LatestsNews
# গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য # এডিসের লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি অভিযানে নগরবাসীর অসহযোগিতার অভিযোগ# চামড়া নিয়ে টানাপোড়েন থামছেই না - নিয়মিত ক্রেতাদের তৎপরতা দেখা যায়নি। # কাশ্মীর ইস্যুতে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বিবৃতি প্রকাশ# দাবি-দাওয়া মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা# ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিচারকের কক্ষে বিরিয়ানি খান রাজসাক্ষী জজ মিয়া# গাইবান্ধার ঝিনুকের তৈরী চুন উৎপাদনকারি যুগি পরিবারগুলো এখন বিপাকে# শিক্ষা নীতিমালা অনুমোদন করায় মোবারক হোসেন প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অভিনন্দন# এডিস মশার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসছেন উচ্চ পর্যায়ের বিদেশি বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধিদল। # শেখ হাসিনাকে ভারত সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। # মেঘনা নদীর ভাঙন গাফিলতি করা সেই প্রকৌশলীকে কী শাস্তি দেওয়া হয়েছে? : প্রধানমন্ত্রী# সংসদ সদস্য না হয়েও বিলাসবহুল গাড়িতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত# দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুর্নীতির বস্তাভর্তি টাকাসহ হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার# নায়াখালীতে সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আহত ১২# পচা মাছ মজুদ ও বিক্রির দায়ে স্বপ্ন এক্সপ্রেস সুপার শপকে জরিমানা# ভারতীয় দলের ওপর হামলার শঙ্কা, পিসিবিকে মেইল# ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের ৬৬ হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা# মিন্নির জামিন শুনানি, যা বললেন হাইকোর্ট# ভারতের বহুল আলোচিত ইসলামিক বক্তা ডা. জাকির নায়েক এবার মালয়েশিয়ায় নিষেধাজ্ঞার মুখে# নেত্রীকে মুক্ত করতে ব্যর্থ বিএনপি এখন বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে মন্তব্য : ওবায়দুল কাদের।
আজ শনিবার| ২৪ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

উল্লাপাড়ায় দু’যুগেও নিজ সীমানায় প্রতিষ্ঠা হয়নি সদর ইউপি কার্যালয় বর্তমান ভবনটি ঝুকিপূর্ণ



