LatestsNews
# কুড়িগ্রামে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ৬জন গ্রেপ্তার# গাজীরহাট ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় # শিরোমণি স্পোর্টিং ক্লাব আয়োজিত ৮দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন# শৈলকুপায় অর্ধশত বছরেও আলোর মুখ দেখেনি স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসা!# কালীগঞ্জে পিতা হত্যার দায়ে পুত্রের যাবজ্জীবন কারাদন্ড# ‘আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের কাজে মন্থর গতি’# রাজধানীর সদরঘাটে লঞ্চের ধাক্কায় ডিঙি নৌকা ডুবে নিখোঁজ দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।# ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেলরুটে আন্তঃনগর রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে সকল প্রকার ট্রেন চলাচল বন্ধ # পলিথিন থেকে জ্বালানি তেল উৎপাদন উদ্ভাবক জামালপুরের তৌহিদুল ইসলাম।# সিলিন্ডার পুনঃপরীক্ষার সনদ ছাড়া গ্যাস মিলবে না গাড়িতে# প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রাখতে দেশীয় মোবাইল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো প্রস্তাবিত বাজেটে বেশকিছু শুল্ক সুবিধা পাচ্ছে।# প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মান বন্ধ রয়েছে গ্রামবাসীদের আবেদন জায়গা পুনঃনির্ধারন# মেহেরপুরের গাংনীতে দু’পক্ষের গোলাগুলিতে মাদক ব্যবসায়ী নিহত# ‘নারী ও কন্যা শিশুর প্রতি সংহতি’ বিষয়ে আলোচনা সভা# পায়রা কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দেশীয় শ্রমিকদের ক্ষোভের নেপথ্যে চীনাদের 'অকথ্য নির্যাতন'# চাঁপাইনবাবগঞ্জে মনিরুল হত্যা মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড# ডিআইজি মিজানের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ# খুলনা শিরোমণি বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের ডাক্তার-ষ্টাফদের দুই দফা দাবীতে লাগাতর কর্মসুচি শুরু# অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টস হারল বাংলাদেশ# দিনাজপুরের হিলিতে দেশের প্রথম লৌহ খনির সন্ধান পাওয়া গেছে।
আজ বুধবার| ২৬ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
# ঝিনাইদহে সেনা সদস্য হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন# নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :দেশের প্রথম শ্রেণীর অনলাইন টিভি চ্যানেল"চ্যানেল ফোর নিউজ" যা খুব দ্রুতই স্যাটেলাইট টেলিভিশনে রুপান্তরিত হতে যাচ্ছে। উক্ত চ্যানেলের জন্য নিম্ন বর্ণীত বিভাগসমুহে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ১ জন করে ব্যূরো প্রধান এবং বর্ণীত বিভাগগুলোর প্রতি জেলা ও থানাসমুহে ১ জন করে জেলা ও থানা প্রতিনিধি দ্রুত ও জরুরি ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভাগসমুহ :চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, খুলনা , রাজশাহী , রংপুর - অাগ্রহীগণকে শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতিয়তা NID, পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ১ কপি ছবি ও অভিজ্ঞতার প্রমানপত্রসহ পূর্ণ জীবন বৃত্

মৌলভীবাজারে গ্রেফতার আতংকে পুরুষ শুন্য তিনটি গ্রাম



মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায়পংম্মদপুর, লামুয়া, ও পূর্ব খলিলপুর গ্রামে গ্রেফতার আতংকে পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে তিনটি গ্রাম। লামুয়া গ্রামের নিহত শফিকুর রহমান (২০) এর মা বানেছা বেগম (৬০) ছেলের রুহের মাগফেরাতের জন্য শিরনি নিয়ে বসে আছেন নেওয়ার কোনো পুরুষ লোক নেই। বানেছা বেগমের ৪ছেলে আহত অবস্থায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছে।উল্লেখ্য গত ১৪ জুলাই পতিত জায়গা নিয়ে  তোতা মিয়া গোষ্ঠী ও ফকির গোষ্ঠীর লোকদের মধ্যেকথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে মনর মিয়া (ফকির গোষ্ঠীর) লোকজনদেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে লামুয়া গ্রামের মৃত মুরাদ মিয়ার ছেলে শফিকুর রহমান (২০) ও পংম্মদপুর গ্রামের ওয়ারিছ মিয়ার ছেলে আব্দুল মালিক (৫০) নিহতহন । এ সময় সংঘর্ষে ৩০ জন আহত হয়। ১৩জুলাই বিকেলে, তোতা মিয়া ও ফকির গোষ্ঠীর মধ্যে পূর্ব খলিলপুরের পতিত জমি নিয়ে ঝগড়া হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মহিলা বলেন,ঐ দিন রাতেই ফকির গোষ্ঠীর মনর মিয়ার নেতৃত্বে তোতা মিয়া গোষ্ঠীর লোকদেরকে শায়েস্তা করার উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্র একত্রে জড়ো করে ও আক্রমনের জন্য লোকজন প্রস্তুত রাখে। পর দিন বিকেল বেলা অর্তকৃত ভাবে তোতা মিয়ার গোষ্ঠীর উপর হামলা চালায়। এতে উভয় পক্ষের  সংর্ঘষে দুজন নিহত হয়। ফকির গোষ্ঠীর লোকেরা বাড়ি ঘর ভাংচুর ও গরু বাছুর মালপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। পূর্ব খলিলপুর গ্রামের ফুলখাছ মিয়ার স্ত্রী রাশেদা বেগম বলেন, মনর মিয়ার লোকেরা তাদের, লেবাস মিয়া, আনই মিয়া, বকির মিয়া, সানফর মিয়া, মুকিত মিয়া, মনফর মিয়া, আব্দুল হাকিম, আনছার মিয়াদের ৯টি বাড়ি ভাংচুর করে গরু বাছুর মালপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। এমন কি মহিলাদের উপর বেপড়–য়া ভাবে অত্যাচার চালায়। মৃত মখদ্দর আলীর স্ত্রী খছিরা বিবি ১১০ বছর বয়সি বৃদ্ধ মহিলা বলেন, বাবারে আমি তিনটা যুদ্ধ দেখেছি এ রকম অত্যাচার যুদ্ধেও সৈনিকরাও করেনি। আমি অসুস্থ্য বৃদ্ধ মানুষটিকেও মনর মিয়ার লোকেরা গলাটিপে ধরে পরে লাতি মেরে ফেলে দেয়। আমার কাকুতি মিনতি কেউ শুনেনি। ঘটনার চার দিন হয়ে গেলেও আমি এক ফোঁটা চা খাইনি বাবা। আমার খুব শ্বাসকষ্ট হচ্ছে আমাকে একটু ঔষদের ব্যবস্থা করে দাও। এই গরমের মাঝে আমি আর পারছিনা বাবা। ছেলে হারিয়ে বাকরুদ্ধ মা বানেছা বেগম। এক ভাইকে হারিয়ে আহত অবস্থায় ৪ভাই জেলে থাকায় মানষিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে বোন রেনু বেগম। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাট  বেশির ভাগই হয়েছে তোতা মিয়ার গোষ্ঠীর। তিনটি গ্রামের মধ্যে কোনো পুরুষ মানুষ নেই। এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এর পরেও আতংকের মধ্যে রয়েছে তোতা মিয়ার গোষ্ঠীর মহিলা,বৃদ্ধ ও শিশুরা।


1