LatestsNews
# এবছর শিক্ষা খাতে বাজেটের আকার বাড়লেও তা শতাংশে কমেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।# পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বাংলাদেশি ও চীনা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ চীনা শ্রমিক আহত হয়েছেন।# দেশে ফলের উৎপাদন বাড়াতে প্রতিনিয়ত চলছে নানা গবেষণা- কৃষকদের উৎসাহিত করতে যত আয়োজন# মোবাইল ফোনে বাংলায় এসএমএস (মেসেজ) পাঠালে খরচ অর্ধেক ছাড় দেয়া হবে।# বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হলেন সেলিমা ও টুকু# মানুষের খাদ্য তালিকার প্রাণীর এসব খাবার এ যেন মানুষ মারার কারখানা# রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেটে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।# আমিরাতে প্রথম বাংলাদেশির গোল্ডেন ভিসা অর্জন# 'মোবাইল রিচার্জে শুল্ক বাড়ানোয় ক্ষতিগ্রস্ত হবে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা'# কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল্লাহ সবুজ নির্বাচিত# লাকসামে স্কুলছাত্রী ধর্ষনের শিকার, ধর্ষনকারী গ্রেপ্তার# দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া কঠিন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।# রাজধানীতে বিশৃঙ্খলভাবে দেয়াল লিখন ও গাছে বিজ্ঞাপন লাগালে কঠোর ব্যবস্থা'# পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ বা পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে এখন চলছে গণনা।# খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি নির্ভর করছে আদালতের ওপর।# রাজধানীর কল্যাণপুরের রাজিয়া পেট্রোল পাম্পে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।# সালথায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র শিক্ষকদের মাঝে পুরস্কার বিতরন# ঝিনাইদহে মসজিদের মোয়াজ্জিনকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা !# অবশেষে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দেয়া হচ্ছে।# শুধু সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্যই নয়, দলের আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার জন্য জয়ই দরকার ছিল
আজ বুধবার| ১৯ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

৩'শ সংসদীয় অাসনে অা'লীগের প্রার্থিতায় হ-য-ব-র-ল অবস্থা : সবায় মনোনয়ন প্রাপ্ত বলে অাগাম প্রচারে"



সদরুল অাইন 4TV
 
একাদশ সংসদ নির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে অাসছে, প্রতিটি অাসনে অা'লীগের একাধিক প্রার্থিদের মধ্যে দুরত্ব ততই বাড়ছে। এসব কথিত প্রার্থিদের এলাকার লোকজন না চিনলেও তারা দলটির মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি করে ভোটারদের বিভক্তিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করছে।পরিচিত বা  নাম পরিচিয়হীন সকল প্রার্থিরাই প্রধানমন্ত্রী কতৃক মনোনয়ন প্রাপ্ত বা সবুজ সংকেত প্রাপ্ত বলে শো'ডাউন ও সভা-সমাবেশে প্রচার করছে। 
 
কোন কোন অাসনে এমনও প্রচার রয়েছে যে, শেখ হাসিনা ফোন করে তাকে মনোনয়ন দিয়ে দিয়েছেন। অাগামি মাসে প্রধানমন্ত্রী ফোন করে প্রার্থিতার চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন, এমন প্রচারনাও চালাচ্ছেন অনেক অাসনের প্রার্থি ও তাদের অনুসারিরা। 
 
দেশের সংসদীয় ৩'শ অাসনের বর্তমান চিত্র বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যে,  প্রতিটি অাসনে দলটিতে ৩ থেকে ১২ জন প্রার্থি রয়েছে। এদের মধ্য অনেকের নাম পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট এলাকার ভোটাররা জানেন না।কিন্তু  স্থানীয় সাংবাদিকদের হাত করে সংবাদপত্র, ফেসবুকসহ বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে তারা সরোব প্রচারণা চালাচ্ছে। 
 
 অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, কোন কোন অাসনে বর্তমান অা'লীগের সাংসদ, এমপি পুত্র ও অন্যান্য প্রার্থিরা কেন্দ্রের অমুক নেতাকে ২'শ কোটি বা বিভিন্ন অংকের টাকার বিনিময়ে কিনে  নিয়েছেন এবং কেন্দ্রিয় প্রভাবশালী এসব নেতাদের সুপারিশে প্রধানমন্ত্রী থেকে তাদের ভাগের প্রাপ্ত অাসন থেকে টাকার বিনিময়ে সংশ্লিষ্ট অাসন কিনে নেওয়া হয়েছে বলেও জনগনের কাছে প্রচার করা হচ্ছে। কোন কোন অাসনের সম্ভাব্য পপ্রার্থএিরা ককেন্দস্রবিয় শীর্ষ নেতাদের না পর্যন্ত প্রচার করছে যে তারা টাকার বিনিময়ে তাদের মনোনয়ন পাইয়ে দেবেন।এসব অপ-প্রচারণার কারনে একদিকে ত্যাগী সৎ জনপ্রিয় নেতারা যেমন অাতঙ্কিত অপরদিকে জনমনে বিভ্রান্তি ও বিভক্তি প্রকট অাকার ধারন করছে।যার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে অাসন্ন সংসদ নির্বাচনে এতে সন্দেহের অবকাশ নেই।
 
 প্রতিটি অাসনে দলটিতে একাধিক প্রার্থি মনোনয়ন প্রত্যাশার পিছনে চমকপ্রদ তথ্য পাওয়া গেছে। জানা গেছে, অা'লীগের জনপ্রিয় নেতাদের পাশাপাশি ব্যবসায়ি, বেসরকারি পদস্থ কর্মকর্তা, এলাকার গড-ফাদারসহ এমনকি জনপ্রিয়তা হারানো বর্তমান এমপিরা পর্যন্ত মনে করছেন, অাসন্ন সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার সরকার অাবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় অাসীন হবেন।কাজেই যত টাকাই লাগুক না কেন,  কেন্দ্রিয় নেতাদের হাত করে নৌকার টিকেট অানতে পারলে নিশ্চিত এমপি হওয়া যাবে। 
 
এ কারনে নাম পরিচয়হীন ব্যক্তিরাও এবার নৌকার টিকেট প্রাপ্তিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তারা প্রচার মাধ্যমগুলোতে অঢেল টাকা ঢালছেন।এরা কেন্দ্র ও জনমনে নিজেদের জনপ্রিয়তার মিথ্য প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হয়ে পড়েছেন।এ কাজে তারা সম্পৃক্ত করছেন এলাকার তরুণ বেকার যুব সমাজকে তাদের প্রচারণার কাজে।
 
 জানা গেছে,  প্রায় প্রতিটি অাসনে উঠতি নবাগত মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কারনে অনেকটাই কোন ঠাঁসা দলটির ত্যাগী জনপ্রিয় প্রার্থিরা। এসব নবাগত মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কারনে প্রকৃত জনপ্রিয় ও যারা জনমত জরিপে এগিয়ে রয়েছেন এবং নৌকার টিকেট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তাদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ কাজ করছে কেন্দ্রের উদাসীনতার কারনে। 
 
সরকারের গোয়েন্দা দফতরসমুহ এ ব্যাপারে অবহিত থাকলেও কেন্দ্র থেকে এদের দমন বা নিরুৎসাহীত করা হয়নি এখন পর্যন্ত। ফলে মনোনয়ন অাশংকা বুকে নিয়ে এসব নাম পরিচয়হীন প্রার্থিদের মিথ্যে প্রচারণা নিরবে মুখ বুজে সহ্য করতে হচ্ছে অধিকাংশ অাসনের জনপ্রিয় প্রার্থিদেরকে। 
 
তাদের মধ্যে এক ধরনের চাপা ক্ষোভ হতাশা ছড়িয়ে পড়েছে কেন্দ্রের নিরবতায়।


1