LatestsNews
# ব্যাচেলর খ্যাত সালমান খান অবশেষে বিয়ের জন্য নায়িকা পাত্রী খুঁজে পেয়েছেন# সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহত # নকশা জালিয়াতির অভিযোগে কাসেম ড্রাইসেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসভীর-উল-ইসলামকে গ্রেফতার।# ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে নার্স ও স্টাফদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা# রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।# হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির বিভক্তি আরো স্পষ্ট হয়ে উঠছে।# ডেঙ্গু মোকাবিলায় সতর্কতা ও সচেতনতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা# ঈদের আগে পরে মোট ১৩ দিনে এবার সড়ক, নৌ ও রেল পথে ২৪৪টি দুর্ঘটনায় মোট ২৫৩ জন নিহত ও ৯০৮ জন আহত।# গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতালের বেহাল অবস্থা # ভারতে নিহত মাইনুল ও তানিয়া মরদেহ দেশে আনা হয়েছে# যেভাবে চামড়ার দাম কমানো হয়েছে তা দূরভিসন্ধিমূলক:মসিউর রহমান রাঙ্গা।# বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধ।# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# চলনবিলে পর্যটকের ঢল# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# সৌদি আরবে বাংলাদেশি হাজিদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন# পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের দুজন নাগরিক। # জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবে আখ্যা দেয়া হলো# ডেঙ্গু প্রতিরোধ-সচেতনতায় 'স্টপ ডেঙ্গু' অ্যাপ চালু # অবশেষে টাইগারদের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ডোমিঙ্গাকে।
আজ সোমবার| ১৯ আগস্ট ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

বাবা-মা সেজে বিদেশে পাচার কিশোরীকে, মৃত্যুর পর অনুদানের টাকা আত্মসাৎ



শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 4TV 

গাজীপুরের শ্রীপুরে বাবা-মার ভালোবাসার জালে ফাঁসিয়ে ঝুমুর নামে এক কিশোরীকে প্রথমে ওমান পরে সৌদি আরবে পাঠায় এক দম্পতি। এর ছয় মাসের মধ্যে সৌদি আরবের পাশবিক অত্যাচার সহ্য না করতে পেরে রিয়াদে আত্মহত্যা করে ঝুমুর। এ খবর জানতে পেরে ওই দম্পতি মৃতদেহ না এনে বরং ঝুমুরের পরিবার সেজে অনুদানের  টাকার জন্য আবেদন করে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে। এর কিছু দিন পরে টাকা বরাদ্দ হয় ওয়েজ অনার্স কল্যাণ বোর্ডের কাছ থেকে। পরে ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে টাকাও তুলে নেয় ওই দম্পতি। 

৫নং কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ারিশ সনদপত্রে লেখা রয়েছে ২৯/০৬/২০১৭ সালে ঝুমুর সৌদি আরবে আত্ম হত্যা করেন,অপর দিকে আরেক কাগজ জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস প্রবাসী কল্যাণ আবেদন পত্রে লেখা রয়েছে যে সৌদি আরবে ঝুমুর ৫/০৭/২০১৭ সালে অসুস্থ হয়ে স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরন করেন।

ঘটনাটি ঘটে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের বেলদিয়া গ্রামে। অভিযুক্ত দম্পতি উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের বেলদিয়া গ্রামের মৃত জামির উদ্দিনের ছেলে মো. ফারজুল ইসলাম ও তাঁর স্ত্রী জহুরা খাতুন। 

স্থানীয়রা জানান, ঝুমুর বাড়ি গাইবন্ধা জেলার কোন একটি উপজেলায়। আজ থেকে প্রায় চার বছর পূর্বে বান্ধবী তামান্নার সাথে পারি জমায় ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার মাস্টার বাড়ি এলাকায়। চাকুরী শুরু করে একটি গার্মেন্টস কারখানায়। বান্ধবীর পাশ্ববর্তী জেলার শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নে বাড়ি। এখানে মাঝে মধ্যে ঘুরতে আসতো সে। এই সুযোগে ফারজুল ও জহুরা দম্পতি ওই কিশোরীকে নিজেদের মৃত মেয়ের মত দেখা যায় বলে, বিভিন্ন সময় কথাবর্তায় মুগ্ধ করার চেষ্টা চালিয়ে যেতো। এক সময় তারা সফল হয়ে যায়। পালিত মেয়ে বানিয়ে বাড়িতে তুলে ঝুমুরকে। এর ঠিক কিছু দিন পরেই বেশি টাকা কামানোর লোভ দেখিয়ে এক দালালের মাধ্যমে প্রথমে ওমান পরে সৌদি আরবে পাঠিয়ে দেয়। এরপর মাঝে মাঝে ওপার থেকে এপারে কল দিয়ে কান্নায় ভেঙে পরতো ঝুমুর। এসব পাশবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে, গত বছরের জুন মাসের ২৯ তারিখে রিয়াদে আত্মহত্যা করেন । তবে কি কারনে ঝুমুর আত্ম হত্যা করে তা সঠিক কোনো কারন বলতে পারেনি ওই দম্পতি । এ খবর প্রায় সাত মাস পরে জানতে পেরে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ওয়ারিশ, জন্ম সনদসহ আর্থিক অনুদানের সুপারিশের আবেদন পত্রেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছ থেকে জালিয়াতি করে স্বাক্ষর করিয়ে নেয় ফারজুল দম্পতি। এর কিছু দিন পরে আর্থিক অনুদান হিসাবে তিন লক্ষ টাকা পায় ওই দম্পতি। এই টাকা ভাগাভাগি নিয়ে ফারজুল ইসলাম ও তার ছেলে সোহেলের  সাথে প্রায় সময় ঝগড়া বিবাদ হয়। এরপরই স্থানীয় লোকজন জানতে পারে । ঘটনাটি জানাজানি হলে ক্ষোভে ফেটে যায় পুরো গ্রাম।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জন বলেন, এই দম্পতি এর আগেও এক মেয়েকে নিজেদের মেয়ে বানিয়ে প্রায় বছর ক্ষাণিক বাড়িতে রাখে। পরে আর কোন দিন ওই মেয়েকে পাওয়া যায়নি। 

এমন খবর শুনে সংবাদকর্মীরা ছুটে যায় ওই বাড়িতে। গিয়ে ফারজুল ইসলাম ও তাঁর স্ত্রী জহুরা খাতুনকে ঝুমুর আসল মা-বাবা কিনা জানতে চাইলে প্রথমে রাগান্তিত হয়ে বলে তারাই মা-বাবা। পরে অবশ্য পালিত মেয়ে বলে দাবি করেন, কিন্তু কোথা হতে পালতে আনাহয়েছে তা বলতে রাজি হয়নি ওই দম্পতি।  তাদের নিজের মেয়ে না বলে সব কথা স্বীকার করে ফারজুল ইসলাম বলেন, তাকে আমরা বেশ কয়েক বছর পেলেছি। সে সেচ্ছায় বিদেশ যেতে চেয়েছিল। আমরা পাচার করেনি। আর ভুয়া কাগজপত্রের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, আমাদের একজন সরকারি কর্মকর্তা সব ব্যবস্থা করে দিছে।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রেহেনা আকতার বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানতাম না। তবে দ্রæত বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 


1