LatestsNews
# মৗলভীবাজারে মনু ও ধলাই নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে আতংকে জেলাবাসী# ভারতে পাচার ৫ বাংলাদেশীকে বেনাপোলে ফেরত # রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু সমাধানে সারা বিশ্বের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ।# উল্লাপাড়ায় পরিশ্রম আর পরিচর্যায় সফল পটলচাষী ফকির জয়নাল# মাগুরা শ্রীপুরে সাংবাদিকে বৃদ্ধ বাবা সহ ৫ আওয়ামীলীগ নেতা কর্মির নামে মিথ্যা মামলা# বিএনপি-জামায়ত জোটের শাসন আর কোন দিন ফিরে আসবে না# মৌলভীবাজারে দীঘলগিজি স্কুলে একটি রাস্তার কারনে ঝড়ে পড়ছে শতাধিক কোমলমতি শিশু# ২০১৯-২০ সালের অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পরদিনই বেড়ে গেছে সোনার দাম।# ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি বাংলাদেশের# বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে উইন্ডিজকে ৮ উইকেটে হারালো ইংল্যান্ড।# অনির্বাচিত সরকারের বাজেট প্রণয়নের নৈতিক অধিকার নেই :মির্জা ফখরুল# চট্টগ্রামে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব# সাভারে ভয়ংকর লুঙ্গিবাহিনীর ১৭ ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধর# ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে নিম্নবিত্ত ও বিকাশমান মধ্যবিত্তের জন্য তেমন কোনো সুখবর নেই# রেমিটেন্সে প্রণোদনা প্রবাসীদের উৎসাহিত করবে# রাজধানীতে আজকালের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।# ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।# উপজেলা নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় বললেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম# গোবিন্দগঞ্জে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১০# উল্লাপাড়ায় ৮২ কোটি টাকার প্রকল্প রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ কাজে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও আলোচনা সভা
আজ রবিবার| ১৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বাড়ির মেয়ে হয়ে অতিথি আপ্যায়ণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : আতিথেয়তায় খুশি অতিথিরা




গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আথিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে সেখানে যাওয়া সকল অতিথিরা। ছিলেন রাষ্ট্রের ও সরকারের সামরিক-বেসামরিক উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা। সেখানে তারা সবাই পেট পুড়ে খেয়েছেন। তবে তার চেয়েও বড় কথা তারা মুগ্ধ হয়েছেন জাতির জনকের কন্যার অতিথি পরায়ণতায়। ১৭ মার্চ ছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন এ দিনে টুঙ্গিপাড়ার নিজ বাড়িতে অতিথিদের আপ্যায়ণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই।
অতিথিদের মধ্যে কয়েকজনই জানিয়েছেন, শেখ হাসিনা নিজ হাতে তাদের খাবার তুলে যেমন দিয়েছেন, তেমনি সারাক্ষণ তদারকিও করেছেন কে কোনটা নেবেন তার। কে কোন পদটা মিস করলেন, কার জন্য কোন খাবার বেশি পছন্দ তাকে যেনো সেটা দেওয়া হয় এ সব দেখেছেন। কে একটু বেশি খেতে পারবে, কে কম খাচ্ছেন এ সবেও নজর ছিল তার। অতিথিরা বলছিলেন,  আবহমান কালের ঐতিহ্যবাহী বাঙালি পরিবারের আতিথেয়তা তারা পেয়েছেন টুঙ্গিপাড়ায়।
১৭ মার্চ সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবন চত্বরে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে সরকার প্রধান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে টুঙ্গিপাড়ায় যান শেখ হাসিনা। সেখানে টুঙ্গিপাড়ায় চিরনিদ্রায় শায়িত বঙ্গবন্ধুর মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানে অংশ নেন। পরে সকল রাষ্ট্রীয় ও দলীয় আনুষ্ঠানিক কর্ম ব্যস্ততা শেষে আগত অতিথিদের জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজন করেন।
অতিথিরা বলেন, সে সময়টিতে শেখ হাসিনা রীতিমতো হয়ে ওঠেন ওই বাড়িটির মেয়ে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা হিসেবে শুরু করেন অতিথি আপ্যায়ণ। অতিথিদের খাবার পরিবেশন করা হলে তার তদারকি যখন করছিলেন শেখ হাসিনা, অন্যরা তখন বার বার বলছিলেন, তিনি নিজেও যেনো খেয়ে নেন। কিন্তু জাতির জনকের কন্যা তা করেননি। বার বারই বলেছেন, অতিথিরা খাওয়া শেষ করলেই তিনি খাবেন।
কয়েকজন অতিথি জানান, দুপুরের আহারে নানা পদের খাবারের আয়োজন ছিল। তবে তাদের কাছে খাবারের স্বাদের চেয়েও বড় হয়ে দেখা দিয়েছিলো প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু কণ্যার আতিথেয়তা। শেখ হাসিনার এমন আপ্যায়ণে মুগ্ধ হয়েছেন অতিথিদের সকলেই।
এ সময় শিল্পমন্ত্রী আমির হোসনে আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কৃষিমিন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, এলজিআরডি এবং সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ দিলু, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদষ্টো মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিকী, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল¬াহ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, আবুল হাসনাত আব্দুল¬াহ, দলের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, হাবিবুর রহমান সিরাজ, এস এম কামাল হোসেন, আমিরুল আলম মিলন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও মন্ত্রী পরিষদ সচিব মো: শফিউল আলম, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো: নজীবুর রহমান, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মুহাম্মদ শফিউল হক, নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজাম উদ্দিন আহমেদ, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আবু এসরার, পুলিশের আইজি ড. মো: জাভেদ পাটোয়ারী, তথ্য সচিব আব্দুল মালেক, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন এবং আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারাসহ সরকারের পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক র্কমর্কতারাও উপস্থিত ছিলেন।


1