LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ বৃহস্পতিবার| ২২ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

বদলগাছীর সেই কোলা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হাট-বাজার উন্নয়নের নামে টাকা আত্মসাৎ অভিযোগের পুনঃতদন্ত



জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ নিরেন। নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার সেই কোলা ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান মোঃ এসকেন্দার র্মিজা বাচ্চুর বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিনের ওঠা অভিযোগ হাট-বাজার উন্নয়নের নামে বরাদ্দকৃত অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনার পুনরায় তদন্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার নওগাঁ জেলার স্থানীয় সরকার শাখা"র(ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক, আহসান হাবিব অভিযোগের বিষয় টি পুনরায় তদন্ত করেন। তদন্ত চলাকালীন সময়ে ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালকের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বদলগাছী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা "ইউএনও" মাসুম আলী বেগ। পুনরায় তদন্ত বিষয়টি চ্যানেল ফোর টিভি জানতে পেরে সহযোগী প্রতিনিধির সহযোগীতায় মোবাইল ফোনে মঙ্গলবার সন্ধা সারে ৭ টায় নওগাঁ জেলার স্থানীয় সরকার শাখা"র (ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক, আহসান হাবিবের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়। তিনি মঙ্গলবার কোলা ইউপি চেয়ারম্যান বাচ্চুর বিরুদ্ধে ওঠা হাট-বাজারের উন্নয়নের নামে টাকা আত্মসাৎ অভিযোগ টি পুনঃতদন্ত করেছেন তিনি কিন্তু তদন্তের বিষয়ে তিনি কোন রকম মন্তব্য করেননি। তিনি মন্তব্য না করলেও তদন্তের সময়ের কিছু উভয়পক্ষের আচরণিক তথ্য তুলে ধরে বলেন, তদন্ত চলাকালীন সময়ে চেয়ারম্যান পক্ষ ও অভিযোগকারী ইউপি সদস্য পক্ষ উক্ত দুই পক্ষেরি আচরণ তাহার ভাল লাগেনি বলে তিনি জানান। এর আগে বদলগাছী উপজলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি হাট-বাজার উন্নয়ন নামে বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ এর দায়ে কোলা ইউপি চেয়ারম্যান এসকেন্দার র্মিজা বাচ্চুর বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছিলেন। তদন্ত প্রতিবেদনটি বাদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নওগাঁ জেলাধীন স্থানীয় সরকার শাখায় পাঠিয়ে দিলে। প্রতিবেদনের সূত্রে নওগাঁর স্থানীয় সরকার শাখার (ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক, আহসান হাবিব অভিযুক্ত কোলা ইউপি চেয়ারম্যান বাচ্চুর বিরুদ্ধে কেন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে না এমন মর্মে কারণদর্শাও নোটিশ দেন। কোলা ইউপির চেয়ারম্যান বাচ্চুর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অসত্য বলে দাবী করলে তার চ্যালেঞ্জ সরুপে পুনঃতদন্তের আবেদন করেন। তারি পরিপ্রেক্ষি তে ৬ এ ফেব্রুয়ারি অভিযোগটি কোলা ইউপিতে এসে পুনঃতদন্ত করেছে নওগাঁর স্থানীয় সরকার শাখার (ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক। বদলগাছীর কোলা ইউপির কার্যালয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, নওগাঁর স্থানীয় সরকার শাখার (ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক, আহসান হাবিব ও বদলগাছী উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাসুম আলী বেগ।মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় কোলার ভান্ডারপুর বাজারে স্থাপিত কোলা ইউপি কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে দেখতে পান কোলা ইউপি কার্যালয়ের চেয়ারম্যান কক্ষে অভিযোগ কারীরা ও অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান বাচ্চু আগে থেকেই উপস্থিত হয়ে বসে আছেন। এমনকি তদন্তকারী অফিসার গণদের উপস্থিতি দেখে ইউপি কার্যালয় চত্ত্বরে হইহুল্লাশ পরিবেশে উভয়পক্ষের লোকজন ভীড় করছিলেন। তদন্তকারী অফিসার গণ কোলা ইউপি কার্যালয় এর চেয়ারম্যানের কক্ষে বসে অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত উভয়পক্ষের কথা শোনেন তিনি। ওপেন হাউজে উভয়পক্ষের কথা শোনার পর তদন্তকারী অফিসার উভয়পক্ষকে সাথে নিয়ে কোলার ভান্ডারপুর হাট-বাজারের প্রকল্পগুলো পরির্দশন করেন। পরিদর্শন সময়ে চেয়ারম্যানের পক্ষের লোকজন ও ইউপির সদস্যদের লোকজনের এক বাকবিতণ্ডায় লিপ্তও হলে পরিবেশ আরো অন্য পর্যায়ে যেতে লাগলে ততকালিন তদন্তকারী অফিসার, আহসান হাবিব ও ইউএনও মাসুম আলী বেগ উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার অনুরোধ জানিয়ে সুষ্ঠ তদন্তে সহযোগিতা করতে বলেন। পরিবেশ শান্ত করে দুপুরে ভান্ডারপুর বাজার থেকে তদন্তকারীগণরা সেখান থেকে কোলা হাট-বাজারের প্রকল্পগুলো পরির্দশনে যান। পরিদর্শন চলা সময়ে অভিযোগকারী ইউপি সদস্য মোঃ শাহিনুর ইসলাম বলেন, সত্য কখনো চাপা থাকে না সঠিক তদন্ত হলে সত্য প্রকাশ হবেই। পুনঃতদন্তেও ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হাট-বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের নামে টাকা আত্মসাৎ এর সতত্যা মিলেছে বলে জানা যায়। কিন্তু কোলা ইউপির অভিযুক্ত চেয়ারম্যান এসকেন্দার মির্জা বাচ্চু বলেন, আমি হাট-বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের নামে কোন অর্থ আত্মসাৎ করিনি আমার বিরুদ্ধে তোলা ইউপি সদস্যরা অসত্য অভিযোগ দিয়েছিলো। গত ৫ সেপ্টেম্বর কোলা ইউনিয়ন পরিষদের ছয়জন ইউপি সদস্য কোলা ইউপির চেয়ারম্যান এসকেন্দার মির্জা বাচ্চুর বিরুদ্ধে কোলা ইউপির কোলা হাট ও ভান্ডারপুর হাটের ২২ টি উন্নয়ন প্রকল্পের ৫১ লক্ষ ৩০ হাজার ৯৫১ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ এনে নওগাঁ জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলো। এবং পরে কোলা ইউপির ছয়জন সদস্য ও ভান্ডারপুর এবং কোলা বাজার বণিক সমিতির পৃথক অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর নওগাঁ জেলা প্রশাসক (ডিসি) আমিনুর রহমান, ও বদলগাছীর ইউএনও মাসুম আলী বেগকে অভিযোগটি তদন্তের নির্দেশনা দিয়ে একটি পত্র দিলে। ইউএনও ওই দিনই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, হাসান আলীকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলেন। উক্ত তদন্ত কমিটির অন্য দুইজন সদস্য হলেন, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, মোঃ তারিকুল ইসলাম ও বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (BMDA) সহকারী প্রকৌশলী,মোঃ হারুন-অর-রশিদ। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হাট-বাজার উন্নয়নের ২২ টি প্রকল্প সরেজমিনে পরির্দশন করেছিলেন। এমনকি তারা তদন্তে হাট-বাজার উন্নয়নের ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে টাকা উত্তোলনের সত্যতা পেয়ে। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হাট-বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান এসকেন্দার মীর্জা বাচ্চুকে আইনের আওতায় এনে তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার সুপারিশ করেছিলেন প্রথম তদন্তকারী কমিটি।


1