অন্তঃসত্বা রেশমা : ৭ দিন বাড়ীতে আটকিয়ে রেখে ধর্ষন করা হয়



গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে ধর্ষনের শিকার আট মাসের অন্তঃসত্বা গৃহকর্মী (১৯) এখন প্রাণের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। একদিকে সামাজিক লোকলজ্জ্বা ও অপর দিকে ধর্ষকদের হুমকি ধামকি ধর্ষিতা জীবনটাকে বর্তমানে দূর্বিষহ করে তুলেছে।
সম্প্রতি এ ব্যপারে সদর উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামের বাদশা শেখের ছেলে ধর্ষক সেলিম (৩৫), মোমরেজ দাড়িয়ার ছেলে মিরাজ দাড়িয়া (৫০) ও ধর্ষনের সহযোগিতাকারি সেতু বেগমকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত গোপালঞ্জে মামলা করেছেন ফরিয়াদি রেশমা বেগম মামলা নং-৩/২০১৮)।
অনাগত সন্তানের স্বীকৃতি ও ধর্ষকদের বিরুদ্ধে মুখ খোলাই তার জন্য যত কাল হয়ে দাড়ায়। ধর্ষকরা জোর করে ফাঁকা নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে ধর্ষিতার কাছ থেকে জোর স্বাক্ষর নিয়ে নিয়েছে। মামলা তুলে নেয়ার জন্য তাকে হত্যা করে বস্তার মধ্যে ভরে নদীতে ফেলে দেয়াসহ নানান রকম হুমকি দিচ্ছে তারা। রহস্যজনক কারনে বর্তমানে পুলিশ নীরব থাকায় ধর্ষিতা নিরাপত্তা চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, তিন বছর আগে ফরিদপুরের সালতা উপজেলার কামাইদা গ্রামের শফি মাতুব্বারের মেয়ে রেশমা (১৯) কে গৃহপরিচারিকা হিসেবে বাসায় কাজে নিয়ে আসেন তৎকালীন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর থানার এস আই কামরুল ইসলাম। প্রায় দেড় বছর আগে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন এস আই কামরুল ইসলাম। এরপর কামরুলের স্ত্রী সেতু বেগম  তার একমাত্র সন্তান ও গৃহপরিচারিকাকে নিয়ে গোপালগঞ্জ সদরের পুখুরিয়া গ্রামে তার মামার বাড়ীতে চলে আসেন। এক পর্যায় সেখানে তারা বসবাস করতে থাকে। স্বামীর মৃত্যুর পর উচ্চাভিলাষী সেতু নিজেই বেপরোয়া জীবন যাপন করতে শুরু করেন। ধর্ষক সেলিমসহ  কতিপয় যুবকের সাথে তার সখ্যতা গড়ে ওঠে। ওই সব যুবকরা  রাত বেরাতে সেতুর বাড়ীতে যাওয়া আসা করতো। অর্থের বিনিময়ে দেহ ব্যবসায় জড়িযে পড়ে সেতু। এরমধ্যে একদিন সেতুর মাধ্যমে ধর্ষক সেলিম ধর্ষিতাকে তার সাথে মেলামেশার প্রস্তাব দেয়। তাতে সে রাজি না হওয়ায় সেলিম তাকে টাকা দেয়ার লোভ দেখায়। এতেও সে রাজি না হলে সেলিম তাকে বিবাহ করা প্রস্তাব দেয়। এভাবে সেলিম তাকে দিন দিন ফুসলাইতে থাকে। গত ২০১৭ সালের ৪ মার্চ রাতে সেতুর সহযোগিতায় সেতুর মামা বাড়ীতে একটি কক্ষের মধ্যে ধর্ষিতা কে আটকিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে সেলিম। এ ভাবে তাকে পর পর সাতদিন ওই বাড়ীতে আটকিয়ে রেখে ধর্ষন করা হয়।
এরই এক পর্যায় সেতুর পিতা সৌদি প্রবাসী মিরাজ দাড়িয়া দেশে আসেন। ওই সময় গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে সেতুর মা জেসমিন বেগমের শরীরে অস্ত্রপাচার হয়। ওই কারনে এবং মায়ের সেবা করতে দু’দিন সেতুকে হাসপাতালে থাকতে হয়। তখন রেশমা ও সেতুর বাবা মিরাজ দাড়িয়াকে ওই বাড়ীতে একা থাকতে হয়। এই সুযোগে মিরাজ দাড়িয়াও পর পর দু’দিন রেশমাকে জোর পুর্বক ধর্ষন করে। এতে এক পর্যায় রেশমা অন্তঃসত্বা হয়ে পড়ে।
এ ব্যাপারে ধর্ষিতা রেশমার সাথে কথা বললে ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, আমার দারিদ্রতার সুযোগ নিয়ে ধর্ষকরা আমাকে নানা হুমকি দিচ্ছে। আমি বর্তমানে খুব অসহায়। আমি জীবনের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। আমার বৃদ্ধ বাবাকে তারা তিন দিন ধরে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখে। পরে সেখান থেকে কৌশলে তিনি পালিয়ে এসেছেন। আসামীরা খুবই প্রভাবশালী।
তিনি আরো বলেন, গোপালগঞ্জ থানার সাবেক ও বর্তমান কোটালিপাড়া থানায় কর্মরত এক এস আইর সাথে সেতু বেগমের খারাপ সম্পর্ক রয়েছে। তাকে দিয়েও আমাকে ভয় দেখানো হচ্ছে। আমি কোথায় গিয়ে ওঠবো কিছুই বুঝতে পারছি না। এ সমাজে আমার কোন ঠাই হবে না। আমার আত্মহত্যা করা ছাড়া কোন গতি নেই। আমি আমার অনাগত সন্তানের  পিতার পরিচয় চাই। চাই ধর্ষকদের দৃস্টান্ত মুলক শাস্তি।
ওই মামলার বর্তমান তদন্ত কর্মকর্তা গোপীনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক হযরত আলীর সাথে কথা বললে মামলাটির তদন্ত চলছে বলে তিনি জানান।
সেতু ও সেতুর মায়ের সাথে কথা বলতে গেলে তাদের কাউকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি এবং মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সেলিম শেখের সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা অস্বিকার করে বলেন, এ সব মিথ্যা আমার অনেক শত্রু আছে তারা এ সব করছে। তারা আমার বিরুদ্ধে শত্রুতা করছে।


1