LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ বৃহস্পতিবার| ২২ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

নড়াইলের এক অনন্য সূচশিল্পী ইলোরা পারভীন




এস এম আলমগীর কবির নিজস্ব প্রতিবেদক


নড়াইলের মেয়ে সূচশিল্পী ইলোরা পারভীনের (৪৪) নিপূন হাতে সূচ-সূতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যসহ বিশ্ববরেণ্যদের দৃষ্টি নন্দন ছবি তৈরী করে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের নজর কেড়েছেন। তাঁর সেলাই করা ছবিতে সত্যিকারের জীবন্ত মানুষের প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে।

ইলোরার পৈত্রিক নিবাস নড়াইল পৌর এলাকার মাছিমদিয়া গ্রামে। এ গ্রামেই বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের জন্ম। সুলতানের বাড়ির পাশেই ইলোরার জন্মভিটা। ইলোরার পিতা মরহুম আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের সমবয়সী ও বাল্যবন্ধু ছিলেন। শৈশবকাল থেকে ইলোরার ছবি আঁকার প্রতি শখ ছিল। যে কারণে এসএম সুলতানের অনুপ্রেরণায় ছবি আকার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি হয়। সেই আগ্রহ থেকেই তিনি বঙ্গবন্ধুর পরিবারসহ বিশ্ববরেণ্যদের ছবি আঁকার স্বপ্ন দেখেন। অবশেষে সে আশা বাস্তবে রুপদান করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। একটি বইয়ের কভারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি দেখে ১৯৯৮ সালে সূচ-সূতা দিয়ে বুননের মাধ্যমেই ইলোরা এ পথে হাঁটতে শুরু করেন। সূচ-সূতা দিয়ে সেলাই করে তৈরী করা ছবি যেন জীবন্ত মানুষের অবিকল রুপ। এ এক অসম্ভব বাস্তবতা। যে কোন লোক এ দৃষ্টিনন্দন ছবি দেখে সহজেই আশ্চর্যান্বিত হয়ে যাবে। তিনি ১৯৯৮ সাল থেকে অদ্যাবধী মোট ৩৫ টি শিল্পকর্ম শেষ করতে সক্ষম হয়েছেন । তাঁর সূচশিল্পে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য পেয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর পরিবার ও বিশ্ববরেণ্যদের ছবি। বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের চিত্রকর্মের সংখ্যা ১৭ টি। এর মধ্যে দাঁড়ানো অবস্থায় একক বঙ্গবন্ধু, তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধুর বাবা-মা, শেখ রাসেল, শেখ হাসিনা ও জয়ের হাস্যোজ্জ্বল মুখ,সুলতানা কামাল, ফজিলাতুন্নেসা, শেখ হাসিনার পাঁচ ভাইবোনের গ্রুপ ছবি। বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে চিত্রকর্মটি ফ্রেমসহ দৈর্ঘ্য ৩০ ইঞ্চি আর প্রস্থ ২১ ইঞ্চি।

সম্প্রতি ইলোরার সূই সূতায় তৈরী করা শেখ রাসেলের একটি ছবি ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে প্রদর্শণ করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু পরিষদের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সূই সূতায় ইলোলার নিপূণ হাতে সেলাই করা ছবি দেখে আনন্দে অবিভূত হয়ে যান। এ ধরনের দূর্লভ ছবি সারা বিশ্বে চীন ও ভিয়েতনামে কিছু দেখা যায় বলেও মন্তব্য করেন তারা।
 সূচ-সূতার এই কারিগর সূচশিল্পী ইলোরা পারভীন নড়াইলের গৌরব। এ সকল ছবি সেলাই করতে পেরে ইলোরা গর্বিত। স্বামী, সংসার ও  দু’মেয়েসহ পরিবারের সবকাজ সামলিয়ে সূচ-সূতায় আঁকা বুননশিল্পী হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করেছেন নিঃঅহংকার ও প্রচার বিমূখ ইলোরা পারভীন। ইলোরা সাত ভাইবোনের মধ্যে পঞ্চম। ১৯৯৮ সালে ইডেন মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে দর্শন বিভাগে ২য়  শ্রেণিতে মাষ্টার্স পাস করার পর জন্মভূমি নড়াইলের মাছিমদিয়ায় ফেরেন তিনি। ১৯৯৯ সালে তিনি মো. ফয়জুল্লাহ বিশ্বাসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসার জীবনে পা রাখেন। তার দুই মেয়ে হুমাইয়রা ফয়েজ ৮ম শ্রেণিতে ও নাফিসা ফয়েজ ২য় শ্রেণিতে ভিকারুন্নিসা কলেজের আজিমপুর শাখায় অধ্যয়নরত। এ পর্যন্ত নিজ শিল্পকর্মগুলো কোথাও প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেননি তিনি। তবে ইলোরার ছবিগুলো নিয়ে শিগগিরই ঢাকা আর্ট গ্যালারীতে একটি প্রদর্শণীর আয়োজনের কার্যক্রম চলছে।

ইলোরা তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে আমার শিল্পের হাতেখড়ি। বড় ভাই জেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। পারিবারিকভাবে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। যে কারণে বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে চিত্রকর্মের পাশাপাশি ভাষা আন্দোলন, রায়েরবাজারের বধ্যভূমি, জাতীয় সম্পদ, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দ্রাগান্ধী, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম, চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান, নববধূ, পাখি, নিজের মা নূরজাহান প্রমূখ ছবি আঁকার চেষ্টা করেছি মাত্র। বাল্যকাল থেকেই পাঞ্জাবী, শাড়ি, বিছানার চাদরসহ নানা রকম পোষাকে সূচ-সুতার দৃষ্টি নন্দন শৈল্পিক কাজ করে অভ্যস্ত। এ শিল্প কর্মে ছবির গলা, হাত, পরনের কাপড়ের ভাঁজ ফুটিয়ে তুলতে বেশি সময় অতিবাহিত হয়। কোনো কোনো ছবির চোখ আকতেই ১৫-২০ দিন সময় লেগে যায়।’




1