সাহারুল হক সাচ্চু,উল্লপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া সদর ইউপি কার্যালয়টি দু’যুগেও নিজ সিমানা এলাকায় প্রতিষ্ঠা হয়নি। এ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়টি আজও পৌরসভা এলাকার মধ্যেই রয়েছে। এ ইউপি কার্যালয়ে স্থানান্তরে জায়গা নিয়ে মতবিরোধে তা আর হয়নি। উল্লাপাড়া পৌর এলাকায় আগের কার্যালয় থেকেই ইউনিয়নটির প্রশাসনিক যাবতীয় কার্যক্রম চলছে। এদিকে বর্তমান কার্যালয়টি একটি জরাজীর্ণ ঝুকিপূর্ন ভবন হয়েছে। এ ইউনিয়ন কার্যালয়ে যেতে অন্যের জমি পেরিয়েই যেতে হয়। উপজেলা সদরে হাট খোলা এলাকায় স্থানীয় কামিল মাদরাসার পাশে নিজস্ব দোতলা ভবনে ইউনিয়নটির কার্যালয়। এ্ ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব জমির পরিমান প্রায় ২৪ শতক। বিগত ১৯৯৪ সালে উল্লাপাড়া পৌরসভা গঠন হয়। সে সময়ে উল্লাপাড়া ইউনিয়নভুক্ত উপজেলা সদর সহ ২৩টি গ্রাম নিয়ে পৌরসভাটি গঠন হয়। এতে উল্লাপাড়া ইউনিয়নের আয়তন ও গ্রামের সংথ্যা কমে যায়। বর্তমানে ইউনিয়নটির গ্রামের সংখ্যা ১৪টি এবং আয়তন ৩ হাজার ৬শত ৫১ দশমিক ৯৭ একর। এ ইউনিয়নের ওয়ার্ড গুলো পুনগঠন হয়েছে। এসব হলেও ইউপি কার্যালয়টি নিজ সীমানা এলাকায় হয়নি। স্থানীয় কামিল মাদরাসার মাঠ পেরিয়ে বর্তমান কার্যালয়ে সবাইকে আসা-যাওয়া করতে হয়। কেননা ইউনিয়ন কার্যালয়টি তার নিজস্ব জায়গায়। এ কার্যালয়ে আসা-যাওয়ায় সরকারী জায়গা-রাস্তা নেই। প্রতিদিনই ইউনিয়নটির বিপুল সংখ্যক জনতা কার্যালয়ে তাদের প্রয়োজনে আসে। এর উপর মাসে একাধিকবার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক জনতার সমাগম ঘটে। এ সময় মাদরাসাটির শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা বেশ ব্যাঘাত হয়। বিগত প্রায় চার  বছর আগে নিজ সীমানা এলাকায় ইউনিয়নটির নিজস্ব কার্যালয়টি স্থানান্তরের মাধ্যমে স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়। বিগত চেয়ারম্যান আলহাজ মোঃ আকমাল হোসেন এ উদ্যোগ নেন। এ ইউনিয়নের মধ্যে বাঁখুয়া পশ্চিমপাড়া (মিলপাড়া) এলাকায় জমি কেনা হয়। উল্লাপাড়া কামিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষ উল্লাপাড়া সদর ইউপি’র নামে এ জমি কেনে। জানা গেছে, চুক্তি হয় মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ইউপির নামে জমি কিনে দিবে এর বিনিময়ে মাদরাসা বরাবর ইউপি’র বর্তমান জায়গা স্থানান্তর করা হবে। এ জমি কেনার আগে কার্যালয়ের জায়গা নিয়ে এলাকায় প্রভাবশালী মাতব্বর শ্রেণী ব্যক্তি বিশেষের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দেয়। আর জমি কেনার পর মতবিরোধ আরো জোরালো হয়। এমন অবস্থায় মাদরাসা কর্তৃপক্ষ তাদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। জানা গেছে, বাখুয়া গ্রামের প্রভাবশালীদের ক’জন চাইছে ইউপি কার্যালয়টি পূর্বপাড়ায় (ওয়াবদা এলাকায়) হোক। অপরদিকে ভদ্রকোল গ্রামবাসীরা চাইছে তাদের এলাকায় কার্যালয়টি হোক। উল্লাপাড়া সদর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ মোঃ আকমাল হোসেন এ কার্যালয়টি স্থানান্তরে প্রয়োজনীতা অনুভব করে তার মেয়াদের শেষকালে প্রায় নয় মাস আগে উদ্যোগ নিয়ে সরকারি বিভিন্ন মহলে লিখিত আবেদন জানান। তিনি বিষয়টি নিয়ে উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেছেন। এ আবেদনে ইউনিয়ন পরিষদ স্থানান্তর না হওয়ায় সরকারের আরো আটটি দপ্তরের কার্যক্রম সেবা সঠিক ভাবে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন। উল্লাপাড়া সদর ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান মো: আব্দুস সালেক জানান, তিনি নিজ ইউনিয়ন এলাকায় ইউপি কার্যালয়টি প্রতিষ্ঠার জোড়ালো উদ্যোগ মাঝে মধ্যেই নিচ্ছেন। তার ইউনিয়নের গন্যমান্য ব্যক্তিদের মতামতের ভিত্তিতে জায়গা নিধারণে আলোচনা বৈঠক করছেন। উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আরিফুজ্জামান জানান, একটি ইউপি কমপ্লেক্স নির্মাণে কমপক্ষে ২৫ শতক জায়গা দরকার। উল্লাপাড়া সদর ইউপি কার্যালয়টি ইউনিয়ন এলাকায় প্রতিষ্ঠা নিয়ে একাধিকবার আলোচনা ও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন,  ইউনিয়ন এলাকার সুবিধাজনক স্থানে কার্যালয়টি স্থানান্তর করা হলে নাগরিক সুবিধা ও ইউনিয়ন পরিষদের যাবতীয় কার্যক্রমে গতি বাড়বে। 

 


1