LatestsNews
# মৗলভীবাজারে মনু ও ধলাই নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে আতংকে জেলাবাসী# ভারতে পাচার ৫ বাংলাদেশীকে বেনাপোলে ফেরত # রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু সমাধানে সারা বিশ্বের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ।# উল্লাপাড়ায় পরিশ্রম আর পরিচর্যায় সফল পটলচাষী ফকির জয়নাল# মাগুরা শ্রীপুরে সাংবাদিকে বৃদ্ধ বাবা সহ ৫ আওয়ামীলীগ নেতা কর্মির নামে মিথ্যা মামলা# বিএনপি-জামায়ত জোটের শাসন আর কোন দিন ফিরে আসবে না# মৌলভীবাজারে দীঘলগিজি স্কুলে একটি রাস্তার কারনে ঝড়ে পড়ছে শতাধিক কোমলমতি শিশু# ২০১৯-২০ সালের অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পরদিনই বেড়ে গেছে সোনার দাম।# ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি বাংলাদেশের# বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে উইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারালো ইংল্যান্ড।# অনির্বাচিত সরকারের বাজেট প্রণয়নের নৈতিক অধিকার নেই :মির্জা ফখরুল# চট্টগ্রামে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব# সাভারে ভয়ংকর লুঙ্গিবাহিনীর ১৭ ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধর# ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে নিম্নবিত্ত ও বিকাশমান মধ্যবিত্তের জন্য তেমন কোনো সুখবর নেই# রেমিটেন্সে প্রণোদনা প্রবাসীদের উৎসাহিত করবে# রাজধানীতে আজকালের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।# ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।# উপজেলা নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় বললেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম# গোবিন্দগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১০# উল্লাপাড়ায় ৮২ কোটি টাকার প্রকল্প রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ কাজে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও আলোচনা সভা
আজ রবিবার| ১৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

রাণীনগরের এজাদুল ভাঙ্গা মেরুদন্ড নিয়েই চালিয়ে যাচ্ছে জীবন সংগ্রাম




শাহরুখ হোসেন আহাদ, রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: অসহায় হতদরিদ্র ঘরের সন্তান এজাদুল ইসলাম (৩৮)। অর্থাভাবে লেখা পড়া করতে পারেননি তিনি। পড়া-লেখা ছেরে দিয়ে অন্যের বাড়ীতে কাজ করে সংসার চালাতেন। কিন্তু নিয়তির খেলা! কাজ করার সময় দেয়াল চাপা পরে মেরুদন্ড ভেঙ্গে যায়। হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ায় চিকিৎসা অভাবে গত ৭ বছর ধরে পঙ্গুত্ব বরণ করে কখনো মাদুর তৈরি, কখনো সিমিত আকারে হাঁস-মূরগী পালন আবার কখনো সিদ্ধ ডিমের ব্যবসা করে চলে তার জীবন সংগ্রাম। পঙ্গুত্বের কারনে ব্যবসার প্রসার ঘটাতে ব্যাংক, এনজিও বা সমিতি থেকে কোন ঋন পান না তিনি। ফলে ছোট-খাটো ব্যবসা করেই এক মা, স্ত্রী-সন্তান নিয়ে কোন মতে খেয়ে না খেয়ে সংসার চলছে তার। অসহায় পঙ্গু এজাদুল রাণীনগর উপজেলার কালীগ্রাম ইউনিয়নের করজগ্রাম উত্তরপাড়া গ্রামের জনাব আলীর ছেলে।
এজাদুল ইসলাম জানান, অভাব-অনাটনের সংসারে জন্ম নেয়ায় কোন মতে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়া লেখা করতেই অর্থাভাবে পড়া শুনা বন্ধ হয়ে যায়। মাত্র ১২ বছর বয়সে সংসারের ঘানি টানার দ্বায়িত্ব পরে তার ঘারে। অন্যের বাড়ীতে কাজ করে যে ক’টাকা পায় তা দিয়ে ভালই চলতো সংসার। কিন্তু নিয়তির কি খেলা গত ৭ বছর আগে একই গ্রামে মাটির বাড়ীর কাজ করতে গিয়ে অসাবধানতা বসত: দেয়াল চাপা পরে মেরুদন্ড ভেঙ্গে যায়। চিকিৎসা ব্যয় সামাল দিতে না পেরে অবশেষে পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়। সংসার জীবনে মা, স্ত্রী ও এক মেয়ে রয়েছে এজাদুলের। মেয়ে স্থানীয় স্কুলে ৮ম শ্রেনীতে লেখা-পড়া করে। পঙ্গু হবার পর থেকেই একটি আধা ভাঙ্গা হুইল চেয়ারে বসে শীতের সময় নিকটস্থ বাজারে সিদ্ধ  ডিম বিক্রি করে সংসার চালাতে হয়। সারাদিন বেচা-কিনা করে যে এক-দেড়শ টাকা আয় হয় তা দিয়ে খেয়ে না খেয়ে মেয়েটার লেখা-পড়া চালাতে হয়। অনেক সময় বিছানায় বসে মাদুর তৈরি করি। স্ত্রীর পালন করা হাঁস-মুরগীর ডিম থেকেও কিছু টাকা আয় হয়। এই দিয়ে কোন মতে খেয়ে না খেয়ে চলে সংসার। এজাদুলের দর্জির কাজ জানা থাকলেও সেলাই মেশিন কিনতে না পারার কারণে সেটাও থমকে গেছে। কোন সংস্থা থেকে ঋন নিয়ে যে সেলাই মেশিন  কিনবে অথবা ব্যবসার প্রসার ঘটাবে তাও কপালে জোটে না। কারণ, পঙ্গু হওয়ার অপরাধে সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক, এনজিও বা সমিতি থেকে তাকে ঋন দেয় না। একাধিক সংস্থায় আবেদন করেও কিস্তি দিতে পারবে না এমন আশংকায় তাকে ঋন দেয়া হয়নি। তার আকুতি, যদি সাধ্য মতো পুঁজি তাকে দেয়া হয় তাহলে ব্যবসা করে  মেয়ের লেখা-পড়া সহ সংসারটা ভাল চলতো।
উপজেলার কালীগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: সিরাজুল ইসলাম বাবলু মন্ডল জানান, ইতিমধ্যেই তাকে একটি পঙ্গু ভাতার কার্ড করে দেয়া হয়েছে। যদিও তা একটি সংসার চলার ক্ষেত্রে অতি সামান্য। আমি সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে তার জীবন-জীবিকা চলার জন্য সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করবো।


